এমবাপের অবিশ্বাস্য উন্নতি, অবিশ্বাস্য অর্জন

ঢাকা, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬

এমবাপের অবিশ্বাস্য উন্নতি, অবিশ্বাস্য অর্জন

পরিবর্তন ডেস্ক ২:১৮ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৩, ২০১৯

এমবাপের অবিশ্বাস্য উন্নতি, অবিশ্বাস্য অর্জন

অর্জনের কথা দিয়েই শুরু করা যাক। বয়স সবে ২০। এই বয়সেই কিলিয়ান এমবাপের প্রাপ্তির খাতায় ৩টি লিগসহ ৫টি শিরোপা। এটা তো ক্লাব ফুটবলে অর্জন। দেশ ফ্রান্সের হয়ে এরই মধ্যে জিতেছেন অনূর্ধ্ব-১৯ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ এবং সবচেয়ে মর্যাদার বিশ্বকাপ।

অর্জনের এই তালিকা বলবে এমবাপে বুঝি ক্যারিয়ারের পড়ন্ত বেলার যাত্রী। অবসর নেওয়ার সময় এসে গেছে তার! কিন্তু বাস্তবতা হলো, পিএসজির ফরাসি তরুণের ক্যারিয়ার সব শুরু। মানে শুরুতেই প্রাপ্তি-অর্জনের খাতা পরিপূর্ণ।

‘বিস্ময়বালক’ খেতাবটি তো আর এমনি এমনিতেই তার নামের সঙ্গে জুড়ে দেয়া হয়নি। ফরাসি তরুণের প্রতিভা, সামর্থে বিস্মিত হননি, এমন কেউ ফুটবল দুনিয়ায় নেই! মানুষ যাদের সর্বকালের সেরাদের আসনে বসিয়েছে, সেই পেলে-ম্যারাডোনাও এমবাপের প্রতিভায় অভিভূত, বিস্মিত।

মাঠে নেমে বিস্ময় ছড়িয়েই যাচ্ছেন পিএসজি তারকা। ছড়ালেন গত রোববারও। রোববার ৫ ম্যাচ হাতে রেখেই টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের শিরোপা নিশ্চিত করে ফেলেছে পিএসজি। আর রোববার মোনাকোর বিপক্ষে শিরোপা নিশ্চিত করা ৩-১ গোলের জয়টি এমবাপের বিস্ময়েরই ফসল।

সেদিন সাবেক ক্লাবের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে দলকে শিরোপার আনন্দে ভাসিয়েছেন এমবাপে। যে হ্যাটট্রিকের মাধ্যমে ফরাসি তরুণ ইউরোপিয়ান গোল্ডেন বুটের দৌড়েও শীর্ষে থাকা লিওনেল মেসিকে প্রায় ধরে ফেলেছেন। ৩৩ গোল ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে মেসি। রোববারের হ্যাটট্রিকে এমবাপের লিগ গোল সংখ্যা এখন ৩০টি। মানে তার অর্জন ৬০ পয়েন্ট।

২০ বছর বয়সী একজন তরুণের মৌসুমে লিগে ৩০ গোল করাটা বিস্ময়করই। সেখানে এমবাপে এরই মধ্যে করেছেন ৩০ গোল। আরও তো ৫টি ম্যাচ সামনে পড়েই আছে।

মোনাকোর হয়ে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে এমবাপের অভিষেক ২০১৫ সালে। পরের মৌসুমেই ক্লাব মোনাকোর হয়ে জেতেন লিগ শিরোপা। এরপর পিএসজিতে গিয়ে লিগ জিতলেন টানা দুই মৌসুমেই। নিজের খেলায় অবিশ্বাস্য উন্নতির পাশাপাশি ক্রমান্বয়ে বাড়ছে এমবাপের ম্যাচ খেলার সংখ্যাও। অভিষেক মৌসুমে মোনাকোর হয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১৬ বছরের এবমাপে খেলেন ১৪টি ম্যাচ। গোলও করেন একটা।

এরপরের তিন মৌসুমে খেলেছেন যথাক্রমে ৪৪, ৪৪ ও ৪০ ম্যাচ। গোল করেছেন যথাক্রমে ২৬, ২১ ও ৩৬টি। মানে এবার এরই মধ্যে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মাত্র ৪০ ম্যাচেই করে ফেলেছেন ৩৬ গোল। লিগেই আরও ৫টি ম্যাচ বাকি আছে। সুতরাং ২০ বছরের এমবাপের গোলটা ৪০ ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাই প্রবল। এই তথ্যে দুনিয়ার সব ফুটবল রথীদেরই বিস্মিত করার কথা!

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও