বিয়ের কথা বলে মাদ্রাসাছাত্রীকে ৯ দিন আটকে গণধর্ষণ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

বিয়ের কথা বলে মাদ্রাসাছাত্রীকে ৯ দিন আটকে গণধর্ষণ

খুলনা ব্যুরো ৬:০৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০১৯

বিয়ের কথা বলে মাদ্রাসাছাত্রীকে ৯ দিন আটকে গণধর্ষণ

খুলনায় বিয়ের কথা বলে নবম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রীকে (১৪) দীর্ঘ ৯ দিন আটকে রেখে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

অসুস্থ ওই কিশোরীকে গত শনিবার খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার দুপুরে খানজাহান আলী থানায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, খুলনা মহানগরীর শিরোমনি এলাকার একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রায় ৬ মাস আগে স্থানীয় জাকির নামের এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে বিয়ের কথা বলে জাকির গত ৮ অক্টোবর ওই কিশোরীকে ফরিদপুর নিয়ে যায়। এ ঘটনায় মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে গত ৯ অক্টোবর খানজাহান আলী থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়। গত ১৭ অক্টোবর মেয়েটি অসুস্থ অবস্থায় বাড়িতে ফিরে এসে তাকে ফরিদপুরে আটকে রেখে জাকিরসহ তার ৭-৮ জন বন্ধু গণধর্ষণ করেছে বলে জানায়।

ওই মেয়েদের বাড়ির মালিক মঈনুল খান জানান, গত ৮ অক্টোবর শিরোমনি থেকে মেয়েটিকে ফরিদপুর নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো। এরপর জাকির ও তার ৭-৮ জন বন্ধু মিলে তাকে টানা ৯ দিন আটকে রেখে গণধর্ষণ করে। এরপর ১৭ অক্টোবর মেয়েটিকে ছেড়ে দিলে সে অসুস্থ অবস্থায় বাড়িতে ফিরে আসে।

খানজাহান আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, ওই ঘটনায় রোববার দুপুরে খানজাহান আলী থানায় কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

এইচআর

 

খুলনা: আরও পড়ুন

আরও