ভাইকিংদের পোশাকে ‘আল্লাহ’ লেখা কেন?

ঢাকা, রবিবার, ২০ জানুয়ারি ২০১৯ | ৭ মাঘ ১৪২৫

ভাইকিংদের পোশাকে ‘আল্লাহ’ লেখা কেন?

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:৫৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০১৮

ভাইকিংদের পোশাকে ‘আল্লাহ’ লেখা কেন?

সুইডেনে নবম থেকে দশম শতাব্দীর মধ্যে ভাইকিংদের ব্যবহৃত কিছু কাফনের কাপড় পাওয়া যায়। বিশেষজ্ঞরা এই কাপড়ে আল্লাহর নাম লেখা দেখে বিস্মিত হয়েছেন এবং ইসলামের সাথে ভাইকিংদের সম্পর্ক নিয়ে নতুন করে গবেষণা করছেন।

তবে ভাইকিংদের কাপড়ে আল্লাহর নামের লিখন কোন নতুন ঘটনা নয়। এর আগেও ভাইকিংদের বিভিন্ন সম্পদ ও পোশাকে কালিমা এবং আল্লাহর নাম পাওয়া গিয়েছিল।

ভাইকিংরা মূলত স্ক্যান্ডিনোভিয়ার অধিবাসী যারা জলদস্যুতা এবং কখনো কখনো ব্যবসার মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করতো। জীবিকার অন্বেষণে তারা পশ্চিম ইউরোপের প্রান্ত থেকে অনেকসময় মুসলিম ভূখন্ডে ঢুকে পড়তো এবং তার ফলে তাদের মুসলিম সভ্যতার সংস্পর্শে আসার সুযোগ হয়েছিল। মুসলিম পন্ডিত ও পর্যটকদের অনেকেরই লেখায় তাদের সম্পর্কে বিবরণ রয়েছে। এরূপ একজন বিখ্যাত পন্ডিত এবং পর্যটক আহমদ ইবনে ফাদলান।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ভাইকিংদের বিশ্বাস ইসলামের শিক্ষার সাথে প্রায় সাদৃশ্যপূর্ণ ছিল। তারা এক স্রষ্টা ‘আল্লাহ’ এবং মৃত্যুর পর বিচার দিবসে বিশ্বাস করতো। বিশ্বাসের সাদৃশ্য এবং মুসলিম সভ্যতার সাথে সংস্পর্শের ফলে তাদের কাছে এরূপ সরঞ্জাম পাওয়া আশ্চর্যজনক নয় বলে অনেক বিশেষজ্ঞই মত প্রকাশ করেছেন।

সূত্র: টিআরটি ওয়ার্ল্ড

এমএফ/