একটু বেলা বাড়লেই ক্লান্ত লাগে?

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

একটু বেলা বাড়লেই ক্লান্ত লাগে?

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৮

একটু বেলা বাড়লেই ক্লান্ত লাগে?

সকালে খুব ফুরফুরে মেজাজ নিয়ে বাড়ি থেকে বেড় হলেন। মনে হচ্ছে সারাদিন কাজ করার ভালোই এনার্জি আছে শরীরে। কিন্তু বাড়ি বা অফিস যেখানেই থাকেন না কেনো বেলা বাড়ার সাথে সাথেই শরীর অনেক ক্লান্ত হয়ে যায়। মনে হয় রাজ্যের সকল ঘুম ও অবসাদ যেনো আপনার শরীরে ভর করেছে। এমনটা নিশ্চই আপনার সাথেও হয়ে থাকে? কিন্তু কেনো হয়ে থাকে এটা কখনো ভেবে দেখেছেন? আসুন আজ আমরা জেনে নেই কোনো রোগ না থাকার পরেও কেনো একটু বেলা বাড়লেই আপনার ক্লান্ত লাগে।

একটু বেলা বাড়লেই ক্লান্ত লাগার প্রধান কারণ হিসেবে দেখা হয় ঘুমকে। যদি রাতে আপনার ঘুম ঠিক মতো না হয়ে থাকে। যদি আপনার বয়স, শারীরিক অবস্থা সব কিছু মিলিয়ে আপনার ঘুম পরিপূর্ণ না হয় তাহলে আপনি যতই খাওয়াদাওয়া করুন না কেনো বেলা বাড়ার সাথে সাথে আপনার ক্লান্ত লাগবেই।

আসুন আমরা এটা জেনে নেই কী কী কারণে রাতে আপনার ঘুমের ব্যাঘাত ঘটতে পারে: যদি আপনি খেয়াল করে দেখেন, তাহলে জানতে পারবেন মানুষের নিজস্ব কিছু সমস্যার কথাই উঠে আসে যা তার ঘুমের ব্যাঘাত ঘটানোর জন্য দায়ী।

যেমন:
অনেকে বলেন তাপমাত্রা ঘুমের জন্য উপযুক্ত ছিল না।
তাপমাত্রা একেবারে কম ছিল কিংবা অনেক ক্ষেত্রে বেশি ছিল।
সঙ্গীর সাথে ঘুম সংক্রান্ত সমস্যার কথা।
আশেপাশে অনেক বেশি শব্দের কথা।
ঘরে অতিরিক্ত উজ্জ্বল আলো ছিল।
বিছানা আরামদায়ক ছিল না।
বাচ্চার যন্ত্রণায় ঘুমাতে পারেন নি।
শারীরিক অসুস্থতার কারণে ঘুমাতে পারেন নি।

এমন অনেক কারণ আছে যার জন্য আপনার ঘুমের ব্যঘাত ঘটতে পারে। তাহলে আসুন আমরা জেনে নেই এ সমস্যা এড়াতে কী করা উচিত:

প্রতিদিন নিয়মিত ব্যায়াম, হাঁটাহাঁটি। কারণ এতে শারীরিক পরিশ্রম হবে যার কারণে রাতে ক্লান্তির কারণে আরামের ঘুম হবে।
একটানা কাজ না করে ২-৩ ঘণ্টা পরপর একটু বিশ্রাম দেয়া উচিত মস্তিষ্ককে। অর্থাৎ কাজ বন্ধ করে দিন, কিন্তু শারীরিকভাবে বিশ্রাম না নিয়ে উঠে একটু হাঁটাহাঁটি করে নিন।
স্বাস্থ্যকর খাবার খান। এতে করে দেহে এনার্জি পাবেন।
ঘরের আলোর উজ্জ্বলতা কমিয়ে রাখুন ঘুমানোর সময়।
খাদ্যতালিকায় অবশ্যই রাখুন ওমেগা৩ সমৃদ্ধ খাবার। গবেষণায় দেখা যায় যারা ওমেগা৩ সমৃদ্ধ খাবার বেশি খান তাদের ঘুমের সমস্যা কম হয়।

সতর্কতা:
অনেক বেশি মাত্রার ক্যাফেইন ও চিনি গ্রহন করা থেকে বিরত থাকুন।
ঘুমুতে যাওয়ার আগে এবং বিছানায় শুয়ে মোবাইল, ল্যাপটপ টেপাটেপি করবেন না একেবারেই,
একই বিছানার চাদর বালিশের কভার ১ সপ্তাহের বেশি ব্যবহার করবেন না।
রাতে দেরি করে ব্যায়াম করবেন না।
খুব ভারি খাবার খেয়ে সাথে সাথে ঘুমাতে যাবেন না।
আর তাড়াতাড়ি ঘুমাতে যান। দেরি করে ঘুমাতে যেয়ে সকালে ঘুম ভাঙার আগেই এলার্ম দিয়ে ঘুম থেকে উঠা যাবে না।
সকালের নাস্তায় পুষ্টিকর খাবার রাখুন।

ইসি/