নেইমার ইস্যুতে সভাপতির ওপর ক্ষুব্ধ বার্সার খেলোয়াড়রা

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

নেইমার ইস্যুতে সভাপতির ওপর ক্ষুব্ধ বার্সার খেলোয়াড়রা

পরিবর্তন ডেস্ক ২:২৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৩, ২০১৯

নেইমার ইস্যুতে সভাপতির ওপর ক্ষুব্ধ বার্সার খেলোয়াড়রা

তাহলে ফ্রান্সের পত্রিকা ‘লে প্যারিসিয়েন’-এর খবরই সত্যি? মেসিকে খুশি করতে বার্সেলোনা নেইমারকে কেনার অভিনয় করছে! বাস্তবে কিনতে চাইছে না? স্পেনের জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক মার্কার খবর অন্তত সে রকমই।

মার্কার দাবি, নেইমার ইস্যুতে ক্লাব সভাপতি জোসেফ মারিয়া বার্তোমেউয়ের ওপর প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ বার্সেলোনার ড্রেসিংরূম। অধিনায়ক লিওনেল মেসিসহ বার্সেলোনার সব সিনিয়র খেলোয়াড়েরাই ক্লাব কর্তাদের ক্রয়-কৌশলে প্রচণ্ড হতাশ।

এতদিনে তাদের মনে ওই বিশ্বাসই জন্মেছে, সত্যিকার অর্থেই বার্সেলোনার কর্তারা নেইমারকে চেষ্টা করছে না। যে চেষ্টাটা করছে, তা স্রেফ লোক দেখানো, অভিনয় মাত্র।

এবারের দলবদল মৌসুম শুরুর আগেই ফুটবল দুনিয়ায় গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে পিএসজি ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দিতে যাচ্ছেন নেইমার। অধিনায়ক মেসিসহ বার্সেলোনার সব সিনিয়র সদস্যরাই চান নেইমারকে ফিরিয়ে আনা হোক। নেইমার নিজেও সাবেক সতীর্থদের কাছে ফিরে যাওয়ার ইচ্ছাটা প্রকাশ করেন। যা শুনে মেসি বার্সেলোনা কর্তাদের এক রকম আল্টিমেটামই দেন, নেইমারকে ন্যু-ক্যাম্পে ফিরিয়ে আনা হোক।

গত তিন মৌসুম ধরে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে পারছে না বার্সেলোনা। মেসি নাকি ক্লাব কর্তাদের এই নিশ্চয়তাও দিয়েছেন, নেইমারকে ফেরালে দল হিসেবে বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার জন্য যথেষ্ট ভারসাম্যপূর্ণ হবে।

একদিকে দলের খেলোয়াড়দের চাওয়া। অনদিকে নেইমারকে কেনার জন্য চিরশত্রু রিয়াল মাদ্রিদের আগ্রহের কথাটাও জানা। দুইয়ে মিলে বার্সেলোনার কর্তারা নেইমারকে কেনার চেষ্টা-তদ্বির শুরু করে দেয়। কিন্তু দুই মাস পেরিয়ে গেলেও বার্সার সেই চেষ্টাটা সফল হয়নি। পিএসজির সোনার শিকল ছিঁড়ে এখনো বের করতে পারেনি নেইমারকে।

এরই মধ্যে কদিন আগে ফরাসি পত্রিকা ‘রে প্যারিসিয়েন’ এক বোমা ফাটায়। পত্রিকাটি দাবি করে, বার্সেলোনা সত্যি সত্যি নেইমারকে কেনার চেষ্টা করছে না। মেসিকে খুশি করার জন্য কেনার অভিনয় করছে! লে প্যারিসিয়েনের সেই খবরকে মিথ্যা দাবি করে অবশেষে নেইমারের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে প্রস্তাব পাঠায় বার্সেলোনা।

কিন্তু দুই শর্তে বার্সেলোনার ১৯০ মিলিয়নের সেই প্রস্তাব পিএসজি নাকচ করে দিয়েছে। বার্সেলোনা মূলত প্রথম মৌসুমে নেইমারকে ধারে কেনার প্রস্তাব দেয়। এক বছরের ধারের জন্য প্রস্তাব করে ৪০ মিলিয়ন ইউরো। প্রস্তাবে শর্ত জুড়ে দেয়, এক মৌসুম পর স্থায়ী চুক্তি করা হবে। তখন আরও ১৫০ মিলিয়ন ইউরো দেওয়া হবে। মানে সব মিলে প্রস্তাবটা ছিল ১৯০ মিলিয়ন ইউরোর। কিন্তু আসলে এটা গণমাধ্যমের দাবি।

মার্কা জানাচ্ছে, বার্সেলোনা নেইমারের জন্য ১৪০ মিলিয়ন ইউরোর অগ্রহণযোগ্য প্রস্তাব পাঠিয়েছিল। নেইমার নিজেই নাকি বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের বলেছেন ১৪০ মিলিয়ন ইউরোর অগ্রহণযোগ্য প্রস্তাবের কথা। বর্তমানের আকাশচুম্বি বাজারে মধ্যমমানের খেলোয়াড়েরাই বিক্রি হচ্ছেন ১০০-১২০ মিলিয়ন ইউরোয়। সেখানে নেইমারের মতো আগামীর বিশ্বসেরা খেলোয়াড়কে যে এত কম দামে কেনা যাবে না সেটা স্পষ্টই।

তাছাড়া দুই মৌসুম আগে এই বার্সেলোনা থেকেই পিএসজি নেইমারকে কিনেছে রেকর্ড ২২২ মিলিয়ন ইউরোয়। ফলে তাকে যে অন্তত ২০০ মিলিয়ন ইউরোর কমে পিএসজি বেচবে না সেটা অনুমিতই। এটা জেনেও বার্সেলোনার কর্তারা কিনা পাঠিয়েছিল ১৪০ মিলিয়ন   ইউরোর অগ্রহণযোগ্য প্রস্তাব। এবং অনুমিতভাবে প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যানও করেছে পিএসজি।

নেইমারের সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বার্সেলোনার সভাপতি স্বয়ং জোসেফ মারিয়া বার্তোমেউ। কিন্তু কেনার নামে তাদের চালাকিটা বুঝে ফেলেছে বার্সেলোনার খেলোয়াড়েরা। বিষয়টি অনুধাবন করতে পেরে সভাপতি বার্তোমেউয়ের ওপর প্রচণ্ড হতাশ খেলোয়াড়েরা। বার্সেলোনার ড্রেসিংরুমে বিষয়টি নিয়ে বর্তমানে অস্বস্তি বিরাজ করছে বলেই জানিয়েছে মার্কা।

তবে আশার কথা হলো, নেইমারের জন্য নতুন করে প্রস্তাব করতে যাচ্ছে বার্সেলোনা। এরই মধ্যে নাকি নতুন প্রস্তাবের খসড়াও বার্সেলোনা করে ফেলেছে। নতুন প্রস্তাবটি নিশ্চয় লোক দেখানো হবে না?

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও