মৃত বাবার ভিডিও দেখে কাঁদলেন রোনালদো (ভিডিও)

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

মৃত বাবার ভিডিও দেখে কাঁদলেন রোনালদো (ভিডিও)

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:২৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯

মৃত বাবার ভিডিও দেখে কাঁদলেন রোনালদো (ভিডিও)

বাবা-মায়ের স্মৃতির আবেগের কাছে পেশাদারিত্ব খাটে না। পেশাদারিত্বের চরম শিখরে পৌঁছানো ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোও পেশাদারির খোলস দিয়ে নিজের আবেগকে বাধ দিতে পারলেন না।

 

বিশ্বসেরা রোনালদো ভালো করেই জানতেন, সরাসরি সম্প্রচারিত টেলিভিশন ‘টক শো’তে কাঁদা ঠিক হবে না। কিন্তু সেটা জেনেও জুভেন্টাসের পর্তুগিজ সুপারস্টার কান্না লুকাতে পারেন নি। মৃত বাবার ভিডিও ফুটেজ দেখে ‘টক শো’তেই কাঁদলেন অঝোরে।

সম্প্রতি ব্রিটিশ টেলিভিশন তারকা পিয়ার্স মরগানের সঙ্গে এক টিভি ‘টক শো’তে অংশ নিয়েছিলেন রোনালদো। ‘টক শো’তে কথা বলার এক ফাঁকে রোনালদোর প্রয়াত বাবা হোসে দিনিস অ্যাভেইরোর ছোট্ট একটা ভিডিও দেখানো হয়। ভিডিওটি দেখে রোনালদো এতোটাই আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন যে অঝোরে কেঁদে ফেলেন। টিসু এবং দুই হাতে চেষ্টা করেও চোখের জল ঠেকাতে পারেন নি।

রোনালদোর বিশ্বসেরা রূপটা দেখে যেতে পারেননি বাবা হোসে দিনিস। ছেলের অবিশ্বাস্য সাফল্য, অর্জন, কীর্তিরও সাক্ষী হতে পারেন নি বাবা। রোনালদো বিশ্ব তারকা হয়ে ওঠার আগেই দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়েছেন হোসে দিনিস সেই ২০০৫ সালে। তবে ছেলেকে বিশ্বসেরা রূপে দেখে যেতে না পারলেও বিশ্বসেরার আগমন বার্তা শুনে গেছেন।

‘টক শো’তে দেখানো হোসে দিনিসের কয়েক মিনিটের ভিডিও ফুটেজটিও সেই আগমন বার্তা সম্পর্কেই। ২০০৪ সালের ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের আগে বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে ছেলে সম্পর্কে ছোট্ট একটা সাক্ষাৎকার দেন হোসে দিনিস। ছোট সেই সাক্ষাৎকারটিই দেখানো হয়েছে ফুটেজে।

ফুটেজটি ‘টক শো’র আয়োজকরা কোথা থেকে কীভাবে জোগাড় করেছে, তারাই ভালো বলতে পারবেন। তবে তখন তো নয়ই, এমনকি ওই ‘টক শো’র আগ পর্যন্তও রোনালদো তার বাবার ওই সাক্ষাৎকারের ফুটেজটি কখনো দেখেন নি। ২০০৪ ইউরোর আগেই ভবিষ্যতের বিশ্বতারকা হিসেবে নিজের আগমন বার্তা জানান দেন তরুণ রোনালদো। পর্তুগিজরা তখনই ধরে নেয়, ভবিষ্যতের ইউসেবিও, লুইস ফিগো হতে যাচ্ছেন রোনালদো।

হোসে দিনিস ছেলেকে নিয়ে নিজের গর্বের কথাই জানান সাক্ষাৎকারটিতে। বুঝিয়ে দেন ছেলের প্রতিভা, পারফরম্যান্সে কতটা মুগ্ধ তিনি। বাবার মৃত্যুর ১৪ বছর পর সেই সাক্ষাৎকারের ফুটেজ দেখে রোনালদো আবেগ ধরে রাখতে পারেন নি। কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘এই ভিডিও ফুটেজটা আমি কখনো দেখিনি। সত্যিই আমার কাছে অবিশ্বাস্য লাগছে।’

আবেগ ধরে রাখতে না পারা সম্পর্কে বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম সাক্ষাৎকারটি মজার হবে। অনেক হাসাহাসি হবে। এখানে এসে আমি কাঁদতে চাইনি। কিন্তু কী করব। আমি এই ভিডিওটি এর আগে কখনোই দেখিনি। এই ছবিগুলো আমাকে সংগ্রহ করতে হবে। জানি না, আপনারা ছবিগুলো কোথা থেকে খুঁজে পেয়েছেন।’

বাবার সঙ্গে সম্পর্কটা কেমন ছিল, সেটিও উঠে এসেছে রোনালদোর কথায়। বাবা হোসে দিনিস অনেক বেশি মদপান করতেন জানিয়ে রোনালদো বলেছেন, ‘আমি আসলে আমার বাবাকে শতভাগ বুঝতাম না। তিনি অনেক বেশি মদপান করতেন। তার সঙ্গে কখনোই আমার স্বাভাবিক কথা-বার্তা হয়নি। খুব কষ্ট লাগে, উনি আমার কিছুই দেখে যেতে পারেননি। আমার সাফল্য, আমার চার ছেলে-মেয়ে, এত এত ট্রফি এর কিছুই তিনি দেখে যেতে পারেন নি।’

রোনালদোর কথাতেই স্পষ্ট, বাবার সঙ্গে তার সম্পর্কটা বন্ধুত্বপূর্ণ ছিল না। মৃত্যুর ১৪ বছর পর সেই বাবার মুখে নিজের এমন প্রশংসা শোনার পর, তাকে নিয়ে বাবার গর্ব-মুগ্ধতার কথা শোনার পর আবেগের স্রোতে বাঁধ দেয়ার সাধ্য কী রোনালদোর!

ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন এখানে

কেআর

 

 

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও