মুখ বন্ধ রাখুন, ব্রাজিল কোচকে মেসির হুমকি!

ঢাকা, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

মুখ বন্ধ রাখুন, ব্রাজিল কোচকে মেসির হুমকি!

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৫০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

মুখ বন্ধ রাখুন, ব্রাজিল কোচকে মেসির হুমকি!

৩ মাসের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফিরেই কাল ‘মেসিময়’ এক ম্যাচ উপহার দিলেন লিওনেল মেসি। গতকাল শুক্রবার সৌদি আরবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার প্রীতি ম্যাচটি সত্যিকার অর্থেই হয়ে থাকল মেসিময়। যে ম্যাচে মেসি নায়ক, মেসি খলনায়ক এবং একই সঙ্গে প্রতিপক্ষ কোচকে হুমকিদাতাও!

রিয়াদের কিং সউদ ইউনিভার্সিটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে মেসি একটা পেনাল্টি মিস করেছেন। সেটা ম্যাচের ১১ মিনিটে। তখন নিশ্চিতভাবেই মেসি খলনায়ক। এর ঠিক ৩ মিনিট পরই বনে যান নায়ক। ম্যাচের ১৪ মিনিটে দুর্দান্ত এক গোল করে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দেন মেসি। শেষ পর্যন্ত তার সেই গোলটিই ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে পাইয়ে দিয়েছে ১-০ গোলের জয়।

ম্যাচটি মেসিময় হয়ে থাকতে এই দুটি ঘটনাই যথেষ্ট ছিল। কিন্তু মেসির কাছে যথেষ্ট মনে হয়নি। পরে তাই জন্ম দিয়েছেন আরও এক ঘটনার। সাইডলাইনের কাছে দাঁড়িয়ে তিনি প্রতিপক্ষ ব্রাজিল কোচকে দিয়েছেন ‘মুখ বন্ধ রাখার’ হুমকি! জন্ম দিয়েছেন আলোচনা-বিতর্কের।

ম্যাচের মাঝপথে ব্রাজিলের এক খেলোয়াড়কে ট্যাকল করে মাটিতে ফেলে দেন মেসি। রেফারি ফাউলের বাঁশিও বাজান মেসির বিপক্ষে। কিন্তু শুধু ফাউল দেওয়ায় সন্তুষ্ট ছিলেন না ব্রাজিল কোচ তিতে। তিনি ডাগ আউটে সামনের দিকে এগিয়ে এসে তীব্র কণ্ঠে মেসিকে হলুদকার্ড দেখানোর দাবি জানান।

হলুদকার্ড দিতে রেফারিকে প্ররোচিত করতে প্রতিপক্ষ কোচের এই আচরণ-মনোভাব একদমই পছন্দ হয়নি মেসির। তিনি তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠে ব্রাজিল কোচকে মুখ বন্ধ রাখার হুমকি দেন! তাও একবার নয়, দুবার। প্রথমে নিজের মুখে আঙুল দিয়ে প্রতীকি ভাষায় ‘শাট-আপ’ হুমকি দেন!

তারপরও ব্রাজিল কোচ চুপ না হওয়ায় আরও তেতে যান মেসি। ডাগ আউটে দাঁড়ানো তিতের ঠিক পাশেই বল থ্রু করতে যাওয়া মেসি এবার নিজের বা-হাত প্রসারিত করে হুমকি দেন ব্রাজিল কোচকে! তিতেও গরম চোখেই মেসির সেই হুমকি গিলেছেন।

হলুদকার্ড দিতে রেফারিকে প্ররোচিত করা, ব্রাজিল কোচের বিরুদ্ধে মেসির চটে যাওয়ার প্রত্যক্ষ কারণ এটাই। তবে ক্ষোভের তীব্রতাটা বেশি হওয়ার পেছনে পরোক্ষ একটা কারণও আছে। মানে মেসির ক্ষোভটা বাড়িয়ে দিয়েছে অতীতের একটা ঘটনাও।

গত জুলাইয়ে কোপা আমেরিকার সেমি ফাইনালে তিতের ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরেই শিরোপা স্বপ্ন ভেস্তে যায় মেসির আর্জেন্টিনার। ম্যাচ শেষে মেসি ক্ষোভ-দুঃখ-হতাশায় রেফারি এবং কনমেবলের (দক্ষিণ আমেরিকান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন) কড়া সমালোচনা করেন। এমনকি মেসি এই অভিযোগও করেন, কনমেবল অন্যায়ভাবে ব্রাজিলকে শিরোপা জেতানোর মিশনে নেমেছেন। স্বাভাবিকভাবেই মেসির এই মন্তব্য ব্রাজিলিয়ানদের ফুটবল অহমে আঘাত করে। তবে ব্রাজিলিয়ানরা মেসিকে তার বাঁকা কথার জবাবটা দেন কোপার শিরোপা জয়ের পর।

খেলোয়াড়দের পাশাপাশি মেসির বিরুদ্ধে মুখ খুলেন ব্রাজিল কোচ তিতেও। পাল্টা আঘাত হেনে তিনি সরাসরিই বলেন, মেসিকে অবশ্যই হার মেনে নেওয়ার শিক্ষা নিতে হবে। নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে অন্যের সাফল্যে কালি ছিটানো খেলোয়াড়ী চেতনার সঙ্গে যায় না।

কোপার সেই ঘটনার জের ধরেই ৩ মাসের জন্য নিষিদ্ধ হন মেসি। আর নিষিদ্ধ থাকা অবস্থায় ব্রাজিল কোচকে জবাব ফিরিয়ে দেওয়ার ফুসরত তিনি পাননি। তবে জবাব দেওয়ার জন্য আর্জেন্টাইন সুপারস্টার যে মনে মনে ফুসছিলেন, কাল দুই দলের প্রথম দেখায় মাঠেই সেটা প্রমাণিত।

এখন দেখার বিষয়, ব্রাজিল কোচ তিতে মেসিকে পাল্টা জবাবটা কিভাবে দেন!

কেআর

 

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও