ফাইনালে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ সেই পেরু

ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯ | ৪ কার্তিক ১৪২৬

ফাইনালে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ সেই পেরু

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ০৪, ২০১৯

ফাইনালে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ সেই পেরু

কোপা আমেরিকায় সর্বশেষ দুবারই শিরোপা জিতেছে চিলি। এবার তাদের স্বপ্ন ছিল হ্যাট্রটিক শিরোপা জয়ের। অ্যালেক্সি সানচেজ-আরতুরো ভিদালরা সেই স্বপ্নের পথ ধরে সেমিফাইনাল পর্যন্ত এসেও ছিল। কিন্তু সেমিতে এসে হাওয়ায় মিলিয়ে গেল তাদের সেই স্বপ্ন। চিলির হ্যাটট্রিক স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে পা রেখেছে পেরু।

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন চিলিকে আক্ষরিক অর্থেই গুঁড়িয়ে দিয়েছে পেরু। পোর্তো অ্যালেগ্রের অ্যারেনা ডু গ্রেমিওতে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে পেরু জিতেছে ৩-০ গোলে। যে জয়ে দীর্ঘ ৪৪ বছর পর কোপার ফাইনালে তারা। ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ সেই ব্রাজিল। যারা একদিন আগেই আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে কেটে রেখেছে ফাইনালের টিকিট।

মহাদেশীয় এই শ্রেষ্ঠত্বের আসরে পেরু শিরোপা জিতেছে মোট দুবার। যার শেষটি ১৯৭৫ সালে। সেবারও শিরোপা জয়ের পথে এই ব্রাজিলের দেখা হয়েছিল পেরুর। তবে ফাইনালে নয়, সেমিফাইনালে। সেবার টুর্নামেন্টটা হয়েছিল দক্ষিণ আমেরিকার সবগুলো দেশেই! মানে অংশ নেওয়া প্রতিটা দেশেই হয়েছিল ম্যাচ।

ব্রাজিল-পেরুর সেমিফাইনালটা হয়েছিল ব্রাজিলের মাঠ বেলো হরিজেন্তোর এস্তাদিও মিনেইরো স্টেডিয়ামে। স্বাভাবিকভাবেই নিজেদের ঘরের মাঠে পেরুকে হারিয়ে ফাইনালের স্বপ্নে বিভোর ছিল ব্রাজিল। কিন্তু সেলেসাওদের সেই স্বপ্ন ভেঙে দিয়ে ফাইনালে উঠে পেরু। ব্রাজিলকে তারা হারায় ৩-১ গোলে। পরে তিন পর্বের ফাইনালে কলম্বিয়াকে হারিয়ে শিরোপাও জিতে নেয় পেরু।

এর পর আরও একবার সেমিতে মুখোমুখি হয় দুদল, ১৯৯৭ সালে। সেই দেখায় ২২ বছর আগের হারের প্রতিশোধ ভালোভাবেই নেয় ব্রাজিল। পেরুকে ৭-০ গোলে ভাসিয়ে ফাইনালে উঠা ব্রাজিল বলিভিয়াকে হারিয়ে শেষ পর্যন্ত জিতে নেয় শিরোপাও।

এবার তো প্রথম বারের মতো ফাইনালেই মুখোমুখি হতে যাচ্ছে দুদল। এবার শেষ হাসিটাকে কে হাসবে তা জানা যাবে ৮ জুলাই ভোরে। আগের দিন আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট কেটেছে স্বাগতিক ব্রাজিল। পেরু ফাইনালের টিকিটটা কাটল তাদের চেয়েও বেশি দাপটের সঙ্গে।

পোর্তো অ্যালেগ্রেতে পেরুর কাছে পাত্তাই পায়নি সর্বশেষ দুবারের চ্যাম্পিয়ন চিলি। দুই ফ্লোরেসের গোলে প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় পেরু। চিলির হ্যাটট্রিক শিরোপার স্বপ্ন তাই প্রথমার্ধেই শেষ! ম্যাচের ২১ মিনিটে পেরুকে প্রথম্ এগিয়ে দেন এডিসন মিচেল ফ্লোরেস পেরাল্টা। ৩৮ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ভিক্টর ইওসিমার ইউতুন ফ্লোরেস।

পেরুর এই ২-০ গোলের জয়টাকেই মনে হচ্ছিল ম্যাচের নিয়তি। ঠিক তখনই, ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে চিলির কফিনে আরও একটা পেরেক ঠুকে দেন হোসে পাওলো গুয়েরেরো গঞ্জালেস।

কোপায় চিলি সর্বশেষ দুবারই শিরোপা জিতেছে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে। ভাগ্যদেবী এবারও চিলি-আর্জেন্টিনাকে মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিলেন। তবে শিরোপা স্বপ্নের ফাইনালে নয়। মেসি-ভিদালরা মুখোমুখি হবেন দুঃস্বপ্নের তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে!

কেআর/আরপি

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও