আবরারকে দেখতে গ্রামের বাড়িতে মানুষের ঢল

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

আবরারকে দেখতে গ্রামের বাড়িতে মানুষের ঢল

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ১০:৩০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ০৮, ২০১৯

আবরারকে দেখতে গ্রামের বাড়িতে মানুষের ঢল

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদের মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সটটি তার গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের রায়ডাঙ্গা গ্রামে পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে অ্যাম্বুলেন্সটটি সেখানে পৌঁছালে আবরারকে শেষবারের মতো দেখতে গ্রামের মানুষ ভিড় করে।

বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের লোকজনসহ ও বিভিন্ন পেশার মানুষ আবরারকে শেষবারের মতো দেখতে এসেছেন।

আত্মীয়-স্বজনদের আহারাজিতে সেখানকার পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠেছে।

আবরারকে দেখতে আসা অনেকে জানান, সে (আবরার) খুব ভালো ছেলে ছিল। পড়াশুনার চাপের কারণে গ্রামের বাড়িতে খুব কম আসার সুযোগ হত তার। তবে গ্রামে আসলেই ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের বিকেলের দিকে বাড়ির সামনে বসে লেখাপড়া শিখাত।

এমন ছেলেকে যারা হত্যা করলো তাদের কঠোর বিচারের দাবি জানান তারা।

সকাল ১০টায় তৃতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে আবরারের দাফন সম্পন্ন করা হবে বলে জানিয়েছেন আবরার ফাহাদের পরিবারের সদস্যরা।

গত রোববার রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

জানা যায়, ওই রাতেই হলটির ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা।

ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক জানিয়েছেন, তার মরদেহে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

আবরার বিশ্ববিদ্যালয়ের বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭ তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী ছিলেন।

আবরার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে সোমবার সন্ধ্যার পর চক বাজার থানায় হত্যা একটি হত্যা মামলা করেন নিহতের বাবা বরকতুল্লাহ।

এসবি

আরও পড়ুন...
অংকটা শেষ করতে পারলো না আবরার
আবরার হত্যায় জিডি! ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা
আবরার হত্যায় ১৯ জনকে আসামি করে মামলা
সুষ্ঠু তদন্তে ছেলে হত্যার বিচার চাইলেন আবরারের বাবা (ভিডিও)
সিসিটিভি ফুটেজ, নিস্তেজ আবরারকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে
কুষ্টিয়ায় পৌঁছাল আবরারের মরদেহ

 

খুলনা: আরও পড়ুন

আরও