ক্রিস প্যাটের বিবাহ বিচ্ছেদে দায়ি নন লরেন্স

ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫

ক্রিস প্যাটের বিবাহ বিচ্ছেদে দায়ি নন লরেন্স

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৮

ক্রিস প্যাটের বিবাহ বিচ্ছেদে দায়ি নন লরেন্স

কয়েক মাস আগে স্ত্রী আনা ফারিসের সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়েছে হলিউড অভিনেতা ক্রিস প্যাটের। এর জন্য অনেকেই দায়ি করছেন একাডেমি অ্যাওয়ার্ড জয়ী হার্টথ্রব নায়িকা জেনিফার লরেন্সকে। তিনি জানালেন এমন গুজবের কোনো সত্যতা নেই।

এফএম রেডিও চ্যানেল কিস-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করলেন লরেন্স।

তিনি জানান, ক্রিস প্যাটের সঙ্গে কখনো সম্পর্ক ছিল না। যা রটেছে তা গুজব মাত্র।

২০১৬ সালে হিট সিনেমা ‘প্যাসেঞ্জারস’-এ জুটিবদ্ধ হন ক্রিস প্যাট ও জেনিফার লরেন্স। ওই সময় গুজব ওঠে দুই তারকা প্রেম করছেন।

লরেন্স বলেন, ‘আমার সঙ্গে ক্রিসের প্রেম হয়নি কখনো। আর তাদের ডিভোর্স হয়েছে সিনেমাটির দুই বছর পর।’

২০০৯ সালে বিয়ে করেন ক্রিস ও ফারিস। ২০১৭ সালে আগস্টে তারা সংসার জীবনের ইতি টানেন।

এদিকে সর্বশেষ সেপ্টেম্বরে এক সাক্ষাৎকারে জেনিফার লরেন্স জানান, দুই বছরের মধ্যে কোনো সিনেমায় অভিনয় করছেন না।

তবে সম্প্রতি তার মুখপাত্র জানান, আবারো সিনেমায় নিয়মিত হচ্ছেন নায়িকা। লরেন্সের হাতে রয়েছে ৭টি সিনেমা। এর মধ্যে আছে রন হাওয়ার্ড পরিচালিত জেলডা ফিটজগেরাল্ডের বায়োপিক ‘জেলডা’, এমি ম্যাকাইয়ের ‘ব্যাড ব্ল্যাড’ ও লুকা গোয়াদাগনিনোর ‘ব্যারিয়ল রাইটস’।

জেনিফার লরেন্সকে সর্বশেষ দেখা যায় ২০১৭ সালের আলোচিত সিনেমা ‘মাদার’-এ। চলতি বছর মুক্তি পাবে রেড স্পারো ও এক্স-মেন : ডার্ক ফনিক্স।

ডব্লিউএস