অতীতের অপবাদ মুছতে ফিফা অনুষ্ঠানে যাবেন মেসি!

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

অতীতের অপবাদ মুছতে ফিফা অনুষ্ঠানে যাবেন মেসি!

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৫০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮

অতীতের অপবাদ মুছতে ফিফা অনুষ্ঠানে যাবেন মেসি!

অতীতের সেই বদনামটুকু মুছে ফেলতেই মহতী এই সিদ্ধান্তটা নিয়েছেন লিওনেল মেসি? পেছনের কারণ যাই হোক, মেসির এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাতেই হবে। এবারের ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কারের জন্য ঘোষিত তিনজনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় মেসি নেই। মানে পুরস্কারটা তার পাওয়ার কোনো সম্ভাবনাই নেই। তারপরও বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ফিফা পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে যাওয়ার।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী সোমবার লন্ডনের ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার অনুষ্ঠানে সশরীরে হাজির থাকবেন মেসি। তিনজনের তালিকায় থাকার পরও গত মাসে উয়েফার বর্ষসেরা পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থাকেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। মোনাকোর পুরস্কার অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য অবশ্য প্রস্তুতই ছিলেন রোনালদো। কিন্তু রওনা দেওয়ার ঠিক আগ মুহূর্তে জানতে পারেন, বর্ষসেরার পুরস্কারটা তিনি পাচ্ছেন না। তাই রাগে-দুঃখে-ক্ষোভে অনুষ্ঠানে যাওয়া থেকে বিরত থাকেন।

এ নিয়ে সমালোচনা কম শুনতে হয়নি তাকে। কেউ কেউ তো পর্তুগিজ সুপারস্টারের খেলোয়াড়ী চেতনা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। দুই বছর পর রোনালদোর মতো এরকম একটা বিতর্কিত কাণ্ড করেছিলেন মেসিও। ২০১৬ সালে তিনজনের তালিকায় থাকার পরও এই ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার অনুষ্ঠানে যাননি মেসি। তিনিও রওনা দেওয়ার আগে আগে জানতে পেরেছিলেন, পুরস্কারটা তিনি পাচ্ছেন না। পাচ্ছেন তারই প্রতিদ্বন্দ্বী রোনালদো। মেসি তাই ক্ষোভে-হতাশায় সেবার পুরস্কার অনুষ্ঠানে যাননি।

মেসির এই অনুপস্থিতি নিয়ে সেদিন পুরস্কার মঞ্চেই সমালোচনা করেছিলেন বিজয়ী রোনালদো। এবার উয়েফার পুরস্কার অনুষ্ঠানে না যাওয়ায় মেসিকে নিয়ে নিজের সেই সমালোচনা গিলতে হয়েছে রোনা্লদোকে। পাশাপাশি মেসির ভুলটাও যেন ধরিয়ে দিয়েছেন। রোনালদোর এবারের ঘটনার মধ্যদিয়ে মেসি হয়তো ভালো করেই বুঝতে পেরেছেন, দুই বছর আগে পুরস্কার অনুষ্ঠানে না গিয়ে বড় ভুল করেছিলেন তিনি।

সেই ভুল শুধরাতেই হয়তো এবার তালিকায় না থেকেও যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাছাড়া বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারের দৌড়ে না থাকলেও ফিফার বাছাই করা বর্ষসেরা একাদশে আছেন। তাই লন্ডনে অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য মেসিও আমন্ত্রিত হয়েছেন। দাওয়াত পেয়েছেন বর্ষসেরা একাদশে থাকা ১১ জনই। কিন্তু তাদের সবাই হয়তো যাবেন না।

অতীত ইতিহাস অন্তত সে কথাই বলে। কারণ, বর্ষসেরা একাদশে থাকা খেলোয়াড়ে সবাই দল বেঁধে পুরস্কার অনুষ্ঠানে গেছেন, ইতিহাসে এ রকম নজির নেই। তবে ব্যক্তিগত পুরস্কারের জন্য মনোনিতরা অবশ্যই যান। ব্যতিক্রম শুধু ২০১৬ সালের ফিফা অনুষ্ঠানে মেসি এবং এবার উয়েফার অনুষ্টানে রোনালদোর অনুপস্থিত থাকাটাই।

তাই অতীতের সেই বদনামটুকু মুছে ফেলার তাড়না থেকেই হয়তো মেসি এবার লন্ডনের অনুষ্ঠানে যাবেন বলে ঠিক করেছেন। মেসি হয়তো ভেতরের দায়বদ্ধতা থেকেই যাচ্ছেন। অন্যদিকে রোনালদোকে যেতে হবে বাধ্য হয়েই। কারণ, এবারের ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারের দৌড়ে লুকা মড্রিচ ও মোহামেদ সালাহ’র সঙ্গে তিনিও আছেন।

 উয়েফার অনুষ্ঠানের মতো এবারও যদি তিনি পুরস্কার অনুষ্ঠানে না যান, তাহলে আরও কড় সমালোচনার মুখোমুখি হতে হবে তাকে। রোনালদো নিশ্চয় চাইবেন না আরও একবার পুরস্কার অনুপস্থিত থেকে নিজের সম্মান-মর্যাদাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে।

কেআর