চ‌বি শিক্ষক মাইদুল‌কে হুম‌কি, তদন্ত ক‌মি‌টি গঠন

ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০১৯ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

চ‌বি শিক্ষক মাইদুল‌কে হুম‌কি, তদন্ত ক‌মি‌টি গঠন

চ‌বি প্র‌তি‌নি‌ধি ৫:৪৫ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০১৯

চ‌বি শিক্ষক মাইদুল‌কে হুম‌কি, তদন্ত ক‌মি‌টি গঠন

চট্টগ্রাম বিশ্ব‌বিদ্যালয় (চ‌বি) সমাজতত্ব বিভা‌গের সহকারী অধ্যাপক মো. মাইদুল ইসলাম‌কে হুম‌কির অভি‌যোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্ত‌ভোগী শিক্ষ‌কের অভি‌যো‌গের প্রে‌ক্ষি‌তে তিন সদ‌স্যের ক‌মি‌টি গঠন ক‌রে‌ছে চ‌বি প্রশাসন।

এর আগে সোমবার সকা‌লে হুম‌কির ঘটনায় তদ‌ন্তের দাবি‌তে প্রক্ট‌রের কা‌ছে অভি‌যোগ পত্র দেন চ‌বি শিক্ষক মাইদুল।

‌বিশ্ব‌বিদ্যালয় ইং‌রে‌জি বিভা‌গের সহকারী অধ্যাপক গোলাম হো‌সেন হাবীব‌কে অহ্বায়ক এবং সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র‌কে সদস্য ও সহকারী প্রক্টর হেলাল উদ্দিন আহমদ‌কে সদস্য স‌চিব ক‌রে এ তদন্ত ক‌মি‌টি গঠন করা হ‌য়ে‌ছে।

চ‌বি প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী ব‌লেন, কে বা কারা চ‌বি শিক্ষক মাইদুল‌কে হুম‌কি দি‌য়ে‌ছে। এমন এক‌টি অভি‌যোগ দি‌য়ে তি‌নি নিরাপত্তা চে‌য়ে‌ছেন। উপাচার্য ম‌হোদ‌য়ের মৌ‌খিক আদেরশক্রমে তিন সদ‌স্যের তদন্ত ক‌মি‌টি গঠন করা হ‌য়ে‌ছে। ক‌মি‌টি‌কে দ্রুত তদন্ত প্র‌তি‌বেদন জমা দি‌তে বলা হ‌য়ে‌ছে।

এর আগে রোববার (১২ মে) রাত আনুমা‌নিক আটটার দি‌কে ১০-১৫ জনের একটা দল তাঁ‌কে অশ্রাব্য গালিগালাজ ক‌রে হুম‌কি দি‌য়ে‌ছে ব‌লে ওই শিক্ষক তার ফেসবুক ওয়া‌লে পোস্ট ক‌রেন।

এ ঘটনায় তি‌নি নিরাপত্তা চে‌য়ে সোমবার সকা‌লে প্রক্টর অফি‌সে আবেদন জানান ও জ‌ড়িত‌দের শা‌স্তির দাবি জানান।

নিচে সহকারী অধ্যাপক মো. মাইদুল ইসলামের ফেসবুক পোস্ট হুবহু তুলে ধরা লো

“জরুরী বার্তা, আজ ১২ই মে সন্ধ্যা ৭. ৫০। আবাসিক শিক্ষকদের যে ভবনে থাকি সে ভবনের সামনের খোলা জায়গায় ১০-১৫ জনের একটা দল এসে আমার নাম করে অশ্রাব্য গালিগালাজ করে। জন্তুর মত হিংস্রভাবে চিৎকার চেচাঁমেচি করতে থাকে। যার কিছু কথা এমন- ‘মাইদুল বাসার নীচে নাম। কতবড় বিপ্লবী হইছিস দেখি, বাসার নীচে নেমে আয় দেখ তোকে কি করি।’

১০ মিনিটের দানবীয় চিৎকার, চেচাঁমেচির পর চলে যায়। এখানে দুই বিল্ডিং এর সব বাসিন্দা শুনেছেন বলে ধারণা করছি। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে প্রক্টরকে কল দিলাম, একবার রিসিভ করে দুই সেকন্ড ধরে কথা না বলে লাইন কেটে দিলেন। কয়েকবার কল করেও ফোনে পাওয়া গেল না। এই পোস্টটি করার আগে প্রক্টরকে ফোনে না পেয়ে ইমেইল করলাম। এখন বাসাবন্দি হয়ে আছি।

গত একবছর হল এসবই চলছে। এইরকম নিপীড়ন, অনিপরাপত্তা কোথায় হয়?”

ত‌বে এসব বিষ‌যে কথা বল‌তে অধ্যাপক অধ্যাপক মো. মাইদুল ইসলামের ফো‌নে বেশ ক‌য়েকবার কল দি‌লেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এইচআর