বেনজেমার জোড়া গোলে বার্নাব্যুতে জিতল রিয়াল

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

বেনজেমার জোড়া গোলে বার্নাব্যুতে জিতল রিয়াল

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯

বেনজেমার জোড়া গোলে বার্নাব্যুতে জিতল রিয়াল

এস্তাদিও সান্তিয়াগো বার্নাব্যু রিয়াল মাদ্রিদের দূর্গ। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে কোন অদৃশ্য অশুভ শক্তি যেন ভর করেছে বার্নাব্যুতে। নিজেদের এই ঘরের মাঠে রিয়াল জিততেই পারে না! গত মৌসুমে বার্নাব্যুতে বেশির ভাগ ম্যাচেই হতাশায় পুড়তে হয়েছে রিয়াল। এ মৌসুমেও বার্নাব্যুতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে রিয়াল হোচট খেয়েছে। পুঁচকে ভিয়ারিয়ালের সঙ্গে ড্র করতে হয়েছে।

আজ সেই বার্নাব্যুতেই যখন দ্বিতীয় বার খেলতে নামে রিয়াল, লেভান্তের পাশাপাশি জিনেদিন জিদানের প্রতিপক্ষ ছিল বার্নাব্যুতে ভর করা অশুভ শক্তিও। করিম বেনজেমার জাদুতে লেভান্তে এবং অশুভ ভূত, দুই প্রতিপক্ষকেই হারিয়েছে রিয়াল। ফরাসি তারকার জোড়া গোলে রিয়াল সফরকারী লেভান্তের বিপক্ষে পেয়েছে ৩-২ গোলের জয়।

স্কোরই বলছে, রিয়াল জিতলেও প্রতিপক্ষ লেভান্তে ছেড়ে কথা বলেনি। বরং জিদানের দলের নাকে-মুখের জল এক করে ছেড়েছে। ম্যাচের পরিসংখ্যানেই সেটা স্পষ্ট। বার্নাব্যুর অদৃশ্য ভূত তাড়িয়ে রিয়াল ৩টি গোলই করেছে প্রথমার্ধে। অন্যদিকে লেভান্তে দুটো গোলই করেছে দ্বিতীয়ার্ধে। এই তথ্যের ভেতর আরও একটি সত্য লুকায়িত। বার্নাব্যুর ম্যাচটির প্রথমার্ধটা ছিল রিয়ালের। দ্বিতীয়ার্ধটা লেভান্তের।

৩-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পরও শেষ পর্যন্ত ব্যবধান ৩-২ করা, লেভান্তের অবিশ্বাস্য ঘুরে দাঁড়ানোর সাক্ষ্যই দেয়। ৭৫ মিনিটে যখন ব্যবধান ৩-২ বানায় লেভান্তে, বার্নাব্যুতে তখন আরেকটি ড্র শঙ্কার করুণ সুরই বেজে ওঠে। শঙ্কাটাকে বাস্তব করতে লেভান্তে প্রাণপণ চেষ্টাও করেছে। জিদানের রিয়ালের ভাগ্য ভালো, শেষ ১৫ মিনিটে অনেক চেষ্টা করেও লেভান্তে সমতাসূচক গোলটি করতে পারেনি। শঙ্কা মুছে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে রিয়াল।

জিদান এ ম্যাচেও পুরোনোদের ওপরই আস্থা রাখেন। পুরোনোদের দিয়েই সাজান শুরুর একাদশ। নতুন কেনা খেলোয়াড়দের রাখেন বদলি তালিকায়। তবে পুরোনোদের নিয়ে গড়া জিদানের শুরুর একাদশেও জায়গা হয়নি গ্যারেথ বেলের। এমনকি ওয়েলস তারকাকে বদলি হিসেবেও নামাননি তিনি।

বেলকে বাইরে রেখে জিদান আক্রমণ সাজান বেনজেমা, ব্রাজিলিয়ান তরুণ ভিনিসিয়াস জুনিয়র ও লুকাজ ভাজকুয়েজকে দিয়ে। আক্রমণের ঢেউ তুলে এই ত্রয়ী সাফল্যও এনে দেন দ্রুতই। ম্যাচের ২৫ মিনিটেই রিয়ালকে এগিয়ে দেন বেনজেমা। ড্যানি কারবাহালের বাঁ-পায়ের বাঁকানো ক্রস থেকে দুর্দান্ত হেডে বল লেভান্তের জালে জড়ান বেনজেমা।

