বুয়েটে রাজনীতি নিষিদ্ধ চান শিক্ষকরাও

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

বুয়েটে রাজনীতি নিষিদ্ধ চান শিক্ষকরাও

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৫:৪৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৯, ২০১৯

বুয়েটে রাজনীতি নিষিদ্ধ চান শিক্ষকরাও

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা যে দাবি জানিয়েছে, তাতে একমত প্রকাশ করেছেন ৩০০ শিক্ষকও।

বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ৩০০ শিক্ষক আবরার হত্যা ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের দাবি নিয়ে সভা করেন। ওই সভায় ছাত্র রাজনীতি বন্ধের দাবিতে একমত প্রকাশ করেন শিক্ষকরা।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি একেএম মাসুদ বলেন, রাজনৈতিক ছত্রছায়াতেই আবরার হত্যাকাণ্ডসহ বুয়েটে এ পর্যন্ত নানা অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। বিভিন্নভাবে এসব কর্মকাণ্ডের সাথে সরকারদলীয় ছাত্র সংগঠন যুক্ত। আমরা বিভিন্ন সময় র‌্যাগিং, নির্যাতন বন্ধে সিদ্ধান্ত নেয়ার চেষ্টা করেও সফল হইনি।

বুয়েটের পরিবেশ অনিরাপদ হয়ে গেছে। এমন পরিস্থিতে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা জরুরি হয়ে পড়েছে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের এই দাবির সাথে আমরা সভায় উপস্থিত ৩০০ শিক্ষক একমত প্রকাশ করছি। আর বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধে সরকার ও রাজনৈতিক দলগুলোর সহযোগিতা কামনা করছি। একই সাথে শিক্ষকদেরও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত না থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে হলগুলো থেকে বহিরাগতদের সরিয়ে ক্যাম্পাসের শৃঙ্খলা ফেরাতে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। পাশাপাশি এখন পর্যন্ত ঘটে যাওয়া প্রতিটি র‌্যাগিং নির্যাতনের ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করছি।

এ সময় আবরার হত্যায় জড়িত সকলকে দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের মাধ্যমে ৭২ ঘন্টার মধ্যে শাস্তির মুখোমুখি করার দাবি জানান শিক্ষকরা। পাশাপাশি তাদেরকে আজীবন বহিষ্কার করারও মত দেন তারা।

উত্থাপিত দাবিগুলো বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ রাখার ক্ষেত্রেও ছাত্রদের সাথে একমত প্রকাশ করেন শিক্ষকরা। অন্যদিকে ভর্তি পরীক্ষার নিরাপদ পরিবেশ নেই জানিয়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে দ্রুত একাডেমিক কাউন্সিল বসানোর আহ্বানও জানান শিক্ষকরা।

পিএসএস/এসবি

 

ক্যাম্পাস: আরও পড়ুন

আরও