মহেশপুরে ১০টি কেন্দ্রে এজেন্টদের ঢুকতে না দেয়ার অভিযোগ বিএনপির

ঢাকা, শনিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৯ | ২৪ কার্তিক ১৪২৬

মহেশপুরে ১০টি কেন্দ্রে এজেন্টদের ঢুকতে না দেয়ার অভিযোগ বিএনপির

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ৬:১৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

মহেশপুরে ১০টি কেন্দ্রে এজেন্টদের ঢুকতে না দেয়ার অভিযোগ বিএনপির

পঞ্চম ধাপের উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে ঝিনাইদহের মহেশপুরের ১০ টি কেন্দ্রে বিএনপি প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট ঢুকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ।

এদিকে, সোমবার মহেশপুর উপজেলার নাটিমা ঘুহরী, পাকড়াইল, যাদবপুরসহ ওই এলাকার কমপক্ষে ১০টি কেন্দ্রে বিএনপি মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। কোটচাঁদপুর উপজেলা ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রের গেট বেশির ভাগ সময় আটকিয়ে রাখা হয়।সেখানে বেশ কিছু তরুণকে লাঠি হাতে দেখা গেছে। নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে দুই উপজেলায়ই বিএনপির প্রার্থীরা ভোট বর্জন করতে পারেন বলে জানা গেছে। যদিও র্যাব কমান্ডার মাসুদ আলম জানিয়েছেন কেউ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে প্রতিহত করা হবে।

এবার দুই উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে মোট ৬ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৩ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

দুই উপজেলার মোট ১৬৫টি কেন্দ্রে তিনলাখ ৬০ হাজার ৯৭৩ জন ভোটার নারী-পুরুষ ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ৮১ হাজার ৭৭৫ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৭৯ হাজার ১৯৮ জন। সকালে ভোটারদের উপস্থিতি কম দেখা গেলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়বে বলে আশা করছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা।

জেলা নির্বাচন অফিসার ও রির্টানিং কর্মকর্তা মো. রোকনুজ্জামান জানান, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার একটি পৌরসভা ও পাঁচটি ইউনিয়ন ও মহেশপুর উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১২টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য জেলা প্রশাসন ও নির্বাচন অফিসের পক্ষ থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এ দুই উপজেলায় মোট ১০ প্লাটুন বিজিবি, ৮টি মোবাইল টিম, ৮টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, ৯ জন জুডিশিয়াল ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে মোবাইল টিম, ৯৬৩ জন পুলিশ সদস্য ও ১ হাজার ৭২৭ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন।

এমএইচ

 

খুলনা: আরও পড়ুন

আরও