বেরোবিতে হলের ডাইনিং বন্ধের নেপথ্যে চাকরি!

ঢাকা, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

বেরোবিতে হলের ডাইনিং বন্ধের নেপথ্যে চাকরি!

মোবাশ্বের আহমেদ, বেরোবি ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৩, ২০১৯

বেরোবিতে হলের ডাইনিং বন্ধের নেপথ্যে চাকরি!

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) শহীদ মুখতার এলাহী হল চালু থাকলেও ডাইনিং বন্ধ রয়েছে প্রায় দুই মাস।

দীর্ঘদিন ডাইনিং বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, স্থায়ী কর্মচারী না থাকায় ডাইনিং ঠিকভাবে চালানো সম্ভব হচ্ছে না।

২০১৫ সালের ২৮ অক্টোবর শহীদ মুখতার এলাহী হল উদ্বোধন করেন তৎকালীন ভিসি অধ্যাপক ড. একে এম নূর-উন-নবী। উদ্বোধনেরও দীর্ঘদিন পর হল চালু হয়।

শুরু থেকে ডাইনিং থাকলেও তা প্রায়ই বন্ধ হয়ে যায়। এতে আবাসিক শিক্ষার্থীরা বিপাকে পড়েন। ডাইনিংয়ের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী কর্মচারী পদ না থাকায় দিনভিত্তিক চালানো হয়। কিন্তু, অর্থাভাবে এসব কর্মচারীকেও নিয়মিত মজুরি দিতে পারে না হল কর্তৃপক্ষ।

একজন কর্মচারীকে মাসে ৪ হাজার টাকা হিসেবে দৈনিক ১৩৩ টাকা দেয়া হয়। কর্মচারীদের অভিযোগ, এই সামান্য টাকাও তারা নিয়মিত পান না। এজন্য ডাইনিংয়ে কাজের বিষয়ে কেউই তেমন আগ্রহী নন।

জানা গেছে, হলে অবস্থানরত বেশিরভাগ ছাত্র অনাবাসিক। এজন্য হলের ফান্ডে তেমন টাকা নেই। এমন অবস্থায় গত জুলাই থেকে হলের ডাইনিং বন্ধ। এর ফলে পার্শ্ববর্তী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, ক্যাফেটেরিয়া ও বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন পার্ক মোড়ের হোটেলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের খেতে হয়।

এ বিষয়ে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রভোস্ট কমিটির সদস্য সচিব তাবিউর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী পদ না থাকায় হল ডাইনিংগুলোতে স্থায়ী কর্মচারী নিয়োগ দিতে পারছে না প্রশাসন। ফলে দৈনিক মজুরিভিত্তিক কর্মচারী দিয়ে ডাইনিং চালানো হচ্ছে। ছাত্রদের হলে অনাবাসিক শিক্ষার্থী বেশি হওয়ায় ফান্ডের ঘাটতি রয়েছে।

তবে তিনি আশা করেন, শিগগিরই শহীদ মুখতার এলাহী হলের ডাইনিং চালু করা সম্ভব হবে।

এমএ/আইএম

 

ক্যাম্পাস: আরও পড়ুন

আরও