‘মেসি সুপারে’ বার্সেলোনাকে স্নায়ুযুদ্ধ জেতালেন মেসি

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘মেসি সুপারে’ বার্সেলোনাকে স্নায়ুযুদ্ধ জেতালেন মেসি

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:২৫ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ০২, ২০১৯

‘মেসি সুপারে’ বার্সেলোনাকে স্নায়ুযুদ্ধ জেতালেন মেসি

ম্যাচ শুরুর আগে সবটুকু আলো-কৌতুহলই ছিল আতোইন গ্রিজমানকে নিয়ে। নিজের সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে ফরাসি তারকা কেমন করেন, কৌতুহল ছিল তা নিয়েই। অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের কিন্তু ম্যাচ শেষে সবটুকু আলোই কেড়ে নিলেন লিওনেল মেসি। শেষ মুহূর্তে সুপার এক গোল করে মেসিই যে বার্সেলোনাকে এনে দিয়েছেন জয়। গতকাল রাতে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে স্নায়ুযুদ্ধে বার্সেলোনা জিতেছে ১-০ গোলে।

যে জয়ে রিয়াল মাদ্রিদকে টপকে আবার পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে গেছে বার্সেলোনা। পয়েন্ট দুই দলেরই সমান। ১৪ ম্যাচে সমান ৩১ করে। বার্সেলোনা শীর্ষে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায়। আর কালকের এই হারে ১৪ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ৬ নম্বরে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ।

আজ সোমবার রাতেই ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে বসতে যাচ্ছে ব্যালন ডি’অর প্রদান অনুষ্ঠান। এরই মধ্যে গণমাধ্যমে সংবাদ ছড়িয়ে পড়েছে, রেকর্ড ষষ্ঠ বারের মতো মর্যাদার ব্যালন ডি’অরটা এবার জিততে যাচ্ছেন মেসিই। তার আগে দলকে জিতিয়ে প্যারিস যাত্রাটা আনন্দঘনই করলেন মেসি।

সাম্প্রতিক সময়ে বার্সা-অ্যাতলেতিকোর ফুটবল দ্বৈরথ মানেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। কেহ কারে নাহি ছাড়ে সমানে সমান। কালও তার ব্যত্যয় ঘটেনি। দুই দলের স্নায়ুক্ষয়ী ফুটবল যুদ্ধ ৮৭ মিনিট পর্যন্তও গোলশূন্য ছিল। মনে হচ্ছিল, ড্র এঁকেই শেষ হচ্ছে দুই জায়ান্টের দ্বৈরথ। ঠিক তখনই মেসির জাদু।

ডিফেন্ডার সের্গি রবার্তো বল নিয়ে অনেকটা দৌড়ে অ্যাতলেতিকোর বক্সের কাছে গিয়ে পাশ বাড়ান মেসিকে। পাশ ধরে লুইস সুয়ারেজের সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে বক্সের ভেতর থেকে মেসির আচমকা শট। তার বুলেট গতির নিচু শটটি অ্যাতলেতিকোর গোলরক্ষক ইয়ান অবল্যাকের ডান পাশ দিয়ে জড়িয়ে যায় জালে।

ক্যারিয়ারে এমন গোল অসংখ্য করেছেন মেসি। ফলে এই গোলটার বিশেষণই হয়ে গেছে ‘মেসি সুপার’। যাকে ফুটবলীয় ভাষায় বলে ‘গোল্ডেন স্ট্রাইক’।

গত বুধবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে বার্সেলোনা আক্রমণ ত্রয়ী এমএসজি’র তিন সদস্যই গোল করেছিলেন। কালও তাই এমএসজি ত্রয়ীকে শুরুর একাদশেই নামিয়ে দেন বার্সেলোনার কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে। কিন্তু অ্যাতলেতিকোর আটসাট রক্ষণের সামনে মেসি, সুয়ারেজ, গ্রিজমানরা তেমন সুবিধা করতে পারেননি। ম্যাচের প্রথমার্ধে বরং স্বাগতিক অ্যাতলেতিকোই দাপট দেখিয়েছে।

গোলের একাধিক সহজ সুযোগও পেয়েছে অ্যাতলেতিকো। কিন্তু প্রতিবারই তাদের হতাশ করেছেন বার্সেলোনার জার্মান গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে তের স্টেগান। বেশ কয়েকটি অবিশ্বাস্য সেভ করে দলকে রক্ষা করেন তিনি। তবে তের স্টেগানের সুবাদে গোল হজম না করলেও বার্সেলোনা নিজেরাও গোল করতে পারছিল না। অবশেষে শেষ মুহূর্তে মেসি সেই আফসোস দূর করেছেন নিজের ‘ট্রেডমার্ক’ গোল করে।

তবে দুর্দান্ত গোল করে দলকে জেতালেও ম্যাচের আসল নায়ক কিন্তু তিনি নন। অসাধারণ সব সেভ করে আসল বার্সা গোলরক্ষক তের স্টেগান। সতী্র্থ মেসিকে হতাশ করে ম্যাচ সেরার পুরস্কারটি নিজের পকেটে পুড়েছেন তিনিই।

কেআর/জেডএস

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও