ফিলিস্তিনের ঐতিহাসিক মসজিদ জাদুঘর বানাবে ইসরাইল

ঢাকা, ২২ মে, ২০১৯ | 2 0 1

ফিলিস্তিনের ঐতিহাসিক মসজিদ জাদুঘর বানাবে ইসরাইল

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:৩২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৯

ফিলিস্তিনের ঐতিহাসিক মসজিদ জাদুঘর বানাবে ইসরাইল

টাইবেরিয়াসের ঐতিহাসিক আল-বাহর মসজিদটি জাদুঘর বানাতে এর অংশ বিশেষ ধ্বসিয়ে দিয়েছে ইসরাইলী কর্তৃপক্ষ, জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদপত্র আল-রিসালাহ।

এর মাধ্যমে ইসরাইল ২০০০ সালে ফিলিস্তিন ও ইসরাইলী কর্তৃপক্ষের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি আবারও লঙ্ঘন করলো।

১৯৪৮ সালে অবৈধ দখলদারিত্ব প্রতিষ্ঠার পর থেকে ইসরাইল ঐতিহাসিক ফিলিস্তিন ভূখন্ডের অসংখ্য মসজিদ, কবরস্থান এবং অন্যান্য ধর্মীয় স্থাপনা ধ্বংস করেছে। জাফা, লুদ, আল-রামলা, আসকালান এবং অন্যান্য বিভিন্ন শহরের অসংখ্য স্থাপনাকে বার, নাইট ক্লাব ও পার্কে রূপান্তরিত করা হয়েছে।

আরব ৪৮ ডট কমের তথ্যানুসারে, ২০০০ সালে সম্পাদিত চুক্তি এর আগে অসংখ্যবার ইসরাইলী কর্তৃপক্ষের দ্বারা লঙ্ঘিত হয়েছে।

ইসরাইলের হাই কমিটি ফর আরব সিটিজেনের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ বারাকা বলেন, “আমাদের উচিত তাইবেরিয়াসে যাওয়া এবং পবিত্র এই স্থানটির অবমাননা বন্ধ করা যা মূলত শহরটির ফিলিস্তিনি চিহ্ন মুছে ফেলার হীন উদ্দেশ্য সাধনের জন্য পরিচালিত হচ্ছে।”

তিনি আরও বলেন, ইসরাইলের আরব নাগরিকরা ইসরাইলের এধরনের কোন পদক্ষেপ মেনে নিবে না এবং তারা এই মসজিদ ও অন্যান্য পবিত্র স্থানের রক্ষণাবেক্ষণ করতে বদ্ধপরিকর।

আল-বাহর মসজিদটি ১৭৪৩ সালে টাইবেরিয়াসের মুসলিম শাসক উমর আল-যাহিরের হাতে নির্মিত হয়। লেক টাইবেরিয়াস বা (অপর নাম) গ্যালিলি সাগরের নিকটে মসজিদটির অবস্থান হওয়ার কারনে এর নামকরণ হয় ‘মসজিদ আল-বাহর’।

১৯৪৮ সালে ইসরাইল প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই মসজিদটি পরিত্যক্ত হয়। তখন থেকেই কোন মুসলিমকে এ মসজিদের ভেতরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

এমএফ/

আরও পড়ুন...
আলবেনিয়ার বলকানে তুরস্কের বৃহত্তম মসজিদ নির্মাণ
পাল্টে যাচ্ছে নবীজীর (সা.) মসজিদ
উঁচু ভবনের আড়ালে মক্কা : মুসলমানদের উদ্বেগ
ইথিওপিয়ার অনাড়ম্বর মসজিদে নবীযুগের প্রতিচ্ছবি
তুরস্কের অভিনব জান্নাতী মসজিদ
বাইতুল মুকাদ্দাসে প্রাণীদের বন্ধু ফিলিস্তিনি ‘আবু হুরাইরা’ (ভিডিও)
অভিনব মসজিদ ‘প্যারাডাইস হ্যাজ ম্যানি গেটস’
তুরস্কে মেঘের উপর মসজিদে পর্যটন আকর্ষণ
কিরগিজস্তানে স্বাধীনতার ২৮ বছরে ২৫০০ মসজিদ নির্মাণ

 

ইসলামি সংবাদ: আরও পড়ুন

আরও