জুভেন্টাসকে এই ৬ জনকে কিনতে বলেছেন রোনালদো!

ঢাকা, শনিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৯ | ২৪ কার্তিক ১৪২৬

জুভেন্টাসকে এই ৬ জনকে কিনতে বলেছেন রোনালদো!

পরিবর্তন ডেস্ক ২:২৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৪, ২০১৯

জুভেন্টাসকে এই ৬ জনকে কিনতে বলেছেন রোনালদো!

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

আসন্ন গ্রীষ্মকালীন দলবদল বাজার একাই গরম করে তুলতে যাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। বিভিন্ন পজিশনে অন্তত ৬ জন তারকা খেলোয়াড় কেনার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে মাদ্রিদ জায়ান্টরা। কোরিয়ারে দেল্লো স্পোর্ত-এর খবর সত্যি হলে, দলবদলের বাজার কাঁপাতে যাচ্ছে ইতালিয়ান জায়ান্ট জুভেন্টাসও। ইতালির জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক আজ এরকমই এক বোমা ফাটানো গরম খবর দিয়েছে। পত্রিকাটি এক প্রতিবেদনে দাবি করেছে, ক্লাব জুভেন্টাসকে ৬ জন নতুন খেলোয়াড় কেনার তাড়না দিয়েছেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।

তাও যে কোনো ৬ জনকে নয়। কাকে কাকে কিনতে হবে, তার একটা পছন্দের তালিকাও নাকি করে দিয়েছেন রোনালদো। পর্তুগিজ সুপারস্টার নাকি ক্লাব কর্তাদের নাম ধরে ধরেই বলে দিয়েছেন, এই ৬ জনকে কিনতে হবে।

রোনালদোর পছন্দের ৬ জনকেই যদি জুভেন্টাস কিনে বা কিনতে চায়, তাহলে বড় ঝড়টা যাবে রিয়াল মাদ্রিদের ওপর দিয়ে। রোনালদোর পছন্দের ৬ জনের ২ জনই যে তার সাবেক ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের। সেই দুজন হলেন রাফায়েল ভারানে ও ইসকো।


রোনালদোর পছন্দের অন্য ৪ জন হলেন ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমার গ্রিক সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার কস্তাস মানোলাস, ফরাসি ক্লাব অলিম্পিক লিঁও’র ফরাসি ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার টানগুই এনডোম্বেলে, ইতালিয়ান ক্লাব ফিওরেন্তিনার তরুণ ইতালিয়ান ফরোয়ার্ড ফেডেরিকো কিয়েসা এবং পর্তুগিজ ক্লাব বেনফিকার তরুণ পর্তুগিজ মিডফিল্ডার হোয়াও ফেলিক্স।

ভারানে ও ইসকো, রিয়ালের এই দুজনের গায়েই তারকাখ্যাতি লেগেছে অনেক আগে। দুজনেই নিজ জিন পজিশনে অন্যতম বিশ্বসেরা। রোনালদো প্রথমে চেয়েছিলেন রিয়ালের ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মার্সেলোকে। মার্সেলোও বন্ধু রোনালদোর ডাকে সাড়া দিয়ে জুভেন্টাসে যেতে রাজি ছিলেন। কিন্তু জিনেদিন জিদান নতুন করে রিয়ালের কোচ হয়ে এসেই মার্সেলোর বেরুনোর দরজা বন্ধ করে দিয়েছেন। রোনালদোও তাই পছন্দ পরিবর্তন করে এখন চাইছেন ভারানে ও ইসকোকে।

ভারানে এরই মধ্যে তাকে বিক্রি করে দেওয়ার জন্য ক্লাব রিয়ালকে অনুরোধও করেছেন। যদিও কোচ জিদান কিছুতেই স্বদেশি ভারানেকে ছাড়তে রাজি নন। ভারানেকে ধরে রাখতে তার বেতনও বৃদ্ধি করার প্রস্তাব দিয়েছে রিয়াল। কিন্তু ভারানে ক্লাব ছাড়বেনই বলেই পণ করেছেন। তবে রিয়াল ছেড়ে তিনি কোথায় যেতে চান, সেটি নিশ্চিত নয়। এই ধোঁয়াশার মধ্যেই এল রোনালদোর পছন্দের তালিকায় তার থাকার খবর।

পাশাপাশি ইসকোকেও তার দলে চাই। অন্য যে ৪ জনকে রোনালদো পছন্দ করেছেন, তারাও প্রতিভা-সামর্থে সবার নজর কেড়েছেন। আসন্ন দলবদলকে সামনে রেখে তারা প্রত্যেকেই হট কেক।

