ভিপি নুরুকে চবি ছাত্রলীগের হুঁশিয়ারি

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

ভিপি নুরুকে চবি ছাত্রলীগের হুঁশিয়ারি

চবি প্রতিনিধি ৮:১৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৯

ভিপি নুরুকে চবি ছাত্রলীগের হুঁশিয়ারি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিশ্ববিদ্যায় (চবি) শাখা ছাত্রলীগ নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি নুরুল হক নুরুকে মাথা না ঘামানোর পরামর্শ দিয়েছেন চবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল।

তিনি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ মিনারে বসে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগকে বলেন দেশের সর্বশ্রেষ্ঠ সন্ত্রাসী সংগঠন। এই নুরুর পাগলামির জবাব আমরা বেব। নুরু মিডিয়াকে নিয়ে রাজনীতি করছে। আমরা বলি আপনি ঢাবিতে আছেন, ঢাবিতে থাকেন। চবি ছাত্রলীগ নিয়ে মাথা ঘামাবেন না।’

বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার স্মরণে শোক র‌্যালি শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

চবি ছাত্রলীগের সভাপতি আরো বলেন, ‘আবরার আমাদের ভাই। আমাদের শরীরে যে রক্ত আছে তা আবরারের শরীরেও প্রবাহিত হচ্ছে। যারা তাকে হত্যা করেছে তারা কোনো দেশের নয়, দলের নয়, গোষ্ঠীর নয়। তারা শুধুমাত্রই খুনি। প্রধানমন্ত্রী আবরারের পরিবারের খোঁজ খবর নিয়েছেন। দেশরত্ন শেখ হাসিনা থেকে অলিগলির ছাত্রলীগ সবাই চায় দ্রুত যেন আবরার হত্যার বিচার হয়।’

তিনি বলেন, ‘যে দেশে শেখ হাসিনা আছে সেখানে কোনো অন্যায় কর্মকাণ্ড চলতে পারে না। যেকোনো অপকর্মের বিচার বাংলাদেশে হচ্ছে। তবে একটি গোষ্ঠী দেশকে অস্থিতিশীল করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কেউ যেন ঘোলা পানিতে মাছ শিকার না করে। চবি ছাত্রলীগ অস্থিতিশীলকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াঁবে।’

এসময় চবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু বলেন, ‘আরবারের সাথে যে ঘটনাটি ঘটেছে তা অত্যন্ত অমানবিক ও ঘৃণিত। যারা নৃশংশ কর্ম ঘটিয়েছে আমরা তাদের শাস্তি চাই। কোনো ব্যক্তি যদি কোনো অপরাধে জড়িত থাকে তার দায়ভার ছাত্রলীগ নেবে না। প্রগতিশীল সকল সংগঠন যে প্রতিবাদ জানিয়েছে তার সাথে আমরাও একাত্মতা পোষণ করছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘মৌলবাদী গোষ্ঠী এ ঘটনায় দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে জড়িয়ে পড়েছে। যারা এ দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না এ হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে তারা অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

যদি কেউ ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাই তাহলে চবি ছাত্রলীগ কঠোর হস্তে দমন করবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

এর আগে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয় জিরো পয়েন্ট থেকে একটি শোক র‌্যালির আয়োজন করে চবি ছাত্রলীগ। পরে বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনারে সবাই সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয় নেতারা। সমাবেশ শেষে আবরারের মাগফেরাত কামানায় মোনাজাত করা হয়।

এইচআর

 

ক্যাম্পাস: আরও পড়ুন

আরও