রোনালদো-নেইমার-এমবাপে বনাম মেসি-সালাহ-বেনজেমা!

ঢাকা, ২০ আগস্ট, ২০১৯ | 2 0 1

রোনালদো-নেইমার-এমবাপে বনাম মেসি-সালাহ-বেনজেমা!

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:২১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০১৯

রোনালদো-নেইমার-এমবাপে বনাম মেসি-সালাহ-বেনজেমা!

মাঠে মুখোমুখি দুই দল। এক দলের আক্রমণভাগে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপে। অন্য দলের আক্রমণে লিওনেল মেসি, মোহামেদ সালাহ ও করিম বেনজেমা। হ্যাঁ, কল্পনার রঙতুলিতে আঁকা দুই দলের আক্রমণ ভাগই এটা। তবে বিশ্বখ্যাত ক্রীড়া সামগ্রী প্রস্তুতকারক কোম্পানি নাইকি ও অ্যাডিডাসের মধ্যে যদি একটা প্রদর্শনী ‘বিজ্ঞাপনী ম্যাচ’ আয়োজন করা হয়, তাহলে কল্পিত এই আক্রমণ লাইন-আপটাই হয়ে উঠবে বাস্তব!

গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে রাজত্ব করছে নাইকি ও অ্যাডিডাস। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি-ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান দুটির লড়াইটাও জমজমাট। শুধু উন্নত মানের ক্রীড়া সরঞ্জাম প্রস্তুত করা নয়, বাজার দখলের জন্য বিশ্বের নামীদামি খেলোয়াড়দের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তিতেও নাইকি ও অ্যাডিডাসের লড়াইটা হাড্ডাহাড্ডি।

ক্রীড়াপ্রেমীদের মন জয় করার আশায় যুক্তরাষ্ট্র-ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নাইকি আজ এক বিশ্ব সেরার সঙ্গে বিজ্ঞাপনী চুক্তি করে তো, কালই অ্যাডিডাস নিজেদের বাণিজ্যিক দূত হিসেবে ঘোষণা করে অন্য এক বিশ্বসেরার নাম। বিশ্বের সব খেলার সেরাদেরই বেছে বেছে নিজেদের বাণিজ্যিক দূত বানিয়েছে প্রতিষ্ঠান দুটি। তবে সেরা বাছাইয়ে ফুটবল মাঠেই যেন প্রতিষ্ঠান দুটির প্রতিদ্বন্দ্বিতাটা বেশি!

ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, নেইমার, এমবাপেরা নাইকির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ। একসঙ্গে নাইকির প্রচারণাও চালান তারা। পাল্টায় অ্যাডিডাস নিজেদের তাঁবুতে ভিড়িয়েছে মেসি, সালাহ, বেনজেমাদের। শুধু আক্রমণভাগের বিশ্বসেরাদের সঙ্গে নয়। মিডফিল্ডার, ডিফেন্ডার, গোলরক্ষকদের সঙ্গে চুক্তিতেও জমাট প্রতিদ্বন্দ্বিতা।

চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের নিয়ে একাদশ গড়লে, দুই প্রতিষ্ঠানের দলই পেয়ে যাবে ‘বিশ্বসেরা দল’-এর খেতাব! নাইকির আক্রমণে রোনালদো, নেইমার, এমবাপের কথা তো আগেই বলা হয়েছে। কল্পিত নাইকির একাদশের মাঝমাঠে থাকবেন রিয়াল মাদ্রিদের ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার লুকা মড্রিচ, চেলসির বেলজিয়ান মিডফিল্ডার এডেন হ্যাজার্ড ও ম্যানচেস্টার সিটির বেলজিয়ান মিডফিল্ডার কেভিন ড্রি ব্রুইন।

গোলপোস্টে থাকবেন রিয়ালের বেলজিয়ান গোলরক্ষক থিবো কুর্তোইস। রক্ষণে থাকবেন রিয়ালের সার্জিও রামোস, বার্সেলোনার জেরার্ড পিকে, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের লুকাস হার্নান্দেজ ও বায়ার্ন মিউনিখের জার্মান ডিফেন্ডার জসুয়া কিমিচ।

অ্যাডিডাসের হয়ে মেসি, সালাহ, বেনজেমাকে আক্রমণে সহায়তা করতে মাঝমাঠে থাকবেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ফরাসি মিডফিল্ডার পল পগবা, চেলসির ফরাসি মিডফিল্ডার কন্তে ও রিয়ালের স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ইসকো। রক্ষণে থাকবেন চেলসির স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সিজার অ্যাজপিলিকুয়েতা, আয়াক্সের ডাচ ডিফেন্ডার ডি লিগট, বায়ার্ন মিউনিখের জার্মান ডিফেন্ডার ম্যাটস হামেলস ও বার্সেলোনার স্প্যানিশ ডিফেন্ডার জর্ডি আলবা। গোলপোস্টের নিচে আস্থার প্রতীক হয়ে থাকবেন বার্সেলোনার জার্মান গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে তের স্টেগান।

বিচারকের আসনে বসালে কোনো দলকেই আপনি পিছিয়ে রাখতে পারবেন না। তো কল্পিত এই একাদশ নিয়ে নাইকি ও অ্যাডিডাস যদি মাঠের যুদ্ধে নেমে পড়ে, তাহলে কারা জিতবে? রোনালদোর নেতৃত্বে নাইকি, নাকি মেসির নেতৃত্বে অ্যাডিডাস?

কেআর

 

ফুটবল: আরও পড়ুন

আরও