১০-১৪, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে ৫ মিনিটের নাটক

ঢাকা, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

১০-১৪, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে ৫ মিনিটের নাটক

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:৫৯ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

১০-১৪, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে ৫ মিনিটের নাটক

দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ফুটবল দ্বৈরথে নাটক হবে না, তা কি হয়! হয় না বলেই কালও নাটক হলো। আর সৌদি আরবের রিয়াদের কিং সউদ ইউনিভার্সিটি স্টেডিয়ামে যা হলো, সেটা নাটক না বলে মহানাটকই বলা যায়!

৫ মিনিটের ব্যবধানে দু-দুটি পেনাল্টি মিস এবং একটি গোল, মহানাটকই তো! ম্যাচে স্নায়ুক্ষয়ী পেনাল্টি মিস হতাশা আর গোল-আনন্দের নাটকটা মঞ্চস্থ হয়েছে ১০ থেকে ১৪ মিনিটের মধ্যে। মজার বিষয় হলো, ম্যাচে পেনাল্টি মিসের হতাশায় পুড়েছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা, দুই দলই।

নেইমারবিহীন ম্যাচে শুরুটা করেছিল অবিশ্বাস্য গতিতে। ম্যাচের প্রথম ৫ মিনিট প্রতিপক্ষ আর্জেন্টাইনদের বল ধরতেই দেননি ব্রাজিলিয়ানরা! দুর্দান্ত শুরুর ফল হিসেবে ম্যাচে প্রথম গোলের সুযোগও পায় ব্রাজিল। ম্যাচের ১০ মিনিটেই পেনাল্টি পায় সেলেসাওরা। বল নিয়ে গ্যাব্রিয়েল জেসুস আর্জেনিনটনার বক্সের ভেতর ঢুকে পড়লে তাকে বিধি বর্হিভূতভাবে ফাউল করেন আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার হুয়ান ফয়থ।

সঙ্গে সঙ্গেই পেনাল্টির বাজি বাজান রেফারি। কিন্তু জেসুস নিজের আদায় করা পেনাল্টিটা কাজে লাগাতে পারেননি। গোল করা দূরের কথা, ম্যানচেস্টার সিটির ফরোয়ার্ড শট আর্জেন্টিনার পোস্টেই রাখতে পারেননি। তার আনাড়ি-মার্কা শট চলে যায় গোলপোস্টের বাইরে দিয়ে।

ব্রাজিলিয়ানদের এই ‘পেনাল্টি মিস’ হতাশার পরের মিনিটেই ‘পেনাল্টি মিস’ হতাশায় পুড়ে আর্জেন্টিনা। আলবিসেলেস্তিদের এই হতাশা উপহার দেন স্বয়ং মেসি। জেসুসের পেনাল্টি মিসের সুযোগ কাজে লাগিয়ে দ্রুতই আক্রমণে যায় আর্জেন্টিনা। গোলের দারুণও সুযোগও চলে আসে। বল নিয়ে আগুয়ান আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার লিয়ান্দ্রো প্যারাদেসকে কড়া ট্যাকলে ফেলে ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার অ্যালেক্স সান্দ্রো। এবারও রেফারি কাল-বিলম্ব না করে বাজান পেনাল্টির বাঁশি।

ফলও একই। জেসুসের মতো মেসিও দলকে পেনাল্টি মিসের হতাশায় পুড়িয়েছেন। তবে জেসুসের মতো তিনি বাইরে মারেননি। তার শটটি বরং ডানদিকে ঝাপিয়ে পড়ে দুর্দান্ত দক্ষতায় রুখে দিয়েছেন ব্রাজিল গোলরক্ষক আলিসন বেকার। লিভারপুলের গোলরক্ষক প্রমাণ করেছেন, কেন তিনি বিশ্বসেরা।

দুই মিনিটে দুই পেনাল্টি মিসের এই নাটকের রেশ তখনো কাটেনি। ঠিক তখনই গোল রোমাঞ্চে নেচে উঠে কিং সউদ ইউনিভার্সিটি স্টেডিয়ামে একাংশ। বাঁ-পায়ের দুর্দান্ত এক শটে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দেন ৩ মাসের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফেরা মেসি।

মেসির এই গোলের মধ্যদিয়েই সমাপ্ত হয় ম্যাচের মহানাটকের। ম্যাচের বাকি সময়ে দুই দলই গোলের চেষ্টা করেছে। সুযোগও পেয়েছে। তবে বিশেষভাবে উল্লেখ করার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি। সৌদি আরবের মাটির প্রীতি ম্যাচটিতে মেসির একমাত্র গোলটিই আর্জেন্টিনাকে পাইয়ে দিয়েছে ১-০ গোলের জয়।

ব্রাজিলের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার এটা ৪০তম জয়। অবশ্য এই হারের পরও দুই দলের মুখোমুখি সাক্ষাতে জয়ের পাল্লা ব্রাজিলেরই ভারি। সব মিলে ১১২ বারের সাক্ষাতে ৪৬টিতে জিতেছে তারা।

উল্লেখ্য, জাতীয় দলের হয়ে এটা মেসির ৬৯তম গোল।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও