পুলিশকে মারধর: পল্টন ছাত্রলীগ সভাপতিসহ ৯ জন রিমান্ডে

ঢাকা, ২৩ জুন, ২০১৯ | 2 0 1

পুলিশকে মারধর: পল্টন ছাত্রলীগ সভাপতিসহ ৯ জন রিমান্ডে

আদালত প্রতিবেদক ৫:২৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০১৯

পুলিশকে মারধর: পল্টন ছাত্রলীগ সভাপতিসহ ৯ জন রিমান্ডে

রাজধানীর পল্টনের আজাদ সেন্টারে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির সময় পুলিশকে মারধর করার ঘটনায় পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ নাজমুল হোসাইন মিরনসহ ৯ জনকে ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবির ইয়াসির আহসান এ আদেশ দেন 

এর আগে বুধবার বিকালে তাদের ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে প্রত্যেকের ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হোসেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন।

বিচারক জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে ৯ জনের ১ দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন।

রিমান্ডপ্রাপ্ত ৯ জন হলেন— পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ নাজমুল হোসেন, ওয়াহিদুল ইসলাম, আরিফ, শেখ রহিম, রাসেল, শাহ্ আলম চঞ্চল, আরিফ হোসেন, কাওসার আহমেদ সাইফ ও মোয়াজ্জেম।

গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর পল্টনে আজাদ সেন্টারে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনায় পল্টন থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ মিরনসহ ১৭ জনকে আটক করে পুলিশ। 

পুলিশ জানায়, সন্ধ্যায় তুহিন নামে একজনের কাছ থেকে ‘পাওনা টাকা’ আনতে যান ছাত্রলীগ নেতা মিরানসহ কয়েকজন। তবে তারা জানিয়েছেন তুহিনের কাছ থেকে তারা নয়, অন্য একজন টাকা পেতেন। তার হয়েই তারা সেই টাকা আদায় করতে যান।

মতিঝিল থানার ডিসি আনোয়ার জানান, ওই টাকা নিয়েই দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়, যা পরবর্তীতে হাতাহাতিতে গড়ায়। সে সময় ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করতে না পেরে দুই পক্ষের ১৭ জনকেই থানায় নিয়ে আসেন।

তবে তুহিন জানিয়েছে, পাওনা টাকা আদায় করতে নয়, চাঁদা আদায় করতে তার কাছে গিয়েছিল ছাত্রলীগ কর্মীরা।

তিনি বলেন, আমরা উভয় পক্ষের বক্তব্যই যাচাই-বাছাই করছি। যারা দোষী প্রমাণিত হবেন, তাদের বিরুদ্ধেই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান মতিঝিলের ডিসি।

এদিকে মতিঝিল বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শিবলী নোমান জানিয়েছেন, মারামারির সময় পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করতে গেলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা পুলিশ এবং আনসার সদস্যদের মারধর করে। এতে তিনজন আহত হন। ওই ঘটনায় কয়েকজনের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা এবং পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা করে পুলিশ।

এমআই/এসবি

 

আইন ও অপরাধ: আরও পড়ুন

আরও