ক্লাবের অনিশ্চয়তার মধ্যেই ব্রাজিল দলে ফিরলেন নেইমার

ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ | 2 0 1

ক্লাবের অনিশ্চয়তার মধ্যেই ব্রাজিল দলে ফিরলেন নেইমার

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৫৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৯

ক্লাবের অনিশ্চয়তার মধ্যেই ব্রাজিল দলে ফিরলেন নেইমার

নেইমারের ক্লাব ক্যারিয়ারের ভবিষ্যত এখনো অনিশ্চয়তার চাদরে ডাকা। পিএসজিতেই থাকবেন, নাকি পাড়ি জমাবেন অন্য কোথাও, সেটি এখনো স্পষ্ট নয়। তবে ক্লাব ক্যারিয়ারের এই অনিশ্চয়তার মধ্যেই একটা সুখবর পেলেন নেইমার। তাকে সুখবরটা দিয়েছেন ব্রাজিল জাতীয় দলের কোচ তিতে।

চোটের কারণে কোপা আমেরিকায় খেলতে নামা নেইমারকে আবার ফিরিয়ে এনেছেন জাতীয় দলে।

বৈশ্বিক সফরের অংশ হিসেবে আগামী মাসে যুক্তরাষ্ট্রে দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলবে ব্রাজিল। সেই দুটি ম্যাচের জন্য ঘোষিত ২৩ সদস্যের দলে আছেন নেইমার।

ভেন্যু যুক্তরাষ্ট্রে হলেও ব্রাজিল ম্যাচ দুটি খেলবে দক্ষিণ আমেরিকারই দুই প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া ও পেরুর বিপক্ষে।

মায়ামিতে আগামী ৭ সেপ্টেম্বর ভোরে (বাংলাদেশ সময়) প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে কলম্বিয়ার। ৪ দিন পর মানে ১১ সেপ্টেম্বর সেই মায়ামিতেই তিতের মুখোমুখি হবে পেরুর। গত ৮ জুলাই যে পেরুকে হারিয়ে তিতের দল জিতেছে কোপা আমেরিকার নবম শিরোপা।

চোট থেকে সেরে উঠেছেন। ফলে নেইমারের দলে ফেরাটা স্বাভাবিকই। তবে নেইমারের ডাক পাওয়ার সঙ্গে ব্রাজিল দলে আছে একটা চমকও। কোচ তিতে দলে ডেকেছেন রিয়াল মাদ্রিদের তরুন তুর্কি ভিনিসিয়াস জুনিয়রকেও।

এর আগেও একবার জাতীয় দলে ডাক পেয়েছিলেন ১৯তে পা দেওয়া ভিনিসিয়াস। কিন্তু মার্চে পানামা ও চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে ডাক পেলেও চোটের কারণে নিজেই সরে দাঁড়ান ভিনিসিয়াস।

পরে বয়স কম বলে কোপা আমেরিকায় তাকে বিবেচনাই করেননি ব্রাজিল কোচ। তবে কোপার মিশন শেষ হতেই বিস্ময়বালক ভিনিসিয়াসকে আবার দলে ঢাকলেন তিতে। শুধু ভিনিসিয়াস একা নন। দলে আরও বেশ কয়েকজন তরুণকেই ডেকেছেন ব্রাজিল কোচ। তরুণদের সুযোগ করে দিতে কোপা আমেরিকার দল থেকে বাদ দিয়েছেন মোট ৭ জনকে! তবে কোপায় দেশকে নেতৃত্ব দেওয়া ৩৬ বছর বয়সী দানি আলভেসকে ঠিকই দলে রেখেছেন তিতে।

২০২২ কাতার বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এখন থেকেই দল গড়ে তুলতে চান তিতে। সেই পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই কোপার দল থেকে বয়সী ফুটবলারদের বাদ দিয়ে তরুণদের ডাকা। কোপার দল থেকে বাদ পড়ারা হলেন মিরান্ডা, ফেলিপে লুইস, উইলিয়ান, ফার্নান্দিনহো, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, ক্যাসিও, ও এভারটন।

এদের মধ্যে কোপায় সর্বোচ্চ গোলদাতা ও ফাইনালের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার পাওয়া এভারটনকে অবশ্য বাদ দেওয়া হয়েছে ক্লাব গ্রেমিওতে তার ব্যস্ততার কারণে। জেসুস, ফার্নান্দিনহোদের বাদ দেওয়া হয়েছে চোটের কারণে।

ব্রাজিল দল:

গোলরক্ষক: এডেযরসন (ম্যানচেস্টার সিটি), ইভান (পন্টে প্রেতা) ও ওয়েভারটন (পালমেইরাস)।

ডিফেন্ডার: দানি আলভেস (সাও পাওলো). থিয়াগো সিলভা (পিএসজি), মারকুইনহো (পিএসজি), ফাগনার (করিন্থিয়ান্স), হোর্হে (সান্তোস), এদর মিলিতাও (রিয়াল মাদ্রিদ), অ্যালেক্স সান্দ্রো (জুভেন্টাস) ও সামির (উদিনিসে)।

মিডফিল্ডার: আর্থার মেলো (বার্সেলোনা), কাসেমিরো (রিয়াল মাদ্রিদ), ফাবিনহো (লিভারপুল), অ্যালান (নাপোলি), লুকাস পাকুয়েতা (এসি মিলান) ও ফিলিপে কুতিনহো (বার্সেলোনা)।

ফরোয়ার্ড: নেইমার (পিএসজি), ডেভিড নেরেজ (আয়াক্স), ব্রুনো হেনরিক (ফ্লামেঙ্গো), রবার্তো ফিরমিনো (লিভারপুল), রিচার্লিশন (এভারটন) ও ভিনিসিয়াস জুনিয়র (রিয়াল মাদ্রিদ)।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও