সেই ৩ নারীর দ্বিতীয়জনকে খুঁজে পেলেন রোনালদো

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | ২ কার্তিক ১৪২৬

সেই ৩ নারীর দ্বিতীয়জনকে খুঁজে পেলেন রোনালদো

পরিবর্তন ডেস্ক ২:৫৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯

সেই ৩ নারীর দ্বিতীয়জনকে খুঁজে পেলেন রোনালদো

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর মনটা এখন নিশ্চয় খুব ফুরফুরে! ভালো তার থাকারই কথা। গতকাল রাতে তার দল জুভেন্টাসের ড্র’র বৃত্ত থেকে বেরিয়ে জয় পেয়েছে। হেল্লাস ভেরোনার বিপক্ষে জুভেন্টাসের ২-১ গোলের জয়ে রোনালদো নিজেও একটা গোল করেছেন। তার চেয়েও বড় খুশির খবর, হন্যে হয়ে খুঁজতে থাকা সেই ৩ নারীর দ্বিতীয়জনকে খুঁজে পেয়েছেন রোনালদো।

সেই ৩ নারীর দ্বিতীযজনের সন্ধ্যান এবার পেলেন রোনালদো, যারা ছোটবেলায় তাদের বিনা পয়সায় বার্গার খেতে দিত! মায়াবতী বোন হয়ে মেটাত ছোট্ট রোনালদোর পেটের ক্ষুধা! ঘটনা সত্যি। আজ তিনি কত টাকার মালিক, তা হয়তো রোনালদো নিজেও জানেন না।

তবে টাকা-পয়সার পাহাড়ের নিচে ডুবে থাকলেও ছোট্টবেলার সেই করুণ দিনগুলোর কথা ভুলেননি রোনালদো। ভুলেননি সেই ৩ দয়াবতী নারীকে। সম্প্রতি ‘আইটিভি’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ৩৪ বছর বয়সী রোনালদো নিজেই বলেছেন, ছোটবেলায় খাবারের আশায় রাতে ম্যাকডোনাল্ডসের পাশে বার্গারের দোকানের সামনের রাস্তায় বসে থাকতেন তারা।

তারা মানে, রোনালদো ও তার সঙ্গী কিশোররা ফুটবলাররা। বুভুক্ষ পেটে বসে থাকতেন আসলে বিক্রি না হওয়া বার্গার পাওয়ার আশায়। দোকানের ৩ নারী কর্মীও দয়াবতী বোন হয়ে তাদের বার্গার খেতে দিতেন। কিন্তু সময়ের স্রোতে সেই ৩ নারীকে হারিয়ে ফেলেন রোনালাদা। তারা কোথায় থাকেন, কি করেন, কিছুই জানেন না। কিন্তু জানতে খুব ইচ্ছে করে তার। তাই আইটিভির সাক্ষাৎকারে রোনালদো সেই ৩ নারীর সন্ধ্যান চান। আহ্বান জানান, যেখানেই থাকুক তারা যেন তার সঙ্গে যোগাযোগ করে। এমনকি রোনালদো আমন্ত্রণও জানান যে, সন্ধ্যান পেলে ওই ৩ নারীকে তুরিনে ডিনার করাবেন।

তার সাক্ষাৎকারের পরপরই সেই ৩ জনের একজনের সন্ধ্যান মেলে। পলা লেকা নামের সেই নারীর সন্ধ্যান দেয় পর্তুগিজ পত্রিকা ‘রেনাঁসেসাঁ’। এবার দ্বিতীয় জনের সন্ধ্যান দিল পর্তুগালেরই ক্রীড়া দৈনিক ‘রেকর্ড’। তার নাম এডনা কারিনা ইমানুয়েল কালদাস। ‘রেকর্ড’কে এডনা নিজেই নিজের পরিচয় দিয়েছেন। রোনালদো তাকে খুঁজছেন, এটা জেনে খুবই খুশি এডনা। শিহরিত মনে নিজেই তাই পত্রিকাটি অফিসে ছুটে যান রোনালদোর সঙ্গে যোগাযোগ করে দেওয়ার জন্য।

এত বড় হয়েও রোনালদো সেই তুচ্ছ ঘটনা এবং তাদের কথা এখনো মনে রেখেছেন, এটা জেনে সত্যিই খুব শিহরিত এডনা। ৩৬ বছর বয়সী এডনা শিহরিত মনেই বলেছেন, ‘খুব খুব খুশি লাগছে। এতেই বোঝা যায়, সে আসলে কতটা বিনয়ী। তার মনে রাখার মতো কেউ না আমি। এত বছর পরেও সে আমার কথা মনে রাখবে, এটা কখনো ভাবিনি আমি। এটা প্রমাণ করে সে কতটা ভালো মানুষ এবং জীবনের কত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বিষয় মনে রাখে সে। সত্যিই আমি খুব খুশি।’

২ বছরের ছোট রোনালদোর সঙ্গে তার খানিকটা বন্ধুত্ব হয়েছিল বলেও দাবি করেছেন এডনা। একবার নাকি রোনালদোর সঙ্গে কফিও খেতে গিয়েছিলেন।

এর আগে পলা লেকাও তাদেরকে এখনো মনে রাখার জন্য রোনালদোকে বিশেষ ধন্যবাদ জানিয়েছেন। সেই ছোটবেলার ঘটনার বর্ণনা দিয়ে পলা লেকা বলেছেন, ‘ওরা দোকানের কাউন্টারের সামনে ভিড় করত। অতিরিক্ত বার্গার আছে কিনা জানতে চাইত। আমরা ম্যানেজারের অনুমতি নিয়ে অবিক্রিত বার্গারগুলো ওদের দিতাম। ছেলেদের মধ্যে একজন ছিল রোনালদো। সবার মধ্যে ওই ছিল সবচেয়ে রোগাপটকা। প্রায় প্রতি রাতেই এমনটা ঘটত। বার্গার পেয়ে ওরা খুব খুশি হতো। খুব তৃপ্তির সঙ্গে খেত। ওদের খাওয়া দেখে খুব ভালো লাগত।’

সেই ভালো লাগার স্বাদটা পেতে চান রোনালদোও। তাই তো সেই ৩ নারীর সন্ধ্যান চেয়েছেন এবং ডিনারের আগাম আমন্ত্রণ জানিয়ে রেখেছেন। আর রোনালদোর স্বপ্নটা হয়তো পূরণই হতে চলেছে। এরই মধ্যে দুজনের খোঁজ পেয়ে গেলেন। রোনালদোর সন্ধ্যান চাই বার্তা যেভাবে ছড়িয়ে পড়েছে, বেচে থাকলে তৃতীয় জনের সন্ধ্যানও হয়তো শিগগিরই মিলবে।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও