ঘুষের টাকাসহ এলজিইডি প্রকৌশলী গ্রেফতার

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ঘুষের টাকাসহ এলজিইডি প্রকৌশলী গ্রেফতার

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০১৮

ঘুষের টাকাসহ এলজিইডি প্রকৌশলী গ্রেফতার

ঘুষের টাকা গ্রহণকালে এলজিইডির উপসহকারী প্রকৌশলী এহতেশামুল হককে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে নিজ কার্যালয়ে ৫০ হাজার টাকা ঘুষসহ ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক নাসিম আনোয়ারের নেতৃত্বে একটি টিম তাকে গ্রেফতার করে।

দদুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার বিষয়টি জানিয়েছেন।

দুদক সূত্রে জানা যায়, মো. মোজাম্মেল হক, সোনারগাঁও, নারায়ণগঞ্জে গত ৫ বছর ধরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) অধীনে উপজেলা প্রকৌশলী, সোনারগাঁও, নারায়ণগঞ্জের আওতায় মেসার্স মিরাজ অ্যান্ড মেহরাব এন্টারপ্রাইজ নামে যথাযথ ঠিকাদারি লাইসেন্সের মাধ্যমে বিভিন্ন ঠিকাদারি কাজ করে আসছেন।

সম্প্রতি উপজেলা প্রকৌশলী, এলজিইডি, সোনারগাঁও, নারায়ণগঞ্জ থেকে কাঁচপুর হাইওয়ে রাস্তা আরসিসির মাধ্যমে উন্নয়ন কাজের জন্য বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে দরপত্র আহ্বান করা হলে তিনি তাতে অংশগ্রহণ করেন। উক্ত কাজের জন্য ১০ লাখ টাকায় দর উদ্বৃত্ত করে দর দাখিল করেন।

উক্ত দরপত্রে সর্বনিম্ন দরদাতা হওয়ায় উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয়ে তার নামে কার্যাদেশ ইস্যু করা হয়। কিন্তু উক্ত কার্যালয়ের উপসহকারী প্রকৌশলী এহতেশামুল হক তার নিজের জন্য এবং তার ঊর্ধ্বতন অফিসার অর্থাৎ উপজেলা প্রকৌশলীর কথা বলে ১ লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন।

অনেক দরকষাকষি করে উপায় না দেখে তার সাথে ৮০ হাজার টাকা ঘুষ দিতে রাজি হন। উপসহকারী প্রকৌশলী মো. এহতেশামুল হকের দাবি এবং পীড়াপীড়ির প্রেক্ষিতে কার্যাদেশ গ্রহণের সময় বাধ্য হয়ে তিনি ৩০ হাজার টাকা ঘুষ হিসেবে প্রদান করেন। অতঃপর তিনি কাজটি যথাযথভাবে সমাপ্ত করে গত ১৩ আগস্ট ২০১৮ তারিখে প্রথম ও চূড়ান্ত বিল প্রদানের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী, এলজিইডি, সোনারগাঁও বরাবর আবেদন করেন।

তিনি ওই দিনই দায়িত্বপ্রাপ্ত উপসহকারী প্রকৌশলী এহেতেশামুলের কাছে প্রেরণ করেন। বর্তমানে এহতেশামুল ঘুষের অবশিষ্ট ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ ব্যতীত তার প্রাপ্য প্রথম ও চূড়ান্ত বিলের ১০ লাখ টাকা প্রদান করছেন না। উপায়ন্তর না দেখে তিনি ঘুষের উক্ত ৫০ হাজার টাকা দিতে সম্মত হন।

অভিযোগকারী মো. মোজাম্মেল হক উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয়, এলজিইডি, সোনারগাঁও, নারায়ণগঞ্জের উপসহকারী প্রকৌশলী মো: এহেতেশামুল হকের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার পূর্বক অবৈধভাবে নিজেকে লাভবান করার মানসে তার কাছে ঘুষ দাবি করায় দুদকের কাছে লিখিত দরখাস্তের মাধ্যমে উক্ত ঘুষ দাবি ও গ্রহণের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা  গ্রহণের জন্য আবেদন জানান।

আজকে দুদকের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক নাসিম আনোয়ার ও  ঢাকা-২ এর উপপরিচালক মোরশেদ আলমের তত্ত্বাবধানে গঠিত একটি টিম নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁয়ের এলজিইডির উপসহকারী প্রকৌশলী এহতেশামুল হককে ৫০ হাজার টাকা ঘুষসহ হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়।

অবৈধভাবে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে সোনারগাঁও থানায় মামলা করা হয়েছে। দুদকের ঢাকা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ফজলুল বারী মামলা করেন। 

টিএটি/এএল/