এর ৬ মিনিট পরই আবার রিয়ালের গোল উৎসব। মধ্যমণি সেই বেনজেমা। হামেশ রদ্রিগেজের সঙ্গে ওয়ান-টু-ওয়ান পাস খেলে বক্সের ভেতর ঢুকে লেভান্তের জালে দ্বিতীয় পেরেকটি ঠোকেন ফরাসি তারকা। ৪০ মিনিটের মাথায় রিয়াল পেয়ে যায় তৃতীয় গোলটিও। তৃতীয় এই গোলটি দুই ব্রাজিলিয়ান কাসেমিরো ও ভিনিসিয়াসের যুগলবন্দির ফসল। ভিনিসিয়াসের পাশ থেকে দলের লিড ৩-০ করে ফেলেন কাসেমিরো।

এই ৩-০ লিড নিয়েই বিরতিতে যায় রিয়াল। মনে হচ্ছিল, বার্নাব্যুত লেভান্তেকে গোল বন্যাতেই ভাসাতে যাচ্ছে রিয়াল। কিন্তু বিরতির পর লেভান্তে মাঠে নামে অন্য প্রতিজ্ঞা করে। প্রথমার্ধের কোণঠাসা লেভান্তে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণের ঢেউ তুলে রিয়াল উল্টো চাপে ফেলে দেয়। লেভান্তে ফলও পায় দ্রুত। রিয়ালেরই ঘরে ছেলে বোজিয়া মেয়োরাল সর্বনাশ করেন রিয়ালের। লেভান্তেতে ধারে খেলতে যাওয়া এই স্প্যানিশ তারকাই ব্যবধান ৩-১ করেন। গোল পেয়ে লেভান্তে আরও উজ্জীবিত হয়ে উঠে। লেভান্তের আক্রমণে ভাটা ফেলতে জিদান ৬০ মিনিটে একসঙ্গে দুটি পরিবর্তন করেন।

অধিনায়ক সার্জিও রামোসকে তুলে মাঠে নামান এই মৌসুমেই কিনে আনা ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার এদের মিলিতাওকে এবং আরেক ব্রাজিলিয়ান কাসেমিরোকে তুলে নামান এডেন হ্যাজার্ডকে। এর মধ্যদিয়েই রিয়ালের জার্সি গায়ে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে অভিষেক হলো বেলজিযান তারকার।

তবে নিজের অভিষেকটা রাঙাতে পারেননি হ্যাজার্ড। নিজে তো গোল পান-ইনি। উল্টো ৭৫ মিনিটে আরও একটি গোল হজম করে বসে রিয়াল। ৩-২ হওয়ার পর ড্র শঙ্কাই চেপে বসে রিয়াল শিবিরে। ৮৩ মিনিটে বেনজেমাকে তুলে জিদান নামিয়েছেন আরেক নতুন খেলোয়াড় লুকা জভিচকেও। কিন্তু তিনিও গোলের দেখা পাননি।

এ নিয়ে রিয়ালের ৪ ম্যাচের ৩টিতেই গোল পেলেন বেনজেমা। আজকের ২ গোল নিয়ে ৪ ম্যাচে ৪ গোল হয়ে গেল তার। রিয়াল ৪ ম্যাচে মোট গোল করেছে ৯টি। তার ৪টিই বেনজেমার। এই তথ্য বলছে বেনজেমার কাঁধেই সওয়ার জিদানের রিয়াল।

এই জয়ে ৪ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট হলো রিয়ালের। যা তাদের তুলে নিয়েছে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থানে। তালিকায় রিয়ালের উপরে শুধুই অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। ৩ ম্যাচেই যাদের সংগ্রহ পূর্ণ ৯ পয়েন্ট। আজ জিতলে অ্যাতলেতিকো এগিয়ে যাবে ৪ পয়েন্টে। উল্লেখ্য আজ ম্যাচ আছে ৩ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট অর্জন করা বার্সেলোনারও। নিজেদের মাঠ ন্যু-ক্যাম্পে বার্সার প্রতিপক্ষ ভ্যালেন্সিয়া।

কেআর

 

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও