বড় দলের অধিনায়ক-কোচরা কে কাকে ভোট দিয়েছেন

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

বড় দলের অধিনায়ক-কোচরা কে কাকে ভোট দিয়েছেন

পরিবর্তন ডেস্ক ৪:২৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

বড় দলের অধিনায়ক-কোচরা কে কাকে ভোট দিয়েছেন

মেসি-রোনালদোর রাজত্বে হানা দিয়ে প্রথম বারের মতো ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের (দ্য বেস্ট) পুরস্কারটা জিতে নিয়েছেন লুকা মড্রিচ। নিশ্চিতভাবেই এটা বড় ঘটনা। তবে এর চেয়েও বিস্ময়কর কাণ্ড ঘটেছে এবারের ফিফা পুরস্কারের ভোটাভুটিতে। সেটি ঘটিয়েছেন লিওনেল মেসি। বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা প্রথম বারের মতো ভোট দিয়েছেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোকে!

মেসি রোনালদোকে দিয়েছেন তৃতীয় পছন্দের ভোটটি। সেজন্য রোনালদো পেয়েছেন এক পয়েন্ট। মেসি ৩ পয়েন্টের প্রথম পছন্দের ভোটটা দিয়েছেন লুকা মড্রিচকে। যিনি শেষ পর্যন্ত বিজয়ী হয়েছেন। আর ২ পয়েন্টের দ্বিতীয় পছন্দের ভোটটা মেসি দিয়েছেন সেই কিলিয়ান এমবাপেকে, বিশ্বকাপের শেষ ষোলতে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দিয়েছেন যিনি!

শুধু মেসির ভোট নয়, ফিফা পুরস্কারের জন্য বিশ্বের বড় দলগুলোর অধিনায়কেরা কে কাকে ভোট দিয়েছেন, সেই পুরো তালিকায় প্রকাশ করেছে ফিফা। তাতে দেখা যাচ্ছে পুরস্কার জেতা লুকা মড্রিচ এবং দ্বিতীয় হওয়া ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো, দুজনেই একে অন্যকে ভোট দিয়েছেন। একে অন্যকে ভোট দানের ক্ষেত্রে অন্য একটা সাদৃশ্য দেখিয়েছেন মড্রিচ-রোনালদো। দুজনেই দুজনকে দিয়েছেন দ্বিতীয় পছন্দের ভোট।

শুধু ভাই নয়, ভোটদানে মড্রিচ-রোনালদোর প্রথম এবং তৃতীয় পছন্দও এক সুতোয় মিলে গেছে! ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক হিসেবে পুরস্কার বিজয়ী মড্রিচ নিজের প্রথম পছন্দের ভোটটি দিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদের ফরাসি ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানেকে। দ্বিতীয় পছন্দের ভোটটি দিয়েছেন রোনালদোকে। তৃতীয় পছন্দের ভোটটি অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের ফরাসি ফরোয়ার্ড আতোইন গ্রিজমানকে।

পর্তুগাল জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে রোনালদোও মড্রিচের মতো নিজের প্রথম এবং তৃতীয় পছন্দের ভোট দুটি যথাক্রমে দিয়েছেন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের দুই খেলোয়াড় রাফায়েল ভারানে ও আতোইন গ্রিজমানকে। তাদের ভোটদানে পার্থক্য শুধু এই, মড্রিচের দ্বিতীয় পছন্দ রোনালদো, রোনালদোর দ্বিতীয পছন্দ মড্রিচ।

ভোটকালীন সময়ে ব্রাজিলের অধিনায়ক ছিলেন হুয়াও মিরান্ডা। তিনি ভোট দিয়েছেন যথাক্রমে রোনালদো, এমবাপে ও মেসিকে। কলম্বিয়ার অধিনায়ক রাদামেল ফ্যালকাওয়ের ভোট পড়েছে মড্রিচ, রোনালদো ও এমবাপের বাক্সে। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের অধিনায়ক হুগো লরিস নিজের ৩টি ভোটই দিয়েছেন তার তিন জাতীয় দল সতীর্থকে। পর্যাক্রমে তিনি ভোট দিয়েছেন ভারানে, গ্রিজমান ও এমবাপেকে।

জার্মানির অধিনায়ক ম্যানুয়েল নয়্যার ভোট দিয়েছেন যথাক্রমে এডেন হ্যাজার্ড, মড্রিচ ও ভারানেকে। ইতালির অধিনায়ক জর্জো কিয়েলিনি ভোট দিয়েছেন রোনালদো, মড্রিচ ও মোহাম্মদ সালাহকে। স্পেনের অধিনায়ক সার্জিও রামোস এই প্রথম ভোট দিয়েছেন শত্রু পক্ষের (বার্সেলোনা) মেসিকে। মেসিকে তিনি অবশ্য দিয়েছেন তৃতীয় পছন্দের ভোট। রামোসের প্রথম ও দ্বিতীয় পছন্দের ভোট দুটি পেয়েছেন মড্রিচ ও রোনালদো।

ভোটে গ্রিজমান ৩ পয়েন্টের মানে প্রথম পছন্দের ভোট পেয়েছেন মাত্র ১টি। ফরাসি তারকাকে সেই ভোটটি দিয়েছেন উরুগুয়ের অধিনায়ক দিয়েগো গডিন। অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের এই উরুগুইয়ান ডিফেন্ডার অন্য ভোট দুটি দিয়েছেন মোহাম্মদ সালাহ ও মড্রিচকে। উপরের এই ভোট তথ্যে একটা বিষয় স্পষ্ট, মেসি-রোনালদো প্রথম পছন্দের ভেট পেয়েছেন খুবই কম। অনেকে তো তাদের দুজনেই কাউকেই ভোট দেননি। যা অস্পষ্টে জানিয়ে দিচ্ছে, মেসি-রোনালদোর জামানা শেষ!

একই চিত্র প্রস্ফুটিত কোচদের ভোটদানের ক্ষেত্রেও। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশ যথাক্রমে ভোট দিয়েছেন গ্রিজমান, ভারানে ও এমবাপেকে। রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়ার কোচ জ্লাতকো দালিচ ভোট দিয়েছেন মড্রিচ, মেসিকে ও রোনালদোকে। ব্রাজিল কোচ তিতের ভোট গেছে মড্রিচ, সালাহ ও রোনালদোর অ্যাকাউন্টে। পর্তুগাল কোচ ফার্নান্দো সান্তোসের ভোট পড়েছে রোনালদো, মড্রিচ ও হ্যাজার্ডের বাক্সে। আর্জেন্টিনার অন্তর্বর্তী কোচ লিওনেল স্কালোনির ভোট পেয়েছেন যথাক্রমে মেসি, মড্রিচ ও গ্রিজমান।

কোচদের কাছ থেকে আরও একটি প্রথম পছন্দের ভোট পেয়েছেন মেসি। তিন স্পেনের নতুন কোচ লুইস এনরিকে। দুই মৌসুমে আগে তিনি বার্সেলোনার কোচ ছিলেন। সেই সুবাদেই এনরিকে প্রথম ভোটটা দিয়েছেন মেসিকে। তার অন্য ভোট দুটি গেছে মড্রিচ ও সালাহ’র বাক্সে।

কেআর