এক বছরের সঞ্চয়ে কুরবানি দেয় ইন্দোনেশিয়ার সাত শিশু   

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

এক বছরের সঞ্চয়ে কুরবানি দেয় ইন্দোনেশিয়ার সাত শিশু   

পরিবর্তন ডেস্ক ২:৩০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৯

এক বছরের সঞ্চয়ে কুরবানি দেয় ইন্দোনেশিয়ার সাত শিশু   

ইন্দোনেশিয়ার বগর শহরের সাত শিশু প্রতিদিনের হাত-খরচ থেকে জমানো অর্থে এ বছর ঈদুল আযহায় একটি গরু কুরবানী করেছে। তারা প্রায় এক বছর ধরে এই অর্থ সঞ্চয় করে।

কুরবানী করার সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে ১০ মাস আগে থেকে ১১ থেকে ১৮ বছর বয়সী এই শিশুরা তাদের প্রতিদিনের হাত খরচের অর্ধেকটা সঞ্চয় করা শুরু করে।

এই সাত শিশু হচ্ছেন, আন্তোনি (১২), আবু বকর সিদ্দিক (১৩), যিলাল (১১), শাওকি(১১), ফাওযান (১১), সুকাতমা (১২) ও ইউদি (১৮), এই সাত শিশু দশ মাস প্রতিদিন নিজেদের হাত খরচের অর্থ থেকে সঞ্চয় করে।

আন্তোনি জানায়, তাদের এই যৌথ উদ্যোগে কুরবানীর জন্য আবু বকর সিদ্দিক প্রথম প্রস্তাব করে। আবু বকরের প্রস্তাবের ভিত্তিতে তারা গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে এই অর্থ সঞ্চয় শুরু করে।

আন্তোনি জানায়, প্রাথমিক ভাবে তেরো জন শিশু অর্থ সঞ্চয়ের জন্য কথা দিয়েছিল। কিন্তু সাত জন শেষ পর্যন্ত এই সিদ্ধান্তে অটল থেকে অর্থ সঞ্চয় করে।

সঞ্চয়ের শুরুতে তারা প্রতিদিন দশ হাজার রুপিয়া (০.৭ ডলার) করে সঞ্চয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।

আন্তোনি জানায়,  এ বছর জুনের মধ্যে তারা ২,১৭,০০,০০০ রুপিয়া (১,৪৭৭ ডলার) সংগ্রহ করে।

আন্তোনি বলে, “সুতরাং, অনুমান করা যায় প্রত্যেকেরই সঞ্চিত অর্থের মোট পরিমাণ প্রায় ৩১ লক্ষ রুপিয়া ছাড়িয়েছে।”

সঞ্চয় করা অর্থ থেকে তারা ৪২৫ কিলোগ্রামের একটি গরু কিনে কুরবানী দিয়েছে। গরুটি কিনতে তাদের ২১ লক্ষ রুপিয়া খরচ হয়েছে।

আন্তোনি জানায়, তাদের উদ্যোগের প্রেক্ষিতে একজন গরুর ব্যবসায়ী এগিয়ে আসেন। তাদের কাছ থেকে ১০ লক্ষ রুপিয়া কমে সে গরুটি বিক্রয় করেন।

তাদের উদ্যোগের প্রেক্ষিতে অনেকেই উৎসাহিত হয়েছেন। আন্তোনি জানায়, আগামী বছর কুরবানী দেওয়ার জন্য ইতোমধ্যে ১৪ জন শিশু অর্থ সঞ্চয় করা শুরু করেছে।

সন্তানদের এমন উদ্যোগে তাদের পিতা-মাতাও গর্বিত।

সন্তান ও তার বন্ধুদের এই উদ্যোগে নিজেদের জন্য চিন্তার খোরাক আছে বলে জানান সিয়াম মাকমুর।

তিনি বলেন, “আমি আনন্দিত ও তাদের উদ্যোগে গর্বিত। আমরা পিতা-মাতারা তাদের মত চিন্তাও করতে পারিনি।”

এমএফ/

 

ইসলামি সংবাদ: আরও পড়ুন

আরও