প্রতিভা-সামর্থে রোমার গ্রিক ডিফেন্ডার কস্তাস মানোলাস এরই মধ্যে ‘গ্রিক কমাণ্ডার’ খেতাব কামিয়েছেন। অনেকের মতেই ২৭ বছর বয়সী মানোলাস বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা মিডফিল্ডার।

অলিম্পিক লিঁও’র তরুণ ফরাসি ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার টানগুই এনডোম্বেলে এরই মধ্যে আগামীর তারকা হিসেবে নিজেকে চিনিয়েছেন। রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনাসহ ইউরোপের প্রায় সব ধনী ক্লাবগুলোর নজর পড়েছে তার ওপর। রিয়াল কোচ জিদান খুব করে পেতে চাইছে তাকে। ২২ বছর বয়সী এই তরুণকে কিনতে বার্সেলোনাও সমান আগ্রহী। বার্সার আগ্রহটা বেড়েছে মুখোমুখি সাক্ষাত থেকেই। এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলতে এই এনডোম্বেলের অলিম্পিক লিঁও’র মুখোমুখি হয়েছিল বার্সা। প্রথমে লেগে পুরো ম্যাচেই লিওনেল মেসিকে বোতলবন্দী করে রেখেছিলেন ফরাসি তরুণ। এরপরই বার্সা তার পিছু নিয়েছে।

রোনালদোর আরেক পছন্দ ফেডেরিকো কিয়েসও এরই মধ্যে নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর করেছেন। বয়স মাত্র ২১। এরই মধ্যে ইতালি জাতীয় দলের হয়ে ১১টি ম্যাচ খেলেছেন। ফিওরেন্তিনার হয়ে মৌসুমটিও কাটাচ্ছেন দুর্দান্ত। সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে নিজে ১২টি গোল করেছেন, সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন ৮টি। আক্রমণ পার্টনার হিসেবে ইতালির এই তরুণকে চাই রোনালদোর।

আক্রমণ সঙ্গী হিসেবে স্বদেশি হোয়াও ফেলিক্সকে তো খুব খুব পছন্দ রোনালদো। পর্তুগালের ১৯ বছর বয়সী তরুণ মূলত আক্রমণাত্মক মিডফিল্ডার। তবে গোল করাতেও সমান পারদর্শী। ক্লাব বেনফিকার হয়ে প্রতিনিয়তই আলো ছড়াচ্ছেন তিনি। বর্তমানে যে কয়জন তরুণকে কেনার জন্য ইউরোপের বড় বড় ক্লাবগুলো রীতিমতো প্রতিযোগিতায় নেমেছে, হোয়াও ফেলিক্স তাদের একজন।

রিয়াল, বার্সা, ম্যানচেস্টার সিটি, পিএসজিসহ ইউরোপের সব নামীদামী ক্লাবই তার পিছু নিয়েছে। ম্যানচেস্টার সিটি তো এরই মধ্যে এই তরুণকে কেনার জন্য ১১২ মিলিয়ন ইউরোর লোভনীয় প্রস্তাবও দিয়েছে! মোদ্দা কথা, হোয়াও ফেলিক্স দলবদল বাজারের অন্যতম হট কেক।

এখনো পর্তুগাল জাতীয় দলে সুযোগ না পেলেও রোনালদোর সঙ্গে একত্রে অনুশীলন করার সুযোগ পেয়েছেন। ফলে স্বদেশি ফেলিক্সের প্রতিভা-সামর্থ, দক্ষতা রোনালদোর খুব ভালো করে জানা। তাই যে করেই হোক তিনি এই স্বদেশিকে নিজ দলে পেতে চাইছেন।

রোনালদোর এই এত এত নতুন খেলোয়াড় কেনার আগ্রহের কারণটাও স্পষ্ট। জুভেন্টাস তাকে একমাত্র উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগকে পাখির চোখ করেই কিনেছে। কিন্তু পর্তুগিজ সুপারস্টার প্রথম মৌসুমে জুভেন্টাসের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে পারেননি। ডাচ ক্লাব আয়াক্সের কাছে হেরে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই ছিটকে পড়েছে রোনালদোর জুভেন্টাস।

আগামী মৌসুমেও যাতে এই করুণ পরিণতির মুখোমুখি হতে না হয়, তাই আগে থেকেই দলের শক্তিবৃদ্ধি করার জন্য ক্লাব কর্তাদের তাড়না দিয়েছেন তিনি। কোন পজিশনে কাকে কিনতে হবে, মনমত তার তালিকাটাও করে দিয়েছেন তিনি।

প্রশ্ন হলো, জুভেন্টাস কর্তারা রোনালদোর এই পছন্দের মর্যাদা রাখবে তো?

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও