খুলনা ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত

ঢাকা, ১৫ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

খুলনা ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত

খুলনা ব্যুরো ১২:০১ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৯, ২০১৯

খুলনা ডুমুরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নির্বাচিত

খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী গাজী এজাজ আহমেদ (ঘোড়া) বিপুল ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী তিনি পেয়েছেন ৮০ হাজার ১৪৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত, গুটুদিয়া ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তফা সরোয়ার (নৌকা)’র প্রাপ্ত ভোট ৪৩ হাজার ৬২৩।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত কঠোর নিরাপত্তায় বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান গাজী এজাজ আহমেদ ডুমুরিয়া উপজেলার প্রয়াত উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী আব্দুল হাদীর জৈষ্ঠ পুত্র। এছাড়া নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন মো. মাহবুবুর রহমান মোল্লা (আনারস), সেলিম আকতার স্বপন (হাতুড়ী) ও শাহনেওয়াজ হোসেন জোয়ার্দার (দোয়াত কলম)।

অপরদিকে, ভাইস চেয়ারম্যান পদে গাজী আব্দুল হালিম (টিয়া পাখি) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শারমিন পারভীন রুমা (কলস) এগিয়ে রয়েছেন বলে বেসরকারি ফলাফলে জানা গেছে।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে আব্দুল লতিফ মোড়ল (বাই সাইকেল), এম এ এরশাদ (টিউবওয়েল), জামিল আক্তার লেলিন (মাইক), শেখ মুজিবুর রহমান (উড়োজাহাজ), গোবিন্দ কুমার ঘোষ (তালা চাবি) ও সুমন ভ্রম্য (বই) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে হাসনা হেনা (ফুটবল) ও মাকসুদা আক্তার রাখি (হাঁস) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে ৭ প্লাটুন বিজিবি এবং ৪ প্লাটুন র‌্যাবসহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়। মোট ৯৪টি কেন্দ্রে ২ লাখ ৪৪ হাজার ৫৭৬ জন ভোটার ছিলেন।

উল্লেখ্য, ৩১ মার্চ খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলায় নির্বাচনের দিন নির্ধারণ করা ছিল। কিন্তু ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ মনোনীত দুই প্রার্থীর মধ্যে ‘নৌকা’ প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার জেরে রিটের প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট নির্বাচন স্থগিত করেন।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ গত ২৭ মার্চ এই আদেশ দেন।

এর আগে ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাচনে মোস্তফা সরোয়ার এবং শাহনেওয়াজ হোসাইন জোয়ার্দারকে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে প্রাথমিকভাবে মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ। এরপর শাহনেওয়াজ হোসাইন জোয়ার্দারকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেয়া হয়।

কিন্তু পরে রিটার্নিং অফিস থেকে মোস্তফা সরোয়ারকে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়। এরপর রিটার্নিং অফিসের প্রতীক বরাদ্ধের ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গত ৭ মার্চ আপিল আবেদন জানান শাহনেওয়াজ হোসাইন জোয়ার্দার। সে আপিল আবেদন নিষ্পত্তি না হওয়া সত্ত্বেও নির্বাচন প্রক্রিয়া চলমান থাকায় হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন প্রার্থী শাহনেওয়াজ হোসাইন। সে রিটের শুনানি নিয়ে আদালত নির্বাচন স্থগিত করাসহ রুল জারি করেন।

এআরই

 

খুলনা: আরও পড়ুন

আরও