এমবাপের পর নেইমারও ফাটালেন নতুন বোমা!

ঢাকা, ১২ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

এমবাপের পর নেইমারও ফাটালেন নতুন বোমা!

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:০৮ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০১৯

এমবাপের পর নেইমারও ফাটালেন নতুন বোমা!

গত সপ্তাহে পুরস্কার নিতে এসে রীতিমতো বোমা ফাটিয়েছেন ফরাসি সেনসেশন কিলিয়ান এমবাপে। সরাসরিই ইঙ্গিত দিয়েছেন ক্লাব ছাড়ার।

এমবাপের সেই বক্তব্যের পর থেকেই ভয়ে কাঁপছে পিএসজি শিবির। পিএসজির কোচ টমাস টাচেল প্রকাশ্যেই ব্যক্ত করেছেন এমবাপে ও নেইমারকে হারানোর শঙ্কার কথা।

পিএসজি শিবিরের সেই কম্পন আরও বাড়িয়ে দিলেন নেইমার। এমবাপের সঙ্গে সুর মিলিয়ে ব্রাজিলিয়ান তারকাও ফাটালেন নতুন আরেক বোমা।

নিজের ইমেজ স্বত্ব নিয়ে পারফিউমের এক ভিডিও প্রকাশ করেছেন নেইমার। সেই ভিডিওতেই বোমাটা ফাটিয়েছেন তিনি। এমবাপের মতো ছোট্ট একটা বাক্যেই।

ভিডিওটিতে তিনি বলেছেন, ‘আমি নিজেকে একজন সাহসী মানুষ হিসেবে বিবেচনা করি, যে নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে ভালোবাসে।’

নতুন চ্যালেঞ্জ। এই কথার মাধ্যমে নেইমার কি বুঝিয়েছেন, সেটি বেশ ভালোভাবেই বুঝে গেছে পিএসজি। তার এই ভিডিও বোমার পর পিএসজি শিবিরের অস্থিরতার মাত্রা যে আকাশ ছুঁয়েছে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই।

আগেই বলা হয়েছে, পিএসজি শিবিরের অস্থিরতাটা তৈরি হয়েছে এমবাপের এক বোমার মাধ্যমে। সতীর্থ নেইমার, এডিনসন কাভানিদের হারিয়ে মৌসুমের ফ্রেঞ্চ লিগের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন ফরাসি বিস্ময়বালক। সঙ্গে মৌসুমের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পুরস্কারও জিতেছেন তিনি।

গত সপ্তাহে ফ্রান্স ফুটবল ফেডারেশনের পক্ষ থেকে দেয়া সেই পুরস্কার নিতে গিয়েই বিস্ফোরক ওই মন্তব্য করেন এমবাপে। পুরস্কার প্রাপ্তির আনন্দ প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলে বসেন, ‘সময় এখন আরও বেশি দায়িত্ব নেয়ার। সেটি পিএসজিতে হলে ভালো, না হলে অন্য কোনো প্রজেক্টে।’

অন্য কোনো প্রজেক্ট মানে অন্য কোনো ক্লাব। সুতরাং তার ইঙ্গিতটা স্পষ্টই। তার সেই মন্তব্যের পর থেকেই পিএসজি শিবিরে বিরাজ করছে অস্থিরতা। ২০ বছর বয়সী এমবাপের যুদ্ধটা যার সঙ্গে, পিএসজির সেই জার্মান কোচ টাচেল নিজেও সম্পতি এক সাক্ষাৎকারে শঙ্কার কথা শুনিয়েছেন।

তার কণ্ঠে স্পষ্টই ধ্বনিত হয় এমবাপে ও নেইমারকে হারানোর সুর। শঙ্কা মিশ্রিত কণ্ঠে বলেন, ‘দলের কোচ হিসেবে আমি অবশ্যই চাই এমবাপে ও নেইমার পিএসজিতেই থাকুক। কিন্তু, ফুটবলে আমরা কেউই সাদাসিদা নই। তবে সে কি বলেছে, সে সম্পর্কে কথা বলাটা প্রয়োজন মনে করছি না।’

টাচেলে এটা বলেছেন বটে। তবে পরেই আবার বলেছেন, এমবাপেকে কেনার সামর্থ ইউরোপের ঠিক কোন কোন ক্লাবের আছে। ‘কেবল মাত্র রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা এবং কিছু ইংলিশ ক্লাব, যেমন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মতো ক্লাবগুলো এমবাপেকে কেনার সামর্থ রাখে।’

এমবাপের মন্তব্য ঘিরে সেই অস্থিরতার মধ্যেই আবার দলের আরেক তারকা নেইমারের ক্লাব ছাড়ার প্রকাশ্য ইঙ্গিত। ভিডিওটিতে নিজেকে ‘সাহসী’ বলার ব্যাখ্যাও দিয়েছেন নেইমার। তবে তার ‘নতুন চ্যালেঞ্জ’ শব্দ যুগলই পিএসজির কম্পন্ন মাত্রাটা আকাশচুম্বি করেছে!

পিএসজি শিবিরের টালমাটাল অবস্থাটা সহজেই অনুমেয়। সামনের সময়টা যে পিএসজিকে চরম এই অস্থিরতার মধ্যেই কাটাতে হবে, সেটিও স্পষ্ট। দলবল মৌসুম শেষ না হওয়া পর্যন্ত শঙ্কার মধেই পার করতে হবে দিন-রাত। পিএসজি এমবাপে-নেইমারকে ধরে রাখতে পারব তো। নাকি তারা চলেই যাবেন।

কেআর/আইএম

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও