রোনালদো-দিবালা-হিগুয়েইনরা দেখলেন ডি লিঁখতকে

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

রোনালদো-দিবালা-হিগুয়েইনরা দেখলেন ডি লিঁখতকে

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:০৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৩, ২০১৯

রোনালদো-দিবালা-হিগুয়েইনরা দেখলেন ডি লিঁখতকে

সাম্প্রতিক সময়ে তুরিন ডার্বি অনেকটাই পানসে হয়ে গেছে। সেটি জুভেন্টাস অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠায়। অপ্রতিরোধ্য জুভেন্টাসকে আগের মতো টেক্কা দেওয়ার সামর্থ এখন তুরিনোর নেই। তবে খর্ব শক্তি নিয়েও কাল তুরিন ডার্বিটা দারুণ জমিয়ে তুলেছিল তুরিনো। ম্যাচের শেষ পর্যন্ত হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেছে তুরিনো। তবে শেষ পর্যন্ত তুরিন ডার্বি জিতেছে জুভেন্টাসই। কিন্তু ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, পাওলো দিবালা, গঞ্জলো হিগুয়েইনরা নন। কাল জুভেন্টাসকে ডার্বি জিতিয়েছেন ডিফেন্ডার মাথিয়াস ডি লিঁখত।

এই ডাচ তরুণ বিশ্ববাসীকে নিজেকে চিনিয়েছেন গত মৌসুমেই। ডাচ ক্লাব আয়াক্সের হয়ে গত মৌসুমটি তিনি কাটিয়েছেন অবিশ্বাস্য। সেই সুবাদেই গ্রীষ্মের দলবদলের সময় ২০ বছর বয়সী তরুণকে নিয়ে কাড়াকাড়ি পড়ে গিয়েছিল। রিয়াল মাদ্রিদসহ বিশ্বের অনেক নামীদামী ক্লাবই পিছু নিয়েছিল তার। শেষ পর্যন্ত সেই টানাটানির প্রতিযোগিতায় জয়ী হয় জুভেন্টাস।

জুভেন্টাসে যোগ দিয়েও নিজেকে দ্রুতই মানিয়ে নিয়েছেন। নিজের রক্ষণ সামলানোর কাজটা করে যাচ্ছেন অত্যন্ত বিশ্বস্ততার সঙ্গে। রক্ষণ সামলানোর পাশাপাশি ডিফেন্ডার ডি লিঁখত বনে গেছেন সত্যিকারের নায়ক। দলের তিন গোল মেশিন রোনালদো, দিবালা, হিগুয়েইনকে ছায়া বানিয়ে দলকে জিতিয়েছেন তিনিই।

ম্যাচের একমাত্র গোলটি যে তিনেই করেছেন। জুভেন্টাস কোচ মরিসিও সারি প্রথমে আক্রমণ সাজিয়েছিলেন রোনালদো ও দিবালাকে দিয়ে। কিন্তু প্রথমার্ধেই দিবালাকে তুলে নিয়ে তার স্বদেশি হিগুয়েইনকে মাঠে নামান জুভেন্টাস। কিন্তু হিগুয়েইন নেমেও গোল করতে পারেনি। দলকে জয়ের পথ দেখাতে পারেননি রোনালদোও। তবে কী তুরিন ডার্বিটা এবার ড্র’র মুখই দেখবে?

এমন সংশয় যখন ক্রমেই জোরালো হচ্ছে, ঠিক তখনই বাজিমাত করেন ডি লিঁখত। হিগুয়েইনের পাশ থেকে মাঝ বক্সে দাঁড়িয়ে ডান পায়ের জোরালো শটে বল তুরিনোর জালে জড়িয়ে দেন তিনি। জুভেন্টাসের জার্সি গায়ে এটাই ডাচ তরুণের প্রথম গোল। আর তার প্রথম গোলটিই জুভেন্টাসকে এনে দিয়েছে মহামূল্যবান ৩টি পয়েন্ট।

ডি লিঁখত জাদুতে নিজেরা জয় পেয়েছে। সঙ্গে জুভেন্টাস কাল আনন্দের সংবাদ পেয়েছে আরও একটি। তাদের প্রধান শিরোপা প্রতিদ্বন্দ্বী ইন্টার মিলান হেরে গেছে পুঁচকে বোলোনার কাছে, ২-১ গোলে। তবে আরে প্রতিদ্বন্দ্বী এএস রোমা। তারা ২-১ গোলে হারিয়েছে নাপোলিকে।

এই হারের পরও অবশ্য পয়েন্ট তালিকার শীর্ষেই রয়েছে ইন্টারমিলান। ১১ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ২৮। এক ম্যাচ কম খেলে জুভেন্টাসের পয়েন্ট ২৬। ১১ ম্যাচে তিনে থাকা এএস রোমার পয়েন্ট ২২।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও