ঢাবিতে বিশ্ব হিন্দি দিবস ২০১৭ পালিত

ঢাকা, ৫ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

ঢাবিতে বিশ্ব হিন্দি দিবস ২০১৭ পালিত

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৩:১০ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০১৭

ঢাবিতে বিশ্ব হিন্দি দিবস ২০১৭ পালিত

ঢাকাস্থ ভারতীয় হাই কমিশন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে ১০ জানুয়ারি ২০১৭ বিশ্ব হিন্দি দিবস পালন করেছে। অনুষ্ঠানে মাননীয় ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রী হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এএএমএস আরেফিন সিদ্দিক, অতিথিবৃন্দ এবং আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউট ও ইন্দিরা গান্ধী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, ঢাকায় হিন্দি ভাষা শিক্ষায় অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

হিন্দি ভাষার জন্য একটি আইসিসিআর চেয়ার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস-এর পক্ষে ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রী হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এএএমএস আরেফিন সিদ্দিক সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

এই উপলক্ষে হাই কমিশনার ও উপাচার্য যৌথভাবে বাংলাদেশে প্রথম হিন্দি ই-ম্যাগাজিন উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে ইন্দিরা গান্ধী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউট-এর মেধাবী হিন্দি ভাষা শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণও করা হয়।

হাই কমিশনার আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটের হিন্দি বিভাগের জন্য দুটি কম্পিউটার উপহার দেয়ার ঘোষণা দেন।

হাই কমিশনার তাঁর ভাষণে ২০১৬ সালে আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউট এক-বছর মেয়াদী হিন্দি কোর্স চালু করায় ইন্সটিটিউটের প্রশংসা করেন। তিনি ৭ জুন ২০১৫ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কর্তৃক হিন্দি বিভাগ উদ্বোধনের বিষয়টি স্মরণ করেন। তিনি আগ্রার কেন্দ্রীয় হিন্দি সংস্থায়-ভারত সরকারের মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের অধীনে পরিচালিত একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান- বিদেশে হিন্দিভাষা প্রসার প্রকল্পের আওতায় পোস্ট গ্রাজুয়েট কোর্সের জন্য ইন্দিরা গান্ধী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের দুজন শিক্ষার্থী নির্বাচিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন।

হাই কমিশনার আরও ঘোষণা দেন যে এ বছর এই প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের সংখ্যা  দশে উন্নীত করা হবে।

বিশ্ব হিন্দি দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রী হর্ষ বর্ধন শ্রিংলার যে বক্তব্য রাখেন তা দেওয়া হলো:

 

প্রিয় শিক্ষার্থীবৃন্দ,

সংবাদমাধ্যম থেকে আগত বন্ধুরা,

ভদ্রমহিলা ও মহোদয়গণ,

বিশ্ব হিন্দি দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে আপনাদের সকলকে স্বাগত জানাচ্ছি।

হিন্দি আজ বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত ভাষাগুলির মধ্যে অন্যতম একটি ভাষা। অনেকটা পরিপাট্য ও সারল্যের কারণে এই ভাষা জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হিন্দি ভাষায় পাঠদান শুরু করা হয় ২০০৬ সালে, যদিও ২০১৫পর্যন্ত হিন্দিতে সংক্ষিপ্ত কোর্সই চালু ছিল। ৭ জুন ২০১৫ ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আধুনিক ভাষা শিক্ষা ইন্সটিটিউটে হিন্দি বিভাগ উদ্বোধন করেন। আমি জেনে খুশি হয়েছি যে গত বছর আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটে এক-বছর মেয়াদী একটি হিন্দি কোর্স চালু করা হয়েছে যেখানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৫৬।

ইন্দিরা গান্ধী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রেও (আইজিসিসি) ২০১১ সাল থেকে হিন্দি ক্লাস চালু করা হয়েছে যেখানে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর), নতুন দিল্লী থেকে আগত শিক্ষকরা হিন্দি পড়িয়ে থাকেন। আইজিসিসি থেকে এ পর্যন্ত ৪৫০শিক্ষার্থী হিন্দি ভাষা শিখেছে। আইজিসিসিতে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে ক্লাস নেয়া হয়।

আমি এটি জেনে আরও আনন্দিত হয়েছি যে ইন্দিরা গান্ধী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের দুজন শিক্ষার্থী আগ্রার কেন্দ্রীয় হিন্দি সংস্থার-ভারত সরকারের মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের অধীনে পরিচালিত একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান- বিদেশে হিন্দিভাষা প্রসার প্রকল্পের আওতায় পোস্ট গ্রাজুয়েট কোর্সের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। আমরা এ বছর এইপ্রকল্পের আওতায় শিক্ষার্থীর সংখ্যা দশ-এ উন্নীত করার কথা ভাবছি।

আইজিসিসি হিন্দি ভাষা শিক্ষার্থীরা ভারতের সকল পর্যায়ে এবং ভারত সরকারের বিদেশ মন্ত্রকের অধীনে আয়োজিত প্রতিযোগিতাগুলোতে প্রথম স্থানও অধিকার করেছে। আইজিসিসি শিক্ষার্থী মি. অঞ্জয় রঞ্জন দাস ২০১৫ সালে ভারতের মধ্য প্রদেশে আয়োজিত দশম বিশ্ব হিন্দি দিবসে অংশগ্রহণ করেছিলেন-ইনি ছিলেন বাংলাদেশ থেকে আগত প্রথম হিন্দি ভাষা শিক্ষার্থী। দুজন আইজিসিসি শিক্ষার্থী বাংলাদেশ রেডিওতে হিন্দি সংবাদ পাঠক ও অনুবাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন এবং সেখানে তারা ভালো করছেন।

শিক্ষার্থীদের আগ্রহের কথা বিবেচনা করে আমরা আইজিসিসিতে হিন্দি চলচ্চিত্র প্রদর্শনও শুরু করেছি।

এই উপলক্ষে একটি হিন্দি চেয়ার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আমরা ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করছি। আমরা আশা করি যে আইসিসিআর-এর হিন্দি অধ্যাপকের তত্বাবধানে ঢাকায় হিন্দি ক্লাসগুলো আরও উন্নত হবে এবং উচ্চতর পর্যায়ের কোর্সগুলো চালু করা সম্ভব হবে। আজ আমরা বাংলাদেশে প্রথম হিন্দি ই-ম্যাগাজিনও উদ্বোধন করছি।

 আমি আইজিসিসি থেকে আগত ড. অর্পণা পান্ডে এবং আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক কুলসুম বানুকে এদেশে হিন্দি শিখানোর ক্ষেত্রে অসামান্য অবদান রাখায় অভিনন্দন জানাচ্ছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হিন্দি শিক্ষা প্রসারে আন্তরিক সহায়তা প্রদান করায় আমি অধ্যাপক সিদ্দিক ও অধ্যাপক মজিদকেও আমার ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি নিশ্চিত যে ভবিষ্যতেও তাঁদের কাছ থেকে আমরা এই অকুণ্ঠ সহযোগিতা পাবো।

আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ এবং নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

 

ক্যাম্পাস: আরও পড়ুন

আরও