১২৫ বছরের মধ্যে সেরা-গোল রেকর্ড ম্যান সিটির

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

১২৫ বছরের মধ্যে সেরা-গোল রেকর্ড ম্যান সিটির

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:১৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৮

১২৫ বছরের মধ্যে সেরা-গোল রেকর্ড ম্যান সিটির

এক, দুই বছর নয়। দীর্ঘ ১২৫ বছর। বলতে পারেন ইংল্যান্ডের শীর্ষ ফুটবল লিগের এই রেকর্ডটাতে ধুলোর পুরো আস্তরণ জমেছিল। এতো বছরেও যে রেকর্ডটা কেউ ভাঙতে পারেনি, ফুটবলপ্রেমীরা হয়তো ধরেই নিয়েছিলেন রেকর্ডটা চিরদিন অক্ষঁতই থাকবে! হ্যাঁ, রেকর্ডটা এখনো অক্ষঁতই। পেপ গার্দিওলার সিটিও ভাঙতে পারল না। তবে ভাঙতে না পারলেও গতকাল মঙ্গলবার রাতে অন্তত এক রেকর্ড গড়েছে গার্দিওলার দল। ইংল্যান্ডের শীর্ষ লিগে মৌসুমের প্রথম ১৫ রাউন্ডে ১২৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ গোল ববধানের রেকর্ড গড়েছে সিটি।

গতকাল ওয়াটফার্ডের বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতেছে ম্যান সিটি। দলের হয়ে গোল দুটি করেছেন লেরয় সেন ও রিয়াদ মাহরেজ। এ নিয়ে মৌসুমের প্রথম ১৫ ম্যাচেই ৪৫ গোল করে ফেলল গার্দিওলার। বিপরীতে ম্যান সিটি হজম করেছে মাত্র ৭টি গোল। মানে ১৫ রাউন্ড শেষে তাদের গোল ব্যবধান ৩৮। যা ইংল্যান্ডের শীর্ষ লিগে মৌসুমের প্রথম ১৫ রাউন্ড শেষে ১২৫ বছরের মধ্যে কোনো দলের সর্বোচ্চ গোল ব্যবধান।

অন্তত এই কীর্তি গড়ার পরও কি গার্দিওলা ও তার দলের খেলোয়াড়দের মনে কোনো আফসোস আছে? থাকতেই পারে। আর একটা গোল হলেই যে প্রায় অমরত্ব পেয়ে যাওয়া সান্ডারল্যান্ডের সেই রেকর্ডটাতে ভাগ বসাতে পারত ম্যান সিটি। সান্ডারল্যান্ড সর্বোচ্চ গোল ববধানের সেই রেকর্ডটাকে গড়েছিল ১৮৯২-৯৩ মৌসুমে। মৌসুমের প্রথম ১৫ রাউন্ড শেষে তাদের গোল ব্যবধান ছিল ৩৯!

গার্দিওলার ম্যান সিটি গত মৌসুম থেকেই ইংল্যান্ডের শীর্ষ লিগের পুরোনো রেকর্ডগুলো ভেঙে নতুন করে গড়ার প্রতিযোগিতায় নেমেছে। গড়ছে একের পর এক রেকর্ড। আগের ম্যাচেই যেমন গড়েছে মৌসুমের প্রথম ১৪ রাউন্ড শেষে সর্বোচ্চ পয়েন্টের রেকর্ড। গতকাল নিজেদের সেই রেকর্ডটাকে আরও মজবুত করল ম্যান সিটি।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গার্দিওলা ম্যান সিটি কতটা অপ্রতিরোধ্য, সেটা একটি তথ্যেই স্পষ্ট। গত মৌসুমে সর্বোচ্চ পয়েন্ট পেয়ে শিরোপা জেতার রেকর্ড গড়া সিটি এ মৌসুমে এখনো পর্যন্ত একটি ম্যাচেও হারেনি। ১৫ ম্যাচেই অপরাজিত। এই ১৫ ম্যাচের মধ্যে ১৩টিতেই জয়। ড্র মাত্র দুই ম্যাচে। গতকালের জয়সহ জয় সর্বশেষ ৭ ম্যাচেই। ম্যান সিটি যে গতিতে ছুটছে, তাতে সামনে আরও কত কত রেকর্ড যে নতুন করে গড়বে, সেটা সময়ই বলে দেবে।

কেআর