চাকসু নির্বাচন দেয়ার দাবি তথ্যমন্ত্রীর

ঢাকা, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯ | ৯ চৈত্র ১৪২৫

চাকসু নির্বাচন দেয়ার দাবি তথ্যমন্ত্রীর

চবি প্রতিনিধি ৯:৪৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০১৯

চাকসু নির্বাচন দেয়ার দাবি তথ্যমন্ত্রীর

দ্রুত সময়ের মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ (চাকসু) নির্বাচন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় রাসায়ন বিভাগের সাবেক ছাত্র ও তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের দুই দিনব্যাপী ৫০ বছর পূর্তি (সুবর্ণ জয়ন্তী) উদযাপন অনুষ্ঠানে তিনি এ দাবি জানান।

চবি শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাসান মাহমুদ বলেন, ডাকসু নির্বাচনে কিছু ভুল ত্রুটি ছিল যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বর্তমানে তদন্ত করছে। কয়েকটি হলে সমস্যা হলেও সার্বিক নিবার্চন সুষ্ঠু হয়েছে, না হলে যারা নির্বাচন বাতিলের দাবি জানিয়েছিল তারা নির্বাচনে পাস করতে পারতো না। তবে সবচেয়ে বড় কথা দীর্ঘ ২৮ বছরপর যে ডাকসু নিবার্চন অনুষ্ঠিত হয়েছে সেটাই সবচেয়ে ইতিবাচক দিক। আমি আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (চাকসু) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ আরো বলেন, কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের কত জন ছাত্র তার ওপর নয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা কতগুলো ও প্রকাশনা কেমন হচ্ছে পাঠদানের পদ্ধতির ওপর নির্ভর করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর র‌্যাঙ্কিং নির্ধারণ করা হয়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের র‌্যাঙ্কিংও ভালো। এটিকে আরো অনন্য উচ্চাতায় নিয়ে যেতে হলে গবেষণার উপর জোর দিতে হবে। সরকাররের কাছে গবেষণার কাজের জন্য আরো বেশি বরাদ্দ চাওয়া উচিত।

তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে শিক্ষা-গবেষণার একটি পরিপূর্ণ বিদ্যাপীঠ। শিক্ষা গ্রহণের পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থীকে দেশাত্মবোধ, মমত্ববোধ ও মূল্যবোধ অর্জন করে পরিপূর্ণ আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে হবে। কারণ আমরা শুধুমাত্র উন্নত রাষ্ট্রের পাশাপশি উন্নত জাতি গঠন করতে চাই।

হাসান মাহমুদ আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে স্বপ্নের বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন তা বিনির্মাণ করতে চাইলে স্বপ্নের মানুষ হতে হবে। মাত্র সাড়ে তিন বছরের মধ্যে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে তাঁর স্বপ্নকে হত্যা করা হয়েছিল। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে এদেশ অনেক আগেই উন্নত-সমৃদ্ধ দেশের কাতারে পৌঁছে যেত। তবে তাঁর স্বপ্ন বাস্তাবায়নে আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  যুগোপযোগী বিভিন্ন কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের ফলে বাংলাদেশ এখন উন্নয়ন-অগ্রগতির বিভিন্ন সূচকে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে অনেক এগিয়ে গেছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি পিকেএসএফ’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সাবেক মুখ্য সচিব মো. আবদুল করিম বলেন, তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে বাংলাদেশ পৃথিবীর অন্যান্য দেশকে এখন উন্নয়নের স্তবক দিচ্ছে। বর্তমানে উন্নয়নের সকল সূচেকে এগিয়ে আছে।

এর আগে বিজ্ঞান অনুষদ প্রাঙ্গণে বেলুন-ফেস্টুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে এবং প্রধান অতিথিকে নিয়ে কেক কেটে এ বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন চবি উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।

এতে আরো বক্তব্য দেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীন আখতার ও অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সফিউল আলম প্রমুখ।

এইচআর