পাওনা টাকা চাওয়ায় ডাইনিংয়ের খাবার নষ্ট করলেন শাবি শিক্ষার্থী!

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ আগস্ট ২০১৮ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৫

পাওনা টাকা চাওয়ায় ডাইনিংয়ের খাবার নষ্ট করলেন শাবি শিক্ষার্থী!

শাবি প্রতিনিধি ১:৫৫ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৮

print
পাওনা টাকা চাওয়ায় ডাইনিংয়ের খাবার নষ্ট করলেন শাবি শিক্ষার্থী!

পাওনা টাকা চাওয়ায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহপরাণ হলের ডাইনিংয়ের দুপুরের খাবার নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। ওই শিক্ষার্থীর নাম শিহাব শাহরিয়ার রাহাত। তিনি ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স বিভাগের ২০১২-১৩ সেশনের শিক্ষার্থী। 

সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে শাহপরাণ হলের ডাইনিংয়ে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শাহপরাণ হলের প্রধান বাবুর্চি অনিল চন্দ্র দাস হল প্রশাসন বরাবর একটি লিখিত অভিযোগপত্র দেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হল সূত্রে জানা যায়, দুপুর দেড়টার দিকে রাহাত ডাইনিংয়ে খাবার খেতে গেলে বাবুর্চি অনিল চন্দ্র দাস তার কাছে পাওনা টাকা চান। এ সময় রাহাত তাকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। এক পর্যায়ে তিনি আরো উত্তেজিত হয়ে বাবুর্চি অনিলের দিকে প্লেট ছুড়ে মারেন। এ সময় প্লেটের খাবার তার সামনে থাকা প্রায় ১০০টি বাটির মধ্যে পড়লে সবগুলোই নষ্ট হয়ে যায়।

অনিল চন্দ্র দাস পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘তার কাছ থেকে খাবারের ৭৫০ টাকা পাই। আজকে দুপুরে তিনি ডাইনিংয়ে খেতে এলে ওই টাকা চাওয়ায় আমাকে গালিগালাজ করে এবং চোখ তুলে নেয়ার হুমকি দেন। এ সময় তিনি আমার দিকে তার খাবারের প্লেট ছুড়ে মেরে ১০০টি খাবারের বাটি নষ্ট করেন। এতে আমার প্রায় আড়াই হাজার টাকার মতো ক্ষতি হয়েছে।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষার্থী রাহাত পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘আমি কারো কাছ থেকে বাকি খাই না। উনি আমার কাছ থেকে ৭৫০ টাকা নয়, ১১০-১২০ টাকার মতো পান। তাকে আমি কোনো ধরনের গালিগালাজ করিনি। আমি প্লেট তার দিকে ছুড়েও মারিনি।’

হল প্রভোস্ট মো. শাহদুলে হোসাইন বলেন, ‘এ বিষয়ে আমরা কোনো অভিযোগপত্র পায়নি।’

উল্লেখ্য, গত বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি শহীদ মিনারে ব্যবসায় বিভাগের ২০০৬-০৭ সেশনের এক শিক্ষার্থী ঘুরতে এলে তাকেও মারধর করেন এই রাহাত। 

এমএ/আরপি

 

 
.


আলোচিত সংবাদ