আমি আমার ব্যাপারগুলো আমার মধ্যেই রাখি: মেসি

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

আমি আমার ব্যাপারগুলো আমার মধ্যেই রাখি: মেসি

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:২০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

আমি আমার ব্যাপারগুলো আমার মধ্যেই রাখি: মেসি

বয়স ৩২ হয়ে গেছে। দীর্ঘ দিন ধরে হাড়ভাঙা পরিশ্রমের পর এখন নিশ্চয় তার শরীরটা একটু আরাম চায়! রুটিন বাধা কাজে নিশ্চয় একটু অরুচি ধরে গেছে। মন চায় একটু আয়েশ করতে। তা হয়তো চায়। কিন্তু চাইলেও মন ও বয়সের সেই ডাকে সারা দেন না লিওনেল মেসি। বরং বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হাড়ভাঙা পরিশ্রমের কাজটা আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন। মেসি নিজেই বলছেন, আগের চেয়েও এখন নিজের শরীরের বেশি যত্ন নেন তিনি। আগের চেয়েও জিমে ঘাম ঝরান বেশি করে।

সেই ২০০১ সাল থেকে পেশাদার ফুটবলার হওয়ার যাত্রা শুরু। সেই থেকে গত ১৯ বছর ধরে রুটিন বেধে চলছে হাড়ভাঙা পরিশ্রম। নিয়ম করে ফুটবলের অনুশীলন, শরীর ফিট রাখার জন্য নিয়মিত জিমেন ঘাম ঝরানো, নিয়ম করে খাওয়া, বিশ্রাম। একজন পেশাদার ফুটবলারকে শরীর ফিট রাখতে কতটা কষ্ট করতে হয়, একজন ফুটবলারই তা জানেন। লিওনেল মেসির মতো বিশ্বসেরা খেলোয়াড়দের কষ্টটা আরও বেশি।

বিশ্বসেরার তকমা ধরে রাখতে তাদের ঘাম ঝরাতে হয় আরও বেশি। কিন্তু দীর্ঘ ১৯ বছর ধরে একই রুটিন বাঁধা কাজ করাটা কঠিনই। মনে অরুচি বাসা বাঁধাটা স্বাভাবিক। কিন্তু সেই স্বাভাবিক ঘটনা মেসির মতো অসাধারণদের ক্ষেত্রে ঘটতে পারে না! ঘটতে তারা দেন না। নিজেদের ‘অসাধারণ’ রাখতে স্বাভাবিকের বাইরে ‘অস্বাভাবিক’ কিছুই করেন তারা।

মেসিও তাই আগের চেয়ে পরিশ্রমের মাত্রাটা বাড়িয়ে দিয়েছেন। স্পেনের জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক মার্কাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজেই বলেছেন, ‘আগের চেয়েও শরীরের বেশি যত্ন নেই আমি। নিয়ম করে জিম-অনুশীলন করি।’

চোটের কারণে মৌসুমের প্রথম দুই মাস মাঠের বাইরে কাটাতে হয়েছে মেসিকে। তবে চোট কাটিয়ে ফিরেছেন বটে। কিন্তু নিজের সেরা ছন্দটা এখনো খুঁজে পাননি। মেসির আশা, শিগগিরই নিজের ছন্দটা ফিরে পাবেন। দ্রুতই ভক্তরা তাকে সেরা রূপে দেখতে পাবে।

দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে অনেক কিছু নিয়েই খোলামেলা কথা বলেছেন মেসি। আলোচনায় উঠে এসেছে তার চির প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, ‘শত্রু’ জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচদের প্রসঙ্গও। উঠে আসে নিন্দুকদের সমালোচনার বিষয়ও। সব বিষয়েই কৌশলী ব্যাটিং করেছেন মেসি।

জানু কূটনৈতিকের মতো এমনভাবে সব উত্তর দিয়েছেন, কাউকে কষ্ট দেননি। সমালোচনা করেননি, ‘আমি জানি আমি কে এবং আমি কী করতে পারি। দলকে কতটা দিতে পারি। তবে আমি আমার ব্যাপারটি আমার মধ্যেই রাখি। মানুষ তাদের কথা বলতেই পারে। তাদের অভিমত জানাতে পারে। কিন্তু আমি কখনোই নিজেকে নিয়ে কথা বলি না। সব সময় দল এবং সম্মিলিতভাবে দলের খেলোয়াড়দের কথাই বলি।’

এ কারণেই তো তিনি মেসি। অন্যদের চেয়ে আলাদা বিশ্বসেরা।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও