নাজ্জাশীর শাসনামলে নির্মিত আফ্রিকার প্রথম মসজিদে পর্যটকদের ভিড়

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

নাজ্জাশীর শাসনামলে নির্মিত আফ্রিকার প্রথম মসজিদে পর্যটকদের ভিড়

পরিবর্তন ডেস্ক ৬:৪৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০১৮

নাজ্জাশীর শাসনামলে নির্মিত আফ্রিকার প্রথম মসজিদে পর্যটকদের ভিড়

ইথিওপিয়ার সবচে প্রাচীন আল-নাজ্জাশী মসজিদ। সম্প্রতি এর সংস্কার কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর বিপুল পরিমাণে পর্যটক মসজিদটি দেখতে আসছে। তুর্কি সহায়তায় সংস্কারকৃত এই মসজিদটিকে আফ্রিকার প্রথম মসজিদ হিসেবে ধারণা করা হয়।

ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে ৭৯০ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত উকরো শহরে অবস্থিত এই মসজিদটি রাসূল (সা.) এর কতিপয় সাহাবীর হিযরত করে প্রথম আবিসিনিয়ায় অবস্থানকালে নির্মাণ করা হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। রাসূল (সা.) এর পনেরো জন সাহাবীর কবরও এই মসজিদ প্রাঙ্গনে রয়েছে।

জার্মানী থেকে আগত পর্যটক নাসির সাঈদী সালিহ বলেন, “আমার ধারণা ছিল মসজিদটি হয়তো খুবই প্রাচীন। কিন্তু, এটি দেখে এখন মনে হচ্ছে, মাত্র বছরখানেক বা দুই বছর আগে এটি তৈরি করা হয়েছে।”

ইসলামী ঐতিহ্যের এই প্রাচীনতম নিদর্শনটি দেখতে আসার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি বলেন, “এটি আমাদের কাছে একটি অনন্য সুন্দর বিস্ময়।”

টার্কিশ কো-অর্ডিনেশন অ্যান্ড কো-অপারেশন এজেন্সীর (টিকা) সহায়তায় মসজিদটির বর্তমান সংষ্কার কাজ চালানো হয়।

মসজিদটির ইমাম আলী মুহাম্মদ ইবরাহীম টিকাকে ধন্যবাদ জানান মসজিদটির সংস্কার কাজে তাদের সহায়তার জন্য।

আনাদোলু এজেন্সীকে তিনি বলেন,
“সংস্কারের পর মসজিদটি দেখতে আসা দর্শনার্থীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। শুধু মুসলমানরাই নয়, বরং খ্রিস্টানরাও এটি দেখতে আসছে।”

মসজিদটি তৎকালীন আবিসিনিয়ার শাসক নাজ্জাসীর নামে নামকরনকৃত, যিনি আবিসিনিয়ায় হিযরত করে আগত মুসলমানদের নিরাপদ আশ্রয় দান করেন এবং পরবর্তীতে রাসূল (সা.) এর দাওয়াতে ইসলাম গ্রহণ করেন।

এমএফ/

আরও পড়ুন...
তুরস্কের দৃষ্টিনন্দন অষ্টকোণাকার মসজিদ