শীর্ষে থেকেও পিএসজির ‘বাজে শুরু’র রেকর্ড!

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

শীর্ষে থেকেও পিএসজির ‘বাজে শুরু’র রেকর্ড!

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:০৭ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ০২, ২০১৯

শীর্ষে থেকেও পিএসজির ‘বাজে শুরু’র রেকর্ড!

চোট থেকে ফিরেই অবিশ্বাস্য ফর্মে রয়েছেন কিলিয়ান এমবাপে। মাঠে নামলেই গোল করছেন। পিএসজির ফরাসি তারকা গোল পেয়েছেন গতকাল শুক্রবার রাতেও। তবে কাল আর দলকে জেতাতে পারেননি। গোলরক্ষক কেইলর নাভাস বরং পিএসজিকে ডুবিয়েছেন হারের লজ্জায়। পয়েন্ট তালিকার তলানির দল দিও’র কাছে ২-১ গোলে হেরে গেছে পিএসজি। যে হারে পিএসজিকে ডুবতে হয়েছে ৯ বছর আগের সেই লজ্জায়।

এটা ২০১৯ সালে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে পিএসজির ৮ অষ্টম হার। এই দশকে এক পঞ্জিকা বর্ষে লিগে এত বেশি ম্যাচ কখনোই হারেনি পিএসজি। ফ্রান্স চ্যাম্পিয়নরা সর্বশেষ এমন লজ্জা পেয়েছিল ২০১০ সালে। সেবার লিগে মোট ১৩ ম্যাচে হেরেছিল তারা। এবার অবশ্য ১০ মাসেই হারল ৮ ম্যাচে। সামনে আরও দুটো মাস পড়ে আছে।

এক বছরের ৮ হারের মধ্যে ৫টি হার ছিল গত মৌসুমে। মানে এ মৌসুমে আড়াই মাসের মধ্যে এটা তাদের তৃতীয় হার। মৌসুমের প্রথম ১২ ম্যাচের মধ্যে তৃতীয় হারের লজ্জাও পিএসজি পেল ৮ বছর পর। সর্বশেষ ২০১১ সালে মৌসুমের প্রথম ১২ ম্যাচের মধ্যে তৃতীয় হারের স্বাদ পেয়েছিল দলটি।

পুরোনো এই দুটি লজ্জার মৌসুমে পিএসজিকে পেতে হয়েছিল অন্য লজ্জাও। ২০০৯-১০ মৌসুমে লিগে হয়েছিল ১৩তম। ২০১০-১১ মৌসুমে চতুর্থ। এবার অবশ্য সেই ভীতি নেই। কারণ, মৌসুমে এরই মধ্যে তৃতীয় ম্যাচে হারলেও পিএসজি এখনো পয়েন্ট তালিকায় এককভাবে শীর্ষে। এবং সেটা বেশ স্পষ্ট ব্যবধানেই। দ্বিতীয় স্থানে থাকা নতের চেয়ে এখনো ৮ পয়েন্টে এগিয়ে পিএসজি। তবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন পিএসজি ম্যাচ খেলেছে নতের চেয়ে একটি বেশি। ১২ ম্যাচে পিএসজির পয়েন্ট ২৭, ১১ ম্যাচে নতের ১৯। মানে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থেকেও পিএসজিকে গড়তে হলো ৮ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বাজে শুরুর রেকর্ড!

লিগ, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিলিয়ে আগের দুই ম্যাচেই ৫ গোল করেছেন এমবাপে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ক্লাব ব্রুজের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করার পর লিগে অলিম্পিক মার্শেইয়ের বিপক্ষে করেন জোড়া গোল। অবিশ্বাস্য ফর্মে থাকা এমবাপে কালও ম্যাচের ১৯ মিনিটেই এগিয়ে দেন পিএসজিকে। দুর্দান্ত চিপে দলকে ১-০ গোলের লিড এনে দেন তিনি।

কিন্তু এমবাপের এনে দেওয়া এই লিড পিএসজিকে বিসর্জন দিতে হয়েছে গোলরক্ষক কেইলর নাভাসের অবিশ্বাস্য এক ভুলে। রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে প্যারিসে এসে গ্লাভস হাতে বেশ ভালো সময়ই কাটাচ্ছিলেন কোস্টা রিকান গোলরক্ষক। কিন্তু হঠাৎই যেন অদৃশ্য ভুত চেপে বসে তার মাথায়।

প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে তিনি করে বসেন অমার্জনীয় এক শিশুতোষ ভুল। নাভাসের সেই ভুলের ফায়দা তুলে ম্যাচে ফেরে স্বাগতিক দিও। দিওকে সমতায় ফেরান এম চোয়ার। গোল খেয়েই বিরতিতে যায় পিএসজি। বিরতির পর ফিরেই আবার পিএসজিকে হজম করতে হয় গোল। ম্যাচের ৪৭ মিনিটে দিওকে ২-১ গোলে এগিয়ে দেন জে কদিজ ফার্নান্দেজ। ম্যাচের বাকি সময়ে শত চেষ্টা করেও পিএসজি আর সমতায় ফিরতে পারেনি।

দিও শীর্ষে থাকা পিএসজির বিপক্ষে ম্যাচটা শুরু করেছিল পয়েন্ট তালিকার একেবারে নিচে থেকে। মানে ২০ নম্বরে থেকে। তবে কালকের এই অসাধারণ জয়টি তাদের তুলে এনেছে ১৮ নম্বরে। ১২ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট হলো তাদের।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও