সিনেপ্লেক্সে ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড : ফলেন কিংডম’

ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮ | ৪ ভাদ্র ১৪২৫

সিনেপ্লেক্সে ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড : ফলেন কিংডম’

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২২ অপরাহ্ণ, জুন ১৩, ২০১৮

print
সিনেপ্লেক্সে ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড : ফলেন কিংডম’

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নতুন চমকের আয়োজন করেছে স্টার সিনেপ্লেক্স। ১৫ জুন থেকে এই মাল্টিপ্লেক্সে দর্শকরা দেখতে পাবেন ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’ সিরিজের নতুন সিনেমা ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড : ফলেন কিংডম’।

স্টিভেন স্পিলবার্গ পরিচালিত কল্পবিজ্ঞানধর্মী চলচ্চিত্র ‘জুরাসিক পার্ক’। মাইকেল ক্রিকটনের উপন্যাসের উপর ভিত্তি করে নির্মিত এই সিরিজের প্রথম চলচ্চিত্রটি ১৯৯৩ সালে মুক্তি পায়। বিপুল সাড়া জাগানো ছবিটি এ যাবত ১০০ কোটি ডলার আয় করেছে। চলতি বছর এ সিনেমার ২৫ বছর পুর্তি হতে চলেছে।

১৯৯৭ সালে ‘দ্য লস্ট ওয়ার্ল্ড’ নামে জুরাসিক পার্কের দ্বিতীয় পর্ব মুক্তি পায়। ২০০১ সালে মুক্তি পায় ‘জুরাসিক পার্ক ৩’।

এরপর বড় বিরতি দিয়ে ১৪ বছর পর ২০১৫ সালে মুক্তি পায় সিরিজের নতুন সংস্করণ ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’। তিন বছর পরেও ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’ ব্যবসার দিক দিয়ে এখনো বিশ্বে চতুর্থ অবস্থানে।

‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’-এর প্রথম ছবির কাহিনি যেখানে শেষ হয়েছিল, ঠিক সেখান থেকেই শুরু হয়েছে ‘ফলেন কিংডম’-এর। ছবিটির কেন্দ্রীয় চরিত্র ওয়েন গ্র্যান্ডি ও ক্লেয়ার ডিয়ারিং ফিরে যায় জুরাসিক পার্ক হিসেবে পরিচিত আইলা নুবলা দ্বীপে। এর আগের ছবিটিতে পার্কটি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেলেও, এখনো সেখানে রয়ে গেছে প্রাগৈতিহাসিক যুগের কিছু প্রাণী।

আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত তাদেরকে পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন করে দিতে পারেনি। তাই তাদের বাঁচাতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে পৌঁছান ওয়েন ও ক্লেয়ার। নানা প্রতিকূলতা আর ঘাত-প্রতিঘাতের সম্মুখীন হয় তারা। শ্বাসরূদ্ধকর সেই অভিযানের কাহিনী নিয়েই নির্মিত হয়েছে ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড : ফলেন কিংডম’।

এবারের ছবিটির পরিচালনায় পরিবর্তন এলেও বরাবরের মতোই কার্যনির্বাহী প্রযোজক হিসেবে রয়েছেন স্টিভেন স্পিলবার্গ। পরিচালনা করেছেন জে এ বায়োনা। আগের ছবিটির মতো কেন্দ্রীয় দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন ব্রাইস ডালাস হাওয়ার্ড ও ক্রিস প্যাট। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন জেফ গোল্ডবাম, বিডি ওং, টবি জোনস টেড লিভাইনসহ অনেকে।

ডব্লিউএস

 
.


আলোচিত সংবাদ