মামলার বদলা নিতে মা-বাবাকে বেঁধে রেখে মেয়েকে গণধর্ষণ

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

মামলার বদলা নিতে মা-বাবাকে বেঁধে রেখে মেয়েকে গণধর্ষণ

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি ৬:৫৭ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৯

মামলার বদলা নিতে মা-বাবাকে বেঁধে রেখে মেয়েকে গণধর্ষণ

মাদ্রাসাছাত্রী গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি লাল্টু

ধর্ষণচেষ্টা মামলার বদলা নিতে এবার মা ও বাবাকে বেঁধে রেখে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে মাদ্রাসাছাত্রীকে (১১) গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার মধ্যরাতে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার নতিডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতিতার বাবা আলমডাঙ্গা থানায় রোববার একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ মামলার প্রধান আসামি লাল্টুকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে।

লাল্টু একই গ্রামের জয়নালের ছেলে। বাকি আসামি গ্রামের মৃত সভা ঘোরামীর ছেলে শরীফুল ইসলাম (৪০) ও মিলনের ছেলে রাজুকে (৩০) গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আর দুপুরে ওই কিশোরীকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মাসখানেক আগে আলমডাঙ্গা উপজেলার নতিডাঙ্গা আবাসন এলাকার মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান লাল্টু গংরা। পরে নির্যাতিতার মা বাদী হয়ে চুয়াডাঙ্গা আদালতে ধর্ষণচেষ্টা মামলা দায়ের করেন।

মাদ্রাসাছাত্রীর মায়ের অভিযোগ, এরপর থেকে মামলা তুলে নিতে প্রায়ই হুমকি-ধমকি দিতেন আসামিরা। তিন দিন আগেও মামলা তুলে না নিলে বদলা হিসেবে মেয়েকে ধর্ষণের হুমকি দেয়া হয়।

আক্ষেপ করে তিনি বলেন, ‘কিন্তু, তারা যে সত্যিই এমন ঘটনা ঘটাবে, তা ভাবতেও পারিনি। আমাদের চোখের সামনে মেয়ের সব শেষ করে দিল। এর বিচার চাই আমরা।’

ছাত্রীর বাবা বলেন, ‘রোববার ওই মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণের ধার্য দিন ছিল। আগের দিন শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে হঠাৎ লাল্টু, রাজু ও শরীফুল লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের বাড়িতে আসে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই মারপিট শুরু করে।’

তিনি বলেন, ‘এক পর্যায়ে স্ত্রী ও আমাকে বেঁধে রেখে মেয়েকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর তাকে গ্রামের মাথাভাঙ্গা নদীর তীরে শ্মশান ঘাট সংলগ্ন বাঁশ বাগানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় রোববার ভোরে তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করি।’

আলমডাঙ্গা থানার ওসি আসাদুজ্জামান মুন্সি জানান, মেয়েকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের ঘটনায় বাবার মামলায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদেরও ধরা হবে।

শারীরিক পরীক্ষার জন্য ওই কিশোরীকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এআই/আইএম

 

খুলনা: আরও পড়ুন

আরও