মেসি ও বার্সেলোনাকে নিয়ে কুতিনহোর আক্ষেপ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮ | ৩ কার্তিক ১৪২৫

মেসি ও বার্সেলোনাকে নিয়ে কুতিনহোর আক্ষেপ

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:৪২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৮

মেসি ও বার্সেলোনাকে নিয়ে কুতিনহোর আক্ষেপ

সর্বকালের সেরা তো নয়, লিওনেল মেসিকে বর্তমানের বিশ্বসেরা মানতেও নারাজ রিয়াল মাদ্রিদ শিবিরের কেউ কেউ। ক্লাব বার্সেলোনাকেও বিশ্বসেরা মানতে আপত্তি তাদের। তাদের যুক্তি মেসি যদি বিশ্বসেরা হন, বার্সেলোনা যদি বিশ্বসেরা ক্লাব হয় তাহলে রিয়াল মাদ্রিদ কিভাবে টানা তিনবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতল? একটু ঘুরিয়ে ঠিক একই রকম একটা প্রশ্নই ভেতরে ভেতরে অস্থীর করে তুলছে ফিলিপে কুতিনহোকে। তার কথা, বিশ্বসেরা মেসি থাকতে বার্সেলোনা কেন ৪ বছরে মাত্র একবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতল?

কুতিনহো নিজেও এখন আপাদমস্তক বার্সেলোনার খেলোয়াড়। তাই সতীর্থ মেসি বা বার্সেলোনার সমালোচনা নয়। ব্রাজিলিয়ান তারকার মনে বরং জন্ম নিয়েছে আক্ষেপ। মেসি থাকতে ৪ বছরে বার্সেলোনার একবার মাত্র চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার বিষয়টা তিনি মানতেই পারছেন না। কেন মেসি থাকার পরও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সেলোনার এই ব্যর্থতা, এর কোনো ব্যাখ্যাও নেই কুতিনহোর কাছে।

আজ মঙ্গলবার রাত থেকেই আবার শুরু হতে যাচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের মূলপর্ব। আর গ্রুপপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচটি খেলতে আজ উদ্বোধনী দিনেই মাঠে নামছে বার্সেলোনা। নিজেদের ঘরের মাঠ ন্যু-ক্যাম্পে তাদের প্রতিপক্ষ ডাচ ক্লাব পিএসভি আইন্দোহোফেন। এই ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সেলোনার সাম্প্রতিক ব্যর্থতা নিয়ে আক্ষেপ ঝরল কুতিনহোর কণ্ঠে।

বার্সেলোনা সর্বশেষ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতেছিল ২০১৫ সালে। এরপর গত তিন বছরই ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদার এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছে রিয়াল। আর এই তিন বছরই মেসির বার্সেলোনার বিদায় ঘণ্টা বেজেছে কোয়ার্টার ফাইনালে। এর মধ্যে মাত্র একবারই কুতিনহোর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটানোর কথা। সেটা গত মৌসুমে।

কারণ, লিভারপুল ছেড়ে ব্রাজিলিয়ান তারকা বার্সেলোনায় যোগ দিয়েছেন গত জানুয়ারিতে। কিন্তু কথা শুনে মনে হলো বার্সার গত তিনটি বিদায়ের ঘটনাই ভেতরে ভেতরে দগ্ধ করছে তাকে, ‘এটা আসলে ব্যাখ্যা করা কঠিন। সে (মেসি) বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়। সর্বকালের সেরা। সে থাকতেও গত ৪ বছরে বার্সেলোনা কেন মাত্র একবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতল, এটা আসলেই ব্যাখ্যা করা কঠিন।’

শুধু কুতিনহো নন, পুরো বার্সেলোনা শিবিরই এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজে বেড়াচ্ছে। মেসি তো মৌসুম শুরুর আগেই প্রকাশ্যে ঘোষণা দিয়েছেন, চ্যাম্পিয়ন্স লিগকেই এবার এক নম্বর অগ্রাধিকার দিবে বার্সা। বার্সেলোনার কোচ-কর্তা-সমর্থক এবং অন্য খেলোয়াড়েরাও চ্যাম্পিয়ন্স লিগকেই করেছে এক নম্বর লক্ষ্য। যে করেই হোক রিয়ালের রাজত্বে হানা দিয়ে জিততে চায় শিরোপা।

প্রথম ম্যাচ খেলতে নামার আগে কুতিনহোও গাইলেন দলীয় সেই সংহতির গানই, ‘মেসিসহ আমাদের দলের সবাই এ মৌসুমে বড় কিছু অর্জন করতে অনুপ্রাণিত। নিশ্চিতভাবেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ তার মধ্যে অন্যতম।’

গত মৌসুমে দলে থাকলেও কুতিনহোকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বার্সেলোনার স্বপ্নভঙ্গের করুণ দৃশ্যটি দেখতে হয়েছে মাঠের বাইরে বসে। কারণ, মৌসুমের প্রথম ভাগে লিভারপুলের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলে ফেলেছিলেন কুতিনহো। জানুয়ারিতে যোগ দিলেও তাই বার্সেলোনার হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলতে পারেননি।

এবার আর কোনো বাঁধা নেই। আজ প্রথম ম্যাচ থেকেই মাঠে নামছেন কুতিনহো। লক্ষ্য একটাই সতীর্থদের নিয়ে গত তিন বছরের শিরোপা-খরা ঘুচানো। কুতিনহো পারবেন শিরোপা জিতে নিজের মনের জন্ম নেওয়া ওই আক্ষেপটা দুয়ে মুছে ফেলতে?

কেআর