এতদিন পর সেই কারণ জানালেন মেসি

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

এতদিন পর সেই কারণ জানালেন মেসি

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:০০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ০৯, ২০১৯

এতদিন পর সেই কারণ জানালেন মেসি

অন্য খেলোয়াড়দের মতো হয়তো নয়। তবে লিওনেল মেসিকে ঘিরেও দলবদলের গুঞ্জন বেশ কয়েকবার উঠেছে। তার মধ্যে গুঞ্জনটা সবচেয়ে প্রবল ছিল ২০১৩-১৪ মৌসুমে। সেবার মেসি নিজেই বার্সেলোনা ছাড়তে চাইছিলেন।

গণমাধ্যমকে তিনি নিজেই ক্লাব ছাড়তে চাওয়ার ইচ্ছার কথা বলেছিলেন। তবে কেন তিনি বার্সেলোনা ছাড়তে চেয়েছিলেন, শত চেষ্টা করেও সত্যিকার কারণটা তখন উদঘাটন করতে পারেনি গণমাধ্যম।

অনেক দেরিতে হলেও কারণটা ঠিকই জানা গেল। এতদিন পর বিশ্ববাসীকে সত্যিকার কারণটা জানালেন মেসি নিজেই। বললেন স্প্যানিশ কর কর্তৃপক্ষের ওপর তিতিবিরক্ত হয়েই স্বপ্নের বার্সেলোনা ছাড়তে চেয়েছিলেন তিনি। জানালেন ক্লাব বার্সেলোনার সঙ্গে তার কোনো সমস্যাই ছিল না।

কর ফাঁকির অভিযোগেসস্পেনের কর কর্তৃপক্ষ তার এবং তার পরিবারের সদস্যদের জীবনযাত্রা অতিষ্ঠ করে তুলেছিল। তাইকর কর্তৃপক্ষের সেই ঝামেলার কারণেই বার্সা ছাড়ার পাকা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত স্বপ্নের বার্সা তিনি ছাড়তে পারেননি।

কর কর্তৃপক্ষের দাবিকৃত সব টাকা জরিমানা দিয়ে থেকে গেছেন বার্সেলোনাতেই। ক্লাব ছাড়ার ইচ্ছাকে বিসর্জন দিয়েছেন ভালোবাসার কাছে। ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোসহ স্প্যানিশ লা লিগায় খেলা অনেক তারকা খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধেই কর ফাঁকির অভিযোগ এনে আদালতে মামলা ঠুকে দিয়েছে স্পেনের কর কর্তৃপক্ষ।

অপমান-অসম্মানে, লজ্জায় অনেকেই ঝামেলা এড়াতে স্পেন থেকে পালিয়েছেন। পালাতে চেয়েছেন রোনালদো এবং মেসিও। কিন্তু তারা দুজনের কেউই পালাতে পারেননি। দাবিকৃত টাকা জরিমানা দিয়েই ঝামেলা থেকে রেহাই পেয়েছেন তারা।

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর তুলনায় মেসির জন্যেই কর ফাঁকির অভিযোগটা ছিল বেশি অসম্মানজনক। কারণ, মেসির সঙ্গে তার বাবার বিরুদ্ধেও কর ফাঁকির অভিযোগ আনে স্পেনের কর কর্তৃপক্ষ। যে অভিযোগে আয়কর বিভাগ বিশাল অঙ্কের টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা ঠুকে দেয় আদালতে।

বিষয়টি নিয়ে স্পেনের গণমাধ্যমে এত ব্যাপকভাবে লেখালেখি হয় যে, মেসি এবং বার পরিবারের জন্য বার্সেলোনায় বসবাস করাটাই দুরুহ হয়ে উঠেছিল। কদিন পরপরই আদালত পাড়ায় দৌড়াদৌড়ি এবং গণমাধ্যমে টানা লেখালেখিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন মেসি এবং তার পরিবার। পরিস্থিতিটা তাদের স্পেনে থাকার পক্ষে ছিল না। তাই বাধ্য হয়ে ছাড়তে চেয়েছিলেন বার্সেলোনা।

কাল স্পেনের রেডিও স্টেশন আরএসিওয়ানকে দীর্ঘ এক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন মেসি। সাক্ষাৎকারে নেইমারের দলবদল প্রসঙ্গ, উসমানে ডেম্বেলের লালকার্ড পাওয়া নিয়েও কথা বলেছেন তিনি। সেসব নিয়ে আলোচনার ফাঁকেই উঠে আসে ৫ বছরের আগে তার সেই ক্লাব ছাড়তে চাওয়ার বিষয়টি। জানতে চাওয়া হয় সত্যিকারের কারণ।

মেসি এবার কারণটা জানাতে কার্পণ্য করেননি, ‘সব মিলিয়ে তখন পরিস্থিতিটা এতটাই বাজে ছিল যে, ওই সময়টায় আমি অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলাম। বেশ কয়েকবারই এমনটা ঘটেছে। বিশেষ করে ২০১৩-১৪ মৌসুমে পরিস্থিতিটা মোটেই অনুকূলে ছিল না। যখন স্পেনের রাজস্ব বিভাগের সঙ্গে আমার ঝামেলা চলছিল।’

অসম্মানজনক বিষয় নিয়ে আদালতে দৌড়াদৌড়ি এবং গণমাধ্যমের ধারাবাহিক সমালোচনায় তার পরিবারের জন্য স্পেনে থাকাটা কঠিন হয়ে পড়েছিল জানিয়ে বলেছেন, ‘একটা ভালো দিক ছিল যে, আমার সন্তানেরা খুব ছোট ছিল। এবং তারা কিছু জানতে বা বুঝতে পারেনি। তবে আমাদের জন্য সময়টা খুবই বাজে ছিল। তাই আমি ওই সময়টায় ক্লাব ছাড়ার কথা ভাবছিলাম। এ কারণে নয় যে, আমি বার্সেলোনা ছাড়তে চাই। ক্লাব বার্সেলোনার সঙ্গে আমার কখনোই কোনো সমস্যা ছিল না। বার্সা ছাড়তে চাইছিলাম আসলে ওই সময়ের ঘটনার কারণে।’

কেআর/এইচআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও