সীমান্তে সাড়ে ৩ কেজি সোনাসহ আটক ৩

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

সীমান্তে সাড়ে ৩ কেজি সোনাসহ আটক ৩

বেনাপোল প্রতিনিধি ৪:৫০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

সীমান্তে সাড়ে ৩ কেজি সোনাসহ আটক ৩

যশোরের বেনাপোল সীমান্তে বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩ কেজি ৪শ ৮৩ গ্রাম স্বর্ণের বারসহ তিন পাচারকারিকে আটক করেছে বিজিবি সদস্যরা। 

বিজিবি-৪৯ ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক নজরুল ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন যাবত হুন্ডি, মাদক, চোরাচালান ও স্বর্ণ আটকের জন্য বিজিবির বিশেষ পরিকল্পনা অনুযায়ী গোয়েন্দা তৎপরতাসহ অভিযান জোরদার করা হয়েছে।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় ঘিবা বিওপিতে কর্মরত হাবিলদার ওবায়দুল হকের নেতৃত্বে একটি অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে মেইন পিলার ২২ হতে ৮৫ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ২নং ঘিবা মাঠ হতে ১ কেজি ৯৯৮ গ্রাম (২টি বার) স্বর্ণসহ বেনাপোল ঘিবা গ্রামের শ্রী নরেন বিশ্বাসের ছেলে শ্রী দিলীপ বিশ্বাস (৩৫) নামে এক স্বর্ণ পাচারকারীকে আটক করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত স্বর্ণের আনুমানিক সিজার মূল্য এক কোটি সাত লাখ ৮৯ হাজার ২শ টাকা।

অন্যদিকে সকাল ৮টায় বেনাপোল সীমান্তের আমড়াখালী বিজিবি চেকপোস্ট থেকে ভারতে পাচারের সময় ৮ পিস স্বর্ণের বারসহ যশোর সদরের আরএন রোডের লোন অফিসপাড়া এলাকার মনির উদ্দিনের ছেলে রবিউল ইসলাম জামির (২৭) নামে এক স্বর্ণ পাচারকারীকে আটক করা হয়।

স্বর্ণের চালান পাচারের সংবাদের ভিত্তিতে যশোর থেকে বেনাপোলে মাহেন্দ্রযোগে আসার সময় আমড়াখালী বিজিবি চেকপোষ্টে সন্দেহভাজনভাবে রবিউলকে আটক করা হয়। পরে তার শরীরে তল্লাশী চালিয়ে প্যান্টের বেল্টের সাথে অভিনব কায়দায় রাখা ৮ পিস স্বর্ণেরবার উদ্ধার করা হয়। আটককৃত স্বর্ণের ওজন ৭৮৫ গ্রাম এবং সিজার মূল্য আনুমানিক বিয়াল্লিশ লাখ ৩৯ হাজার টাকা।

বিজিবি-২১ ব্যাটালিয়ন পরিচালক মোহাম্মদ মনজুর-ই-এলাহী জানান, দৌলতপুর বিওপির একটি টহল দল কর্তৃক গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সকাল সাড়ে ৯টায় সীমান্ত পিলার ১৭/১৭ এস পিলার হতে ১৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে দৌলতপুর গরুর খাটালের সামনে পাকা রাস্তার উপর হতে বেনাপোল বড়আঁচড়া গ্রামের রমজান আলীর স্ত্রী মোছা. মনিরা খাতুন (৩৫) নামে এক নারী স্বর্ণ পাচারকারিকে ৬টি স্বর্ণের বারসহ আটক করা হয়। যার ওজন ৭০০ গ্রাম এবং সিজার মূল্য ৩৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

আটক স্বর্ণ পাচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শেষে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

এইচআর

 

খুলনা: আরও পড়ুন

আরও