ডাইভ-অভিযোগে সেই কাভানির সঙ্গে নেইমারের যুদ্ধ!

ঢাকা, শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১ পৌষ ১৪২৫

ডাইভ-অভিযোগে সেই কাভানির সঙ্গে নেইমারের যুদ্ধ!

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৫৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৮

ডাইভ-অভিযোগে সেই কাভানির সঙ্গে নেইমারের যুদ্ধ!

শুক্রবার রাতে উত্তর লন্ডনে আর্সেনালের এমিরেটস স্টেডিয়ামের ম্যাচটি যেন শেষ দিকে রূপ নিয়েছিল যুদ্ধে! বারবারই বাগ-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েছেন ব্রাজিল ও উরুগুয়ের খেলোয়াড়েরা। তর্ক-বিতর্কের অংশীদার ছিলেন রেফারিও। ম্যাচের ৭৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেই ব্রাজিলকে ১-০ গোলের জয় এনে দিয়েছেন নেইমার। কিন্তু উরুগুইয়ানরা রেফারির এই পেনাল্টি সিদ্ধান্ত সহজভাবে মেনে নিতে পারেননি। তারা সঙ্গে সঙ্গেই রেফারির কাছে সিদ্ধান্ত বাতিলের কড়া প্রতিবাদ জানায়। তর্কাতর্কিতে বেশ খানিকটা সময় বন্ধ থাকে খেলা। তবে ম্যাচের সবচেয়ে আকর্ষণীয় অধ্যায় ছিল দুই ক্লাব সতীর্থ নেইমার ও এডিনসন কাভানির মধ্যকার বাগ-যুদ্ধ!

নিশ্চিতভাবেই এমিরেটস স্টেডিয়ামের ম্যাচটিতে কেন্দ্রিয় চরিত্র ছিলেন ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার। পেনাল্টি থেকে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেছেন। তার আগে তার একটা গোল অফসাইডের খড়্গে পড়ে বাতিল হয়েছে। গোল করা, গোল বাতিল হওয়া ছাড়াও পুরো ম্যাচেই অসাধারণ খেলেছেন নেইমার। হয়েছেন উরুগইয়ানদের রোষানলের শিকারও। ৮৫ ম্যাচে মিনিটে সেরকম একটা ফাউলকে কেন্দ্র করেই মাঠের মধ্যে যুদ্ধ লেগে যায় নেইমার ও কাভানির মধ্যে।

পিএসজির দুই সতীর্থের মধ্যকার সম্পর্কের তিক্ততাটা পুরোনোই। ২০১৭ সালে বার্সেলোনা ছেড়ে নেইমার পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই কাভানির সঙ্গে তার দ্বন্দ্বের শুরু। ফ্রি কিক ও পেনাল্টি শট নেওয়া নিয়ে একবার তো মাঠের মধ্যেই যুদ্ধে লিপ্ত হন দুজনে। তাদের সেই ঝগড়া নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার জল গড়িয়েছে অনেক। পরে অবশ্য দুজনেই দাবি করেন, তাদের মধ্যে ব্যক্তিগত কোনো সমস্যা নেই। তাদের মধ্যকার সম্পর্কটা ভালো।

কিন্তু গতকাল রাতের ঘটনা যেন তাদের সেই দাবিকে মিথ্যেই প্রমাণ করে দিল। নয়তো কাভানি কেন ডাইভ দেওয়ার গুরুতর অভিযোগ তুলে ক্লাব সতীর্থকে নতুন করে প্রশ্নবিদ্ধ করবেন!

নেইমারের বিরুদ্ধে ডাইভ দেওয়ার অভিযোগ নতুন নয়। বিশ্বকাপে তো ডাইভ দেওয়ার অভিযোগে ব্যাপক সমালোচিত হয়েছেন ব্রাজিল তারকা। ধাক্কা ছাড়াই মাটিতে পড়ে যাওয়ার অভিযোগে তাকে দক্ষ অভিনেতা পর্যন্ত আখ্যায়িত করা হয়েছে।

বাইরের লোকের তোলা সেই অভিযোগ থেকে বেরিয়ে আসাটা এমনিতেই নেইমারের জন্য চ্যালেঞ্জিং বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেখানে কাভানি যেন নতুন করে ডাইভ দেওয়ার অভিযোগ তুলে বাইরের মানুষের সেই অভিযোগকে সত্য বলে প্রমাণ করলেন! বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, নেইমার আসলেই ডাইভ দেন!

ক্লাবে সতীর্থ হলেও কাল তারা ছিলেন একে অন্যের প্রতিপক্ষ। তা কাভানি প্রতিপক্ষের মতোই আচরণ করেছেন। যে ফাউল নিয়ে কাল দুজনের মধ্যে বাগ-যুদ্ধ, নেইমারকে সেই ফাউলটা করেছিলেন কাভানিই। ম্যাচের ৮৫ মিনিটে বেশ উত্তেজিত হয়েই বল নিয়ে আগুয়ান নেইমারকে ট্যাকল করেন কাভানি। নেইমার মাটিতে পড়ে গেলে ফাউলেল বাঁশি দেন রেফারি। কাভানি রেফারির কাছে ফাউলের সিদ্ধান্ত বাতিলের প্রতিবাদ করার পাশাপাশি নেইমারের বিরুদ্ধে ডাইভ দেওয়ার অভিযোগ তুলেন। দাবি করেন, এটা ফাউল নয়, নেইমার ডাইভ দিয়েছে!

স্বাভাবিকভাবেই ক্লাব সতীর্থের এই গুরুতর অভিযোগ ভালোভাবে নেননি নেইমার। ফাউলের সিদ্ধান্ত বহাল রাখার মাধ্যমে খেলা আবার শুরু হলেও নেইমার-কাভানির যুদ্ধ থামেনি। ম্যাচের বাকি সময়টুকু জুড়েই উতপ্ত তর্কাতর্কি করেছেন তারা। এমনকি ম্যাচ শেষেও দুজনে বেশ উত্তেজিত ছিলেন। দুজনের মধ্যে নতুন করে দ্বন্দ্বের এই রেশ যে ক্লাব পিএসজিতে গিয়েও পড়বে, সেটা সহজেই অনুমেয়।

কেআর