মূল পর্বে চোখ রেখে থাইল্যান্ডে হকি দল

ঢাকা, শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮ | ৩ ভাদ্র ১৪২৫

মূল পর্বে চোখ রেখে থাইল্যান্ডে হকি দল

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৫:৪৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০১৮

print
মূল পর্বে চোখ রেখে থাইল্যান্ডে হকি দল

অক্টোবরে আর্জেন্টিনার বুয়েনস আইরেসে বসবে যুব অলিম্পিকের আসর। সেই আসরে খেলার যোগ্যতা অর্জনের লক্ষ্যে বাছাই পর্বে অংশ নিতে মঙ্গলবার সকালে দেশ ছেড়েছে বাংলাদেশ হকি দল। ১১ দল নিয়ে বাছাই পর্বটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে। সেখানে আসরের ফাইনালে খেলা দুই দল পাবে আর্জেন্টিনায় অনুষ্ঠেয় মূল পর্বের টিকিট। বাংলাদেশ দলের সদস্যরা সেই স্বপ্নে চোখ রেখেই দেশ ছাড়লেন এদিন সকাল ১১টায়।

যুব অলিম্পিকে হকির আসরটি একটু ব্যতিক্রমী। ফাইভ 'এ' সাইড টুর্নামেন্ট হয়ে থাকে এখানে। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৮ দলটি তাই ৯ সদস্যের। যে দলটিকে নেতৃত্ব দেবেন সোহানুর রহমান সবুজ, সহ-অধিনায়ক সদ্যই ক্লাব কাপে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার জেতা মোহম্মদ মহসীন। আসরে ‘বি’ গ্রুপে খেলবে বাংলাদেশ। তাদের গ্রুপ সঙ্গী হিসেবে রয়েছে মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, চাইনিজ তাইপে, কম্বোডিয়া ও সিঙ্গাপুর। ‘এ’ গ্রুপের দল সংখ্যা পাঁচটি। ভারতের সঙ্গী সেখানে দক্ষিণ কোরিয়া, হংকং, জাপান ও স্বাগতিক থাইল্যান্ড।

সর্বশেষ ২০১৪ সালে চীনের নানজিনে অনুষ্ঠিত যুব অলিম্পিকে খেলেছিল বাংলাদেশ। সেবার বাছাই পর্বে রানার্স আপ হয়ে মূল পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছিল তখনকার বিকেএসপির প্রধান কোচ কাওসার আলির শিষ্যরা। এবার বাংলাদেশের এই দলটির সঙ্গে কাজ করেছেন জাতীয় দলের নব-নিযুক্ত কোচ গোবিনাথান কৃষ্ণমুর্তি। দলের সঙ্গে প্রধান কোচ হিসেবে থাইল্যান্ড গিয়েছেন তিনি।

এদিকে দেশ ছাড়ার আগে বাংলাদেশ যুব দলটির অধিনায়ক সোহানুর ও সহ-অধিনায়ক মহসীন পরিবর্তন ডটকমকে জানিয়ে গেছেন তাদের প্রত্যাশার কথা। দুজনের কণ্ঠেই অভিন্ন লক্ষ্য, মূল পর্বে কোয়ালিফাই করা চাই তাদের। অধিনায়ক সোহানুর রহমান সোহানের মনে প্রস্তুতির সন্তুষ্টি, ‘আমার দল নিয়ে আমি খুব খুশি। দলের যে ঘাটতি ছিল শেষ কদিনে আমরা তা পূরণ করে ফেলেছি। গোপী (গোবিনাথান কৃষ্ণমুর্তি) আসাতে আমাদের অনেক লাভ হয়েছে। ফাইভ এ সাইড খেলা অনেক টেকনিক্যাল। আমার মনে হয় আমরা যে উদ্দেশ্য নিয়ে যাচ্ছি সেটা পূরণ করে আসতে পারবো।’

উদ্দেশ্যটাও পরিষ্কার করে দিলেন সোহানুর, ‘ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, মালয়েশিয়ার মতো দল আছে এখানে। আমাদের আসল লক্ষ্য যে কোনোভাবে হোক কোয়ালিফাই করা। ফাইনালে উঠতে পারলে আমাদের স্বপ্নটা পূরণ হবে।’ আর প্রথমেই ফাইনাল নিয়ে না ভেবে ম্যাচ বাই ম্যাচ ধরে এগোতে চান অধিনায়ক, ‘আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ নিয়ে ভাববো। যদি প্রথম থেকেই ফাইনাল চিন্তা করি তাহলে আমাদের দলের তেমন ভালো কিছু হবে না। ফাইনাল নিশ্চিত করে তারপর সেটা জয় করার চেষ্টা করবো।’

সদস্যই শেষ হয়েছে ক্লাব কাপ। সেখানে ফাইনালে সোহানুরের একমাত্র গোলে শিরোপা জয় করেছে আবাহনী। সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার জেতা মহসীন থাকছেন সহ অধিনায়কের ভূমিকায়। এই কিশোর জানান, ‘আমাদের প্রস্তুতি খুব ভালো হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য একটাই, চ্যাম্পিয়ন হতে হবে। আর্জেন্টিনায় মূল পর্বে কোয়ালিফাই করাই আমাদের টার্গেট। আমাদের টিম খুবই ভালো। বিদেশি কোচ আসাতে টেকনিক্যাল অনেক ঘাটতি আমরা পূরণ করতে পেরেছি। প্রস্তুতি ম্যাচও হয়েছে। আমরা আশাবাদী। যদি সবাই সবার সেরাটা দিতে পারে তবে আমরাই চ্যাম্পিয়ন হবো।’

বাংলাদেশের এই দলটা সম্পূর্ণ বিকেএসপির খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া। বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলবে বুধবার সিঙ্গাপুরের বিপক্ষে। এরপর ২৬ এপ্রিল একই দিন কম্বোডিয়া ও মালয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ। পরের দিন চাইনিজ তাইপে ও পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ।

টিএআর/ক্যাট

 
.


আলোচিত সংবাদ