ডি মারিয়া-ইকার্দি-এমবাপে আর লালকার্ডের ম্যাচ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ডি মারিয়া-ইকার্দি-এমবাপে আর লালকার্ডের ম্যাচ

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০১৯

ডি মারিয়া-ইকার্দি-এমবাপে আর লালকার্ডের ম্যাচ

চোট আবারও নেইমারকে ছিটকে ফেলেছে মাঠের বাইরে। তবে নেইমারকে হারালেও কিলিয়ান এমবাপেকে ফিরে পেয়েছে পিএসজি। ফ্রান্সের বিস্ময়বালক চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরেই জাদু দেখিয়েছেন। এমবাপের সঙ্গে তাল মিলিয়ে গতকাল শুক্রবার গোল-জাদু দেখিয়েছেন দুই আর্জেন্টাইন, অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া এবং মাউরো ইকার্দিও।

তিনজনের একসঙ্গে জ্বলে ওঠার ফল যা হওয়ার তাই হয়েছে। আন্তর্জাতিক বিরতির পর ক্লাব ফুটবলের গরম দ্বৈরথ শুরু হতেই বড় জয় পেয়েছে পিএসজি। নিসেকে তাদের মাঠে গিয়েই ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে তারকাখচিত পিএসজি।

ডি মারিয়া, এমবাপে আর ইকার্দি চাপেই শুধু চ্যাপ্টা হয়নি পুঁচকে নিসে। স্বাগতিক নিসেকে পিষতে সহায়তা করেছে রেফারির নির্দয় হাতও। এক ম্যাচেই নিসের দুই দুই জন খেলোয়াড়কে লালকার্ড দেখিয়েছেন রেফারি। যার ফল, শেষ দিকে নিসে পরিণত হয় ৯ জনের দলে!

তার আগেই অবশ্য জয়ের রাস্তাটা তৈরি করে নেয় পিএসজি। সেটি ডি মারিয়ার প্রদর্শনীতে। নেইমার, এমবাপে, কাভানি-আক্রমণভাগের এই প্রধান তিন অস্ত্রের চোটের কারণে সম্প্রতি পিএসজির বড় গোল ভরসা হয়ে উঠেছেন ডি মারিয়া। আর্জেন্টাইন তারকা ক্লাবকে ভরসা দিয়েও যাচ্ছেন।

কালও করেছেন জোড়া গোল। এবং ২টি গোল তিনি করেছেন ম্যাচের ২১ মিনিটের মধ্যেই। ম্যাচের ১৫ মিনিটে প্রথম পিএসজিকে এগিয়ে দেন ডি মারিয়া। স্বদেশি মাউরো ইকার্দির পাশ থেকে বাঁ-পায়ের জোরালো শটে বাজিমাত করেন ডি মারিয়া। এই গোলের রেশ না কাটতেই আবারও ডি মারিয়াকে ঘিরে গোল উৎসবে মাতে পিএসজির খেলোয়াড়েরা। থমাস মুনিয়েরের পাশ থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন তিনি।

৬৬ মিনিটে একটি গোল পরিশোধ করে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় নিসে। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্নে বাধ সাধেন রেফারি। ৭৪ ও ৭৭ মিনিটে নিসের দু-দুজন খেলোয়াড়কে লালকার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেন রেফারি। ম্যাচের বাকি সময়টুকু নিসেকে খেলতে হয়েছে ৯ জন নিয়ে।

দৈত্য পিএসজির সঙ্গে ৯ জন নিয়ে লড়াইয়ের ফল যা হওয়ার, সেটাই হয়েছে। ম্যাচের শেষ দিকে আরও ২ গোল করে বড় জয় নিয়েই নিসের মাঠ থেকে ফিরেছে পিএসজি। ম্যাচের শেষ গোল দুটো করেছেন এমবাপে ও ইকার্দি। ৮৮ মিনিটে ডান পায়ের বুলেট গতির শটে পিএসজিকে ৩-১ গোলে এগিয়ে দেন চোট থেকে ফেরা এমবাপে। ইনজুরি সময়েরর প্রথম মিনিটে এই এমবাপের পাশ থেকেই দলের চতুর্থ গোলটি করেছেন ইকার্দি।

মানে চোট কাটিয়ে ফিরেই এমবাপে নিজে একটা গোল করেছেন। সতীর্থকে দিয়ে আরেকটা করিয়েছেন। যা এমবাপেকে প্রত্যাবর্তন ম্যাচেই বানিয়েছে নায়ক। তবে কাল তার চেয়েও বড় নায়ক ছিলেন ম্যাচের শুরুর দিকেই জোড়া গোল করে দলের জয়ের পথে উন্মুক্ত করা ডি মারিয়া।

৩ মিনিটের ব্যবধানে নিসের দুই খেলোয়াড়কে লালকার্ড দেখিয়ে রেফারিও কম বড় নায়ক নন!

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও