রদ্রিগোকে ‘স্পেশাল’ বললেন ব্রাজিলের ৫ সাংবাদিক

ঢাকা, সোমবার, ২০ মে ২০১৯ | ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

রদ্রিগোকে ‘স্পেশাল’ বললেন ব্রাজিলের ৫ সাংবাদিক

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:০৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২০, ২০১৯

রদ্রিগোকে ‘স্পেশাল’ বললেন ব্রাজিলের ৫ সাংবাদিক

গত বছরই তার সঙ্গে চুক্তিটা করে রেখেছে রিয়াল মাদ্রিদ। প্রতিভা, সামর্থে মুগ্ধ হয়েই রদ্রিগোকে কিনে রেখেছে স্প্যানিশ ক্লাবটি।

তবে বয়স কম বলে গত বছর রিয়ালে যোগ দেননি ব্রাজিলের ১৭ বছর বয়সী এই তরুণ। সান্তোস ছেড়ে তিনি বার্নাব্যুতে যোগ দেবেন আগামী জুনে।

তবে বিশ্বসেরা রিয়ালে যোগ দেয়ার আগেই আলোচনায় রদ্রিগো। প্রতিভার ঝলকানিতে এরই মধ্যে অর্জন করেছেন ‘আগামীর বড় তারকা’র সার্টিফিকেট। এবার জুটল ‘স্পেশাল’ খেলোয়াড়ের সার্টিফিকেটও।

ব্রাজিলেরই বিশেষজ্ঞ ৫ ফুটবল সাংবাদিক ‘স্পেশাল’ খেতাব পরিয়ে দিলেন তরুণ রদ্রিগোর মাথায়। সম্প্রতি রিয়ালের মুখপাত্র হিসেবে বিবেচিত স্পেনের জনপ্রিয় ক্রীড়া দৈনিক মার্কা রদ্রিগোর প্রতিভার বিষয়ে মূল্যায়ন করতে ব্রাজিলের ৫ বিশেষজ্ঞ সাংবাদিককে এক টেবিলে বসিয়েছিল।

আলোচনায় ৫ জনে মিলেই তরুণ রদ্রিগোর গায়ে ‘স্পেশাল’ খেতাব লাগিয়ে দিয়েছেন। অরিয়ন পিরেস, ক্লাউস রিচমন্ড, ব্রুনো রদ্রিগেজ, উলীন লিমা ও ব্রুনো লিমা- ৫ জনই বিশেষজ্ঞ হিসেবে ফুটবলের দেশ ব্রাজিলে সুনাম কুড়িয়েছেন। তাদের এই সম্মিলিত ‘স্পেশাল’ রায় রদ্রিগোকে নিয়ে বিশেষ আগ্রহই তৈরি করেছে।

গত বছর রিয়ালে যোগ দেয়া আরেক ব্রাজিলিয়ান বিস্ময়বালক ভিনিসিয়াস জুনিয়র এরই মধ্যে বার্নাব্যুতে নিজের অবস্থান এক রকম পাকা করেছেন। প্রতিভা-সামর্থে বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাকে নিয়ে সাবেক ফুটবলারদের অভিমতটা মিথ্যে নয়। সত্যিকার অর্থেই আগামীর সুপারস্টার হতে যাচ্ছেন তিনি।

‘স্পেশাল’ আখ্যা দিয়ে ফোলহা ডু সাও পাওলোর ফুটবলবোদ্ধা ব্রুনো রদিগেজ রদ্রিগোকে এই ভিনিসিয়াসের সঙ্গেই তুলনা করেছেন। বলেছেন, রদ্রিগো ভিনিসিয়াসের মতোই প্রতিভাবান।

‘ফোলহা ডু সাও পাওলো’র আরেক ফুটবল লেখক ক্লাউস রিচমন্ড আবার রদ্রিগোকে তুলনা করেছেন রবিনহো ও নেইমারের সঙ্গে। বলেছেন রদ্রিগোর খেলার ধরন ঠিক রবিনহো ও নেইমারের মতো। খেলেনও নেইমার বা রবিনহোর মতোই বাম উইংয়ে।

তবে ‘নিখাঁদ নাম্বার ৯’ হিসেবেই রদ্রিগো নিজেকে প্রমাণ করেছেন। মোদ্দা কথা, ফরোয়ার্ড হিসেবে আক্রমণভাগের যে কোনো পজিশনেই খেলতে অভ্যস্ত।

অন্য তিনজনও তরুণ রদ্রিগোর মধ্যে ভবিষ্যতের বড় তারকার ছবিই আঁকিয়েছেন। ৫ জনেই এক সুরে বলেছেন, প্রতিভা দিয়ে রদ্রিগো দ্রুতই বিশ্বসেরা রিয়ালের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সক্ষম হবেন।

স্বদেশি ৫ বিশেষজ্ঞ সাংবাদিকের এই প্রশংসা রদ্রিগোকে কতটা উজ্জীবিত করবে কে জানে! তবে যোগ দেয়ার আগেই তাকে ঘিরে রিয়াল সমর্থকদের প্রত্যাশার পারদ যে চড়ে গেল, তাতে কোনো দ্বিধা নেই।

প্রতিভার ঝলক দেখিয়েই বিশ্বসেরা রিয়ালের নজর কাড়েন রদ্রিগো। সান্তোসের হয়ে প্রতিভার প্রমাণ বেশ আগেই দিয়েছেন রদ্রিগো। সান্তোসের যুব একাডেমিতেই ব্রাজিলের ফুটবলবোদ্ধাদের বিশেষ দৃষ্টি কাড়েন তিনি। সেই সুবাদেই ২০১৭ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সেই জায়গা করে নেন সান্তোসের মূল দলে। ডাক পান ব্রাজিলের অনূর্ধ্ব-১৭ দলেও।

বর্তমানে ব্রাজিলের অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে খেলছেন রদ্রিগো। ১৮ পূর্ণ করার আগেই ব্রাজিলের মতো ফুটবল উর্বর দেশের অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে খেলা, ছোট্ট এই তথ্যই রদ্রিগোর অমিয় প্রতিভার সাক্ষ্য দেয়। এই প্রতিভার ঝলকানিতেই প্রথম দর্শনেই বিশ্বসেরা রিয়ালের স্কাউল দলকে মুগ্ধ করেন তিনি।

রিয়াল তাই হাতছাড়া হওয়ার ভয়ে কাল-বিলম্ব না করে গত বছরই চুক্তিটা করে রেখেছে। প্রতিভার বিচারে মোটা অঙ্কের টাকাই গুণতে হয়েছে। ১৮ বছরের তরুণকেই কিনেছে পাক্কা ৪৫ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে। ভাবা যায়!

পুরো নাম রদ্রিগো সিলভা ডি গোয়েস। তবে ব্রাজিলিয়ানরা আদর করে রদ্রিগো বলেই ডাকে। ৫ ব্রাজিলিয়ান সাংবাদিকের রায়ে আস্থা রেখে বলা যায়, রিয়ালের জার্সি গায়ে নিজের রদ্রিগো নামটা বিশ্বদরবারেও দ্রুত প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন রদ্রিগো।

কেআর/আইএম