ব্রাজিল-পেরু, দুদলকেই অনুপ্রাণিত করছে ইতিহাস!

ঢাকা, ২১ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

ব্রাজিল-পেরু, দুদলকেই অনুপ্রাণিত করছে ইতিহাস!

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:৩৫ অপরাহ্ণ, জুন ২২, ২০১৯

ব্রাজিল-পেরু, দুদলকেই অনুপ্রাণিত করছে ইতিহাস!

ব্রাজিল ও পেরু। এবারের কোপা আমেরিকায় দুটি দলই যেন সমান্তরালে হাঁটছে। ঠিক রেল লাইনের মতো। প্রথম দুই ম্যাচে দুই দলই একটিতে জিতেছে, একটিতে ড্র করেছে। দুই দলেরই পয়েন্ট সমান ৪ করে। কাকতালীয়ভাবে দুটি দলই ড্র হতাশায় পুড়েছে ভেনেজুয়েলার সঙ্গে। এবং দুই দলই ড্র করেছে গোলশূন্য। এতো এতো মিলের ভিড়ে আজ দুদলের লক্ষ্যটাও মিলে গেছে এক বিন্দুতে। দুই দলই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে মরিয়া।

কিন্তু সেটা সম্ভব নয়। কারণ, আজ রাতে গ্রুপের শেষ ম্যাচে যে একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছে ব্রাজিল-পেরু। সুতরাং দুই দলের পক্ষেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ নেই। এমনকি মিলের ধারাবাহিকতা ধরে রেখে ড্র করলেও না। কারণ, পয়েন্ট সমান ৪ করে হলেও একটা জায়গায় একটু এগিয়ে স্বাগতিক ব্রাজিল।

গোল ব্যবধানে তারা পেরুর চেয়ে শ্রেয়। ব্রাজিলের গোল ব্যবধান ৩, পেরুর ২। ফলে এ গ্রুপের পয়েন্ট তালিকায় ব্রাজিলই এক নম্বরে। পেরু দুইয়ে। আজ ড্র থাকলেও তাই ব্রাজিল এক নম্বরেই থাকবে। যদি বলিভিয়ার বিপক্ষে ভেনেজুয়েলা ৩ বা তার বেশি গোলে না জেতে।

যদি ব্রাজিল-পেরুর ম্যাচটি ড্র হয় এবং ভেনেজুয়েলা বলিভিয়াকে ৩ বা তার বেশি গোলে হারায় তাহলে ভেনেজুয়েলাই হয়ে যাবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। ব্রাজিলকে শেষ আটে উঠতে হবে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে! ভেনেজুয়েলা বলিভিয়াকে কয় গোলে হারায় সেটি তাদের ব্যাপার।

ব্রাজিল কোচ তিতের ভাবনাটা নিজেদের ম্যাচ নিয়েই। যে করেই হোক পেরুর বিপক্ষে জিতেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে মরিয়া তারা। কোচ তিতের মতো জয়ের পণ করে মাঠে নামছেন ফিলিপে কুতিনহো, রবার্তো ফিরমিনোরাও।

প্রথম দুই ম্যাচেই নিজ দর্শকদের ধুয়ো শুনতে হয়েছে কুতিনহো, ফিরমিনোদের। আজ দর্শকরা যাতে ধুয়ো দেওয়ার সুযোগ না পায়, সেজন্য ম্যাচের শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের উপর ঝাপিয়ে পড়ার পণ তিতের শিষ্যদের। একই লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামছে পেরুরও। মজার ব্যাপার হলো, জয়ের জন্য দুই দলকেই অনুপ্রাণিত করছে ইতিহাস!

সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে দুই দলের সর্বশেষ ১৮ সাক্ষাতে মাত্র একবার হেরেছে ব্রাজিল। এই তথ্যটা নিশ্চিতভাবেই অনুপ্রাণিত করছে ব্রাজিলিয়ানদের। কাকতালীয়ভাবে এই তথ্যটা উজ্জীবিত করছে পেরুকেও! কারণ, ব্রাজিলের বিপক্ষে পেরুর সর্বশেষ সেই জয়টা এই কোপা আমেরিকাতেই, ২০১৬ সালে। পেরুর কাছে হেরেই দীর্ঘ তিন দশক পর কোপার গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয় ব্রাজিলকে!

পেরুকে উজ্জীবিত করছে আরও একটি ইতিহাস। ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ দুটি কোপা আমেরিকাতেই ব্রাজিলের মুখোমুখি হয়েছে পেরু। ১৯৭৫ ও ১৯৮৯ সালে সেই দুটি সাক্ষাতেই ব্রাজিলের মাটিতে এসে ব্রাজিলের বিপক্ষে অপরাজিত পেরু। ১৯৭৫ সালে তো ব্রাজিলকে ৩-১ গোলে হারিয়েই দিয়েছিল। ১৯৮৯ সালে করেছিল গোলশূন্য ড্র। আজকের ম্যাচটাও যেহেতু ব্রাজিলের মাটিতেই। পেরু তাই ব্রাজিলের অ্যাওয়ে ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ডটাই ধরে রাখতে মরিয়া।

কোপায় দুই দলের সামগ্রিক পরিসংখ্যানটা অবশ্য ব্রাজিলের পক্ষে। এই টুর্নামেন্টে সব মিলে ১৭ বার মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। তাতে ব্রাজিল জিতেছে ১১ বার, হেরেছে ৩টিতে। বাকি ৪টি ম্যাচ ড্র। এই ১৭ ম্যাচে ব্রাজিলিয়ানরা মোট গোল করেছে ৩৪টি, বিপরীতে হজম করেছে মাত্র ১৩টি।

দুই দলের ওভারঅল পরিসংখ্যানটাও ব্রাজিলের পক্ষে। সব মিলে দু্ই দল মুখোমুখি হয়েছে ৪৪ বার। তাতে ব্রাজিল জিতেছে ৩১ ম্যাচে, পেরু জিতেছে মাত্র ৪টিতে। বাকি ৯টি ম্যাচ ড্র। মানে কোপার বাইরে ব্রাজিলকে একবার মাত্র হারাতে পেরেছে পেরু।

ইতিহাস আজ কাদের পক্ষ নেবে? স্বাগতিক ব্রাজিল নাকি পেরুর?

উল্লেখ্য, সাও পাওলোর অ্যারেনা করিন্থিয়ান্সে ম্যাচটা শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়। একই সময়ে মাঠে নামবে ভেনেজুয়েলা-বলিভিয়াও। ব্রাজিল-পেরুর ম্যাচটি সরাসরি দেখা যাবে বেইন স্পোর্টস ও পিপিটিভিতে।

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও