আসেননি নূর-নন্দী, ভিসির দেখাও মেলেনি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ | ১২ বৈশাখ ১৪২৬

আসেননি নূর-নন্দী, ভিসির দেখাও মেলেনি

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৬:০৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৮, ২০১৯

আসেননি নূর-নন্দী, ভিসির দেখাও মেলেনি

ডাকসুর পুনর্নির্বাচন দাবিতে পূর্বঘোষিত অবস্থান কর্মসূচির প্রথম দিনটি হতাশায় কেটেছে আন্দোলনকারীদের।

দীর্ঘ ৫ ঘণ্টা কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করলেও দেখা মেলেনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কিংবা কর্তা ব্যক্তিদের।

শুধু তাই নয়, এই আন্দোলনে শেষ পর্যন্ত আসতে পারেননি নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নূর ও পরাজিত প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্যজোটের ভিপি প্রার্থী লিটন নন্দী।

ফলে সোমবার বিকেল ৫টার দিকে হতাশা নিয়েই ভিসি কার্যালয়ের সামনের অবস্থান কর্মসূচি সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

এর আগে দুপুর ১২টা থেকে ভিসির কার্যালয়ের মূল ফটকে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন ডাকসু নির্বাচন বর্জনকারী ৫ প্যানেলের নেতাকর্মীরা।

বিকেল ৫টায় একাডেমিক কর্মঘণ্টা শেষ হয়ে যাওয়ায় কর্মসূচি সমাপ্তি ঘোষণা করেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা রাশেদ খান ও স্বতন্ত্র জোটের পরাজিত ভিপি প্রার্থী অরণী সেমন্তী খান।

রাশেদ খান বলেন, ‘পুনর্নির্বাচনের দাবিতে আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি। দীর্ঘ ৫ ঘণ্টা ভিসি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করেছি। অথচ প্রশাসনের কেউ এ বিষয়ে মুখ খুলছে না। তারা নৈতিকভাবে দুর্বল, কথা বলার সাহস নাই। তারা কথা না বলায় আমরা হতাশ। তাদের থেকে এমনটি প্রত্যাশা করিনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোনো শিক্ষক আসেননি, প্রক্টর আসেননি, ভিসি স্যারও আসেননি। এমতাবস্থায় আমরা ৫টি প্যানেল বসে পরবর্তী কর্মসূচির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে জানিয়ে দেব।’

এ সময় অরণী সেমন্তী খান বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের আচরণে আমরা হতাশ। নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করার মতো সাহসও শিক্ষকদের নাই! কেন আপনারা লুকিয়ে আছেন? ভোটের নামে কি অপরাধ করেছেন যে, সামনে আসতে ভয় পাচ্ছেন?’

তিনি বলেন, ‘আজ প্রশাসন সাড়া দেয়নি। একাডেমিক কর্মঘণ্টা বিকেল ৫টায় শেষ। এজন্য আজকের মতো অবস্থান কর্মসূচি সমাপ্তি ঘোষণা করছি। সবাই বসে পরবর্তী কর্মসূচি দেয়া হবে।’

দীর্ঘ ২৮ বছর পর গত ১১ মার্চ ডাকসুর নির্বাচন হয়। ভোট শুরুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ব্যাপক কারচুপির দাবি করে শুধুমাত্র ছাত্রলীগ ছাড়া সব প্যানেলের প্রার্থীরা এই নির্বাচন বর্জন করেন।

পরে ঘোষিত ফলাফলে দেখা গেছে, ভিপি পদে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নূর এবং জিএস পদে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বিজয়ী হয়েছেন।

এরপর থেকে ফলাফল প্রত্যাখ্যান করে ছাত্রলীগ ছাড়া সবাই পুনর্নির্বাচন চেয়ে ক্যাম্পাসে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছেন। এরই অংশ হিসেবে সোমবার ভিসি কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন আন্দোলনকারীরা। তবে, এই আন্দোলনের সামনের সারির নেতা লিটন নন্দী ও নুরুল হক নূর যোগ দেননি।

লিটন নন্দী পরিবর্তন ডটকমকে জানিয়েছেন, তার মা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় হাসপাতালে নিতে হয়েছে। সেখানকার কাজ শেষ করে আন্দোলনে যোগ দিবেন। যদিও বিকেল ৫টা পর্যন্ত তিনি ক্যাম্পাসে যাননি।

ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নূরও অসুস্থতার কারণে আন্দোলনে অংশ নেননি বলে তার কর্মীরা জানিয়েছেন। তবে, এ বিষয়ে যোগাযোগ করেও নূরের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

পিএসএস/আইএম

আরও পড়ুন...
লিটন নন্দীও ‘অসুস্থ’, কর্মসূচিতে অনুপস্থিত
ডাকসুর পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনড় নূর (ভিডিও)
স্লোগানে মুখরিত ৫ প্যানেলের মিছিল, নেই নূর (ভিডিও)
আন্দোলনে কেন নেই, জানালেন লিটন নন্দী