চিলিকে কোয়ার্টারে তুললেন সেই অফ ফর্মের সানচেজ

ঢাকা, ২১ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

চিলিকে কোয়ার্টারে তুললেন সেই অফ ফর্মের সানচেজ

পরিবর্তন ডেস্ক ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ২২, ২০১৯

চিলিকে কোয়ার্টারে তুললেন সেই অফ ফর্মের সানচেজ

ক্লাবের হয়ে যত বড় তারকা, জাতীয় দলের হয়ে ততটা নন। এই অপবাদ ইতিহাসের অনেক কিংবদন্তি ফুটবলারকেই গায়ে মাখতে হয়েছে। এমনকি এই অপবাদ জুড় গেছে বর্তমানের বিশ্বসেরা লিওনেল মেসির সঙ্গেও। অ্যালেক্সি সানচেজ মেসির মতো অত বড় তারকা নন। তবে তার ক্ষেত্রে চিত্রটা ঠিক উল্টো। ক্লাবের হয়ে ফর্ম যেমনই হোক, জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপালেই হয়ে উঠেন দুর্দমনীয়। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের চিলিয়ান ফরোয়ার্ড এর প্রমাণ দিচ্ছেন এবারের কোপা আমেরিকাতেও। ক্লাবে নিজেকে হারিয়ে খোঁজা সানচেজই কোয়ার্টার ফাইনালে তুললেন চিলিকে।

আজ ভোরে এই সানচেজের কাঁধে চেপেই ইকুয়েডরকে ২-১ গোলে হারিয়েছে টানা দুই বারের চ্যাম্পিয়ন চিলি। ফলে টানা দুই জয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই কোয়ার্টার ফাইনালে নাম লেখালো তারা। আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে সর্বশেষ দুই বারই মহাদেশীয় এই শ্রেষ্ঠত্বের আসরের শিরোপা জিতেছে চিলি। এবারও তাদের শুরু হয় দুর্দান্ত।

জাপানকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে শুরু। এরপর আজ ভোরে ইকুয়েডরের বিপক্ষে এই জয়। চিলির এই দুটি জয়েই সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন সানচেজ। গোল করলেন দুই ম্যাচেই। ক্লাব ম্যানচেস্টারের হয়ে সময়টা একদমই ভালো যাচ্ছে না সাবেক বার্সেলোনা তারকার। এমনকি তাকে ‘বোঝা’ মনে করে ম্যানইউ তাকে বিক্রি করে দেওয়ার কথাও ভাবছে। সেই সানচেজই জাতীয় দলের জার্সি গায়ে অবিশ্বাস্য।

আজ সালভাদরের অ্যারেনা ফন্তে নোভায় ম্যাচের ৮ মিনিটেই এগিয়ে যায় চিলি। কর্নার থেকে দলকে এগিয়ে দেন হোসে পেদ্রো ফুয়েনজালিদা। তবে ২৬ মিনিটেই ইকুয়েডরকে সমতায় ফেরান এনার ভ্যালেন্সিয়া। ১-১ সমতা নিয়েই বিরতিতে যায় দুদল। তবে বিরতি থেকে ফেরার পরপরই চিলিকে আবার এগিয়ে দেন সানচেজ। ৫১ মিনিটে তার করা গোলটিই শেষ পর্যন্ত গড়ে দিয়েছে ম্যাচের ভাগ্য। চিলিকে এনে দিয়েছে জয়। এক ম্যাচ হাতে থাকতেই তুলে দিয়েছে শেষ আটে।

কেআর

 

 

